অরুণিমা সিনহা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অরুণিমা সিনহা
Arunima sinha.png
২০১৪ সালে অরুণিমা সিনহা
জন্ম
সোনু

(1988-07-20) ২০ জুলাই ১৯৮৮ (বয়স ৩১)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅরুণিমা ফাউন্ডেশনে দাতব্য কর্মী, জাতীয় স্তরের ভলিবল খেলোয়াড়,প্রেরণামূলক বক্তা, পর্বতারোহী
পরিচিতির কারণপা বাদ যাওয়ার পরে প্রথম মহিলা এভারেস্ট জয়ী
পুরস্কারপদ্মশ্রী

অরুণিমা সিনহা (জন্ম ২০ জুলাই ১৯৮৮) প্রথম মহিলা যিনি পা বাদ যাওয়ার পরে মাউন্ট এভারেস্টভিনসন স্তূপপর্বত জয় করেন।[১][২][৩][৪]

উনি জাতীয় স্তরের ভলিবল খেলোয়ার ছিলেন। ২০১১ সালে একটি ডাকাতদলকে বাধা দেওয়ার সময় ওনাকে চলন্ত ট্রেন থেকে ফেলে দেওয়া হয়। এর ফলে হাঁটুর নিচ থেকে ওনার একটি পা বাদ দিতে হয়।[৫]

সবকটি মহাদেশের সর্বোচ্চ শিখরগুলি জয় করা ওনার স্বপ্ন। ২০১৪ সালের মধ্যে উনি ছয়টি শিখর জয় করে ফেলেন, যা হল এশিয়ায় মাউন্ট এভারেস্ট, আফ্রিকায় কিলিমাঞ্জারো, ইউরোপ-এ এলব্রুস পর্বত, অস্ট্রেলিয়ায় মাউন্ট কস্চিয়স্কো, দক্ষিণ আমেরিকায় অ্যাকনকাগুয়া পর্বতওশেনিয়ার পুঞ্চাক জায়া[৬] ২০১৯ সালের ৪টা জানুয়ারি উনি অ্যান্টার্কটিকার ভিনসন স্তূপপর্বত জয় করেন।[৪][৭]

প্রথম জীবন ও রেল দুর্ঘটনা[সম্পাদনা]

ভারতের উত্তরপ্রদেশ-এর আম্বেদকর নগর-এ অরুণিমা সিনহার জন্ম। উনি জাতীয় স্তরের ভলিবল খেলোয়ার ছিলেন।[৮]

১২ এপ্রিল ২০১১ সালে উনি লখনউ থেকে দিল্লি যাওয়ার পদ্মাবতী এক্সপ্রেস ধরেন। সিআইএসএফ-এর পরীক্ষা দিতে উনি দিল্লি যাচ্ছিলেন। ট্রেনে একটি ডাকাত দল ওনার ব্যাগ ও সোনার চেন ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে উনি বাঁধা দিতে যান। ফলস্বরুপ চলন্ত ট্রেন থেকে ওনাকে ফেলে দেওয়া হয়। অন্য একটি ট্রেন ওনার পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়।[৯] গুরুতর আহত অবস্থায় ওনাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়[৮] ও ওনার প্রাণ বাচাতে ডাক্তাররা হাঁটুর তলা থেকে ওনাত একটি পা বাদ দিতে বাধ্য হন।[১০]

মাউন্ট এভারেস্ট জয়[সম্পাদনা]

চিকিৎসা চলাকালীন অরুণিমা এভারেস্ট আরোহণের সিদ্ধান্ত নেন।[১১] ক্রিকেট খেলোয়ার যুবরাজ সিং-এর ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই ও জয় ওনাকে অনুপ্রাণিত করে।[১২]

উত্তরকাশীর নেহেরু ইনস্টিটিউট অফ মাউন্টেনিয়ারিং-এ প্রাথমিক কোর্সে উনি ভালো ফল করেন। কৃত্রিম পায়ের সাহায্যে উনি পর্বতারোহণ করতে থাকেন।[১৩] এভারেস্ট পর্বতশৃঙ্গ বিজয়ী প্রথম ভারতীয় মহিলা বাচেন্দ্রী পালের সাথে উনি যোগাযোগ করেন ও ওনার তত্ত্বাবধানে উত্তরকাশীতে ২০১২ সালে টাটা ষ্টীল এডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনে প্রশিক্ষন নেন।[১১][১৪][১৫]

এভারেস্ট আরোহণের প্রস্তুতি স্বরূপ উনি আইল্যান্ড পিক (৬১৫০ মিটার) জয় করেন ২০১২ সালে।[১৬]

২১ মে ২০১৩ সালে, ১৭ ঘন্টার কঠিন আরোহণের পর, সকাল ১০ঃ৫৫ মিনিটে, পা বাদ যাওয়া, বিশ্বের প্রথম মহিলা রুপে এভারেস্ট জয় করেন অরুণিমা সিনহা।[১৭] শৃঙ্গে উঠতে ওনার মোট ৫২ দিন লেগেছিল।[১৮][১৯]

পুরষ্কার[সম্পাদনা]

২০১৫ সালে ভারতের চতুর্থ সর্ব্বোচ্চ অসামরিক সন্মান, পদ্মশ্রী দেওয়া হয় অরুণিমাকে।[২০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Arunima Sinha, Indian Woman, Is First Female Amputee To Climb Everest in the world"The Huffington Post। ২২ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৩ 
  2. http://www.indoscopy.com/2013/05/first-indian-amputee-climb-everest.html | Arunima Sinha first Indian amputee to climb Mt Everest
  3. "Arunima becomes first Indian amputee to scale Everest"The Hindu। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ She is also the first female amputee to climb Mount Everest.
  4. "Another peak scaled: India's Arunima Sinha becomes first female amputee to climb the highest peak of Antarctica - Mt Vinson - Times of India"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-০৫ 
  5. "This inspiring story of the first female amputee to climb Mount Everest will make you proud"intoday.in। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৭ 
  6. "Arunima Sinha Conquers Indonesia's Highest Peak"NDTV.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১০-২৫ 
  7. "PM Modi Congratulates First Woman Amputee For Scaling Mount Vinson"NDTV.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-০৫ 
  8. "National player thrown off train in UP, loses leg"India Today। ১৩ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  9. http://indiatoday.intoday.in/story/arunima-sinha-inspiring-story-first-indian-female-amputee-mount-everest-proud-mountain-climb-lifest/1/692252.html
  10. "Arunima Sinha becomes first Indian amputee to scale Mt Everest"The Indian Express। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  11. "Win: Arunima Sinha is first Indian amputee to scale Mount Everest"First Post (India)। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৩ 
  12. "Arunima Sinha, braveheart who lost her leg after being thrown off a moving train, scales Mount Everest"NDTV। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  13. I have done it !Advaita Ashrama (video)। ২২ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  14. "Real-life heroine Arunima Sinha: Thrown from a running train, lost her leg, conquers Mt. Everest"India TV News। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৩ 
  15. "Volleyballer Arunima Sinha who lost leg climbs 21,000ft"The Times of India। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  16. "First female amputee scales Everest"The Guardian। ২২ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মে ২০১৩ 
  17. "Rumanian Shina becomes first Indian amputee to conquer Mount Everest"HDTV। ২১ মে ২০১৩। ৮ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৩ 
  18. "Rumanian is first woman amputee to scale Everest"The Hindu। ২১ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৩ 
  19. "Rumanian Shina: Indian Woman, Who Lost Leg Under Wheels of Train, Conquers Mount Everest"BI Times। ২২ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৩ 
  20. "Padma Awards 2015"। Press Information Bureau। ২৮ জানুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জানুয়ারি ২০১৫