অম্ল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

অম্ল (acid - ল্যাটিন এসিডাস (acidus)কিংবা এসিয়ার (acere) হতে উৎপন্ন, যার অর্থ "টক") একটি রাসায়নিক যৌগ যাকে পানিতে দ্রবীভূত করলে এমন একটি দ্রবণের সৃষ্টি হয় যার পিএইচ মান ৭.০ -এর কম হয় এবং যার নীল লিটমাসকে লাল করার এবং ক্ষারের ও কতিপয় ধাতু(যেমন - ক্যালসিয়াম) এর সাথে বিক্রিয়ায় লবণ উৎপন্ন করার ক্ষমতা আছে।এই সংজ্ঞাটি বিজ্ঞানী ইয়োহানেস নিকোলাউস ব্রনস্টেড এবং মার্টিন লাউরি প্রদত্ত আধুনক সংজ্ঞার খুব কাছাকাছি। তারা প্রত্যেকেই স্বাধীনভাবে সংজ্ঞা দিয়েছিলেন যে, অম্ল এমন একটি রাসায়নিক যৌগ যা অন্য কোন যৌগকে (সাধারণত ক্ষার) এক বা একাধিক হাইড্রোজেন আয়ন প্রদান করতে পারে। কিছু অম্লের উদাহরণ দেয়া যেতে পারে, এসিটিক এসিড, সালফিউরিক এসিড, হাইড্রোক্লোরিক এসিড,নাইট্রিক এসিড ইত্যাদি। অম্ল-ক্ষার বিক্রিয়া জারণ-বিজারণ বিক্রিয়া থেকে এ দিক দিয়ে পৃথক যে, অম্ল-ক্ষারের ক্ষেত্রে জারণ অবস্থায় কোন আধান থাকেনা এদের জলীয় দ্রবন নীল লিটমাস কাগজকে লাল রঙে পরিণত করে।এটাকে পানিতে ফেললে এটি ধনাত্মক ও ঋণাত্মক দুই আয়নে পরিণত হয়। অম্লের জলীয় দ্রবণের পি.এইচ. মান ৭ এর কম। কম পি.এইচ. মান মানে হলো বেশি অম্লতা এবং একই সাথে বেশী হাইড্রোজেন আয়নের উপস্থিতি। যেসব যৌগের মধ্যে অম্লের গুণাবলি আছে, তার গুণাবলিকে বলা হয় অম্লতা। অম্লের সাধারণ উদাহরণগুলো হলো হাইড্রোক্লোরিক এসিড(একটি হাইড্রোজেন ক্লোরাইডের দ্রবণ যা পাকস্থলির গ্যাস্ট্রিক এসিডে পাওয়া যায় এবং যা পরিপাক এনজাইমসমূহকে কর্মক্ষম করে), এসিটিক এসিড (ভিনেগার এর একটি অসম্পৃক্ত দ্রবণ), সালফিউরিক এসিড (গাড়ির ব্যাটারিতে ব্যবহৃত)। এই উদাহরণসমূহ থেকে বুঝা যায়, এসিড হতে পারে শুদ্ধ যৌগ এবং কঠিন, তরল বা বায়বীয় পদার্থ থেকেও প্রাপ্ত হতে পারে। শক্তিশালী অম্ল এবং কিছু ঘনীভূত দুর্বল এসিড ক্ষয়কারী হতে পারে, কিন্তু এতে ব্যতিক্রমও রয়েছে, যেমন - কার্বোরেইন এবং বোরিক এসিড। অম্লের ৩টি পরিচিত সংজ্ঞা হলো - এরহেনিয়াস সংজ্ঞা, ব্রনস্টেড - লওরি সংজ্ঞা এবং লুইস সংজ্ঞা। এরহেনিয়াস সংজ্ঞায় অম্লকে এভাবে সংজ্ঞায়িত করা হয় যে, অম্ল হলো এমন বস্তু যা হাইড্রোজেন আয়নের (H+)ঘনত্ব বৃদ্ধি করে কিংবা অধিকতর শুদ্ধভাবে, হাইড্রোনিয়াম আয়ন(H3O+), যখন তা পানিতে দ্রবীভূত হয়। ব্রনস্টেড - লওরি সংজ্ঞায়নটি হলো একটি বিস্তৃতিঃ অম্ল একটি বস্তু যা প্রোটন দাতা হিসেবে কাজ করতে পারে। এই সংজ্ঞায়ন অনুসারে, যে-কোনো বস্তু যা সহজেই depronated হতে পারে তাকেই অম্ল বলা যেতে পারে।