আকাবা

স্থানাঙ্ক: ২৯°৩১′৫৫″ উত্তর ৩৫°০০′২০″ পূর্ব / ২৯.৫৩১৯৪° উত্তর ৩৫.০০৫৫৬° পূর্ব / 29.53194; 35.00556
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আকাবা
العَقبة
নগর
Clockwise from the left top: Aqaba's skyline, Aqaba Fort and Aqaba Fields, Al-Hammamat Al-Tunisyya Street in Down Town, Resort in Aqaba, Ayla old City, Aqaba Port, Aqaba Flagpole.
Clockwise from the left top: Aqaba's skyline, Aqaba Fort and Aqaba Fields, Al-Hammamat Al-Tunisyya Street in Down Town, Resort in Aqaba, Ayla old City, Aqaba Port, Aqaba Flagpole.
ডাকনাম: The Bride of the Red Sea
আকাবার অবস্থান
আকাবা জর্ডান-এ অবস্থিত
আকাবা
আকাবা
স্থানাঙ্ক: ২৯°৩১′৫৫″ উত্তর ৩৫°০০′২০″ পূর্ব / ২৯.৫৩১৯৪° উত্তর ৩৫.০০৫৫৬° পূর্ব / 29.53194; 35.00556
দেশ Jordan
গভর্নরেটআকাবা গভর্নরেট
প্রতিষ্ঠিত৪০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ
কর্তৃপক্ষ২০০১
আয়তন
 • নগর৩৭৫ বর্গকিমি (১৪৫ বর্গমাইল)
উচ্চতা৬ মিটার (২০ ফুট)
জনসংখ্যা (২০৩১)
 • নগর৯৫,০৪৮[১]
 • জনঘনত্ব৫০২/বর্গকিমি (১,৩০০/বর্গমাইল)
 • পৌর এলাকা১,৪৮,৩৯৮
বিশেষণAqabawi
সময় অঞ্চল+2 Eastern European Standard Time
 • গ্রীষ্মকালীন (দিসস)+3 Arabia Standard Time (ইউটিসি)
Postal code77110
এলাকা কোড+(962)3
ওয়েবসাইট

আকাবা ( ইংরেজি: /ˈækəbə/, এছাড়াও ইউএস: /ˈɑːk-/ ; আরবি: العقبة, প্রতিবর্ণীকৃত: al-ʿAqaba, al-ʿAgaba : العقبة , রোমানাইজড : আল-আকাবা, আল-আগাবা , উচ্চারণ [æl ˈʕæqaba, alˈʕagaba] ) জর্ডানের একমাত্র উপকূলীয় শহর এবং আকাবা উপসাগরের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে জনবহুল শহর।[২] জর্ডানের সর্বদক্ষিণে অবস্থিত, আকাবা হল আকাবা গভর্নরেটের প্রশাসনিক কেন্দ্র।[৩] ২০১৫ সালে শহরের জনসংখ্যা ছিল ১৪৮,৩৯৮ এবং ভূমির আয়তন ৩৭৫ বর্গকিলোমিটার (১৪৪.৮ মা)।[৪] বর্তমানে আকাবা স্পন্দনশীল বাণিজ্য ও পর্যটন খাতের মাধ্যমে জর্ডানের অর্থনীতির উন্নয়নে একটি প্রধান ভূমিকা পালন করে। আকাবা বন্দরটি এই অঞ্চলের অন্যান্য দেশেও সেবা দেয়।[৫]

এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশের মধ্যে লোহিত সাগরের উত্তর-পূর্ব প্রান্তে আকাবার কৌশলগত অবস্থান হাজার হাজার বছর ধরে এর বন্দরটিকে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছে।[৫]

প্রাচীন শহরটির নাম ছিল এলথ, ল্যাটিন ভাষায় আইলা এবং আরবি ভাষায় আয়লা নামে গৃহীত।এর কৌশলগত অবস্থান এবং তামার খনির নৈকট্য এটিকে চ্যালকোলিথিক যুগে তামার উৎপাদন ও বাণিজ্যের একটি আঞ্চলিক কেন্দ্রে পরিণত করেছিল। আইলা বাইজেন্টাইন শাসনের অধীনে একজন বিশপ্রিক হয়ে ওঠেন এবং পরে ৬৫০ খ্রিস্টাব্দের দিকে ইসলামিক বিজয়ের পর লাতিন ক্যাথলিক শিরোনামে পরিণত হন, যখন এটি আয়লা নামে পরিচিত হয়; আকাবা নামটি মধ্যযুগীয়।[৬] দ্য গ্রেট আরব রিভোল্টের আকাবার যুদ্ধ, লরেন্স অফ অ্যারাবিয়া চলচ্চিত্রে চিত্রিত, [৭] ফলে উসমানীয় রক্ষকদের উপর আরব বাহিনীর বিজয় হয়।[৮]

ওয়াদি রাম এবং পেট্রার পাশে আকাবার অবস্থান এটিকে জর্ডানের পর্যটনের সোনালী ত্রিভুজে রেখেছে, যা বিশ্ব মানচিত্রে শহরের অবস্থানকে শক্তিশালী করেছে এবং এটিকে জর্ডানের অন্যতম প্রধান পর্যটন আকর্ষণে পরিণত করেছে।[৯] শহরটি আকাবা স্পেশাল ইকোনমিক জোন অথরিটি দ্বারা পরিচালিত হয়, যা আকাবাকে একটি কম ট্যাক্স, শুল্কমুক্ত শহরে পরিণত করেছে, আয়লা ওয়েসিস, সারায়া আকাবা, মারসা জায়েদ এবং আকাবা বন্দরের সম্প্রসারণের মতো বেশ কয়েকটি মেগা প্রকল্পকে আকৃষ্ট করেছে।[১০] তারা শহরটিকে অঞ্চলের একটি প্রধান পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত করবে বলে আশা করা হচ্ছে।[১১] যাইহোক, দেশের একমাত্র সমুদ্রবন্দর হিসাবে শহরের কৌশলগত অবস্থানের কারণে শিল্প ও বাণিজ্যিক কার্যক্রম গুরুত্বপূর্ণ।[১২] শহরটি ইলাত থেকে সীমানা পেরিয়ে ঠিক একইভাবে লোহিত সাগরে ইসরায়েলের একমাত্র বন্দর। ১৯৯৪ সালের ইসরায়েল জর্ডান শান্তি চুক্তির পরে একটি আন্তঃসীমান্ত পর্যটন এবং অর্থনৈতিক এলাকা প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা এবং আশা ছিল, কিন্তু সেই পরিকল্পনাগুলির মধ্যে কয়েকটি সফল হয়েছে।[১৩][১৪][১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The General Census – 2015" (পিডিএফ)। Department of Population Statistics। ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জানুয়ারি ২০১৮ 
  2. "العقبة.. مدينة الشمس والبـــحر والسلام"Ad Dustour (আরবি ভাষায়)। Ad Dustour। ১ এপ্রিল ২০১৬। ১২ এপ্রিল ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ এপ্রিল ২০১৬ "العقبة. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ এপ্রিল ২০২০ তারিখে
  3. "Fact Sheet"Aqaba Special Economic Zone Authority। Aqaba Special Economic Zone Authority.। ২০১৩। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ "Fact Sheet".
  4. Ghazal, Mohammad (২২ জানুয়ারি ২০১৬)। "Population stands at around 10.24 million, including 2.9 million guests"The Jordan Times। The Jordan News। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১৬ 
  5. "Port expansion strengthens Jordanian city of Aqaba's position as modern shipping hub"The Worldfolio। Worldfolio Ltd। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। ২৭ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ .
  6. "العقبة.. ثغر الاردن الباسم"Ad-Dustor Newspaper। Ad-Dustor Newspaper। ২১ জুন ২০১৩। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  7. "The Complete Guide to Lawrence's Arabia"Independent। ২২ মে ২০০৪। ১৭ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ "The Complete Guide to Lawrence's Arabia".
  8. "The Taking of Akaba – 1917 – T.E. Lawrence, Auda abu Tayi, Prince Feisal, Port of Aqaba"www.cliohistory.org। ৩১ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৬ "The Taking of Akaba – 1917 – T.E. Lawrence, Auda abu Tayi, Prince Feisal, Port of Aqaba". www.cliohistory.org.
  9. "Jordan tapping popularity of UEFA Champions League to promote tourism"The Jordan Times। The Jordan News। ২৬ মার্চ ২০১৫। ১৪ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ "Jordan tapping popularity of UEFA Champions League to promote tourism".
  10. "King checks on Aqaba Mega-Projects"The Jordan Times। ৭ জুন ২০১২। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ .
  11. "Aqaba has caught mega-project fever from its Gulf neighbours"। Your Middle East। ২৯ এপ্রিল ২০১৩। ২৮ জুন ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ "Aqaba has caught mega-project fever from its Gulf neighbours" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৮ জুন ২০১৬ তারিখে.
  12. Jean-Eric Aubert; Jean-Louis Reiffers (২০০৩)। Knowledge Economies in the Middle East and North Africa: Toward New Development Strategies। World Bank Publications। পৃষ্ঠা 59। আইএসবিএন 978-0-8213-5701-9। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ Jean-Eric Aubert; Jean-Louis Reiffers (2003).
  13. "Cross border interactions across a formerly hostile border: The case of Eilat, Israel and Aqaba, Jordan"Researchgate.net। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 
  14. Gradus, Yehuda (১ মে ২০০১)। "Is Eilat-Aqaba a bi-national city? Can economic opportunities overcome the barriers of politics and psychology?": 85–99। ডিওআই:10.1023/A:1021196800473। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০২১ – Springer Link-এর মাধ্যমে। 
  15. "Working Paper 15 : Municipal Cooperation across Securitized Borders in the PostConflict Environment: The Gulf of Aqaba" (পিডিএফ)Euborderscapes.eu। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০২১