১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনাল
Azteca entrance.jpg
প্রতিযোগিতা ১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপ
তারিখ ২৯ জুন ১৯৮৬
ভেন্যু ইস্তাদিও অ্যাজতেকা, মেক্সিকো সিটি
রেফারি রমুয়াল্দো আরপ্পি ফিলিও (ব্রাজিল)
দর্শক সংখ্যা ১১৪,৬০০

১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনাল ছিল ১৯৮৬ ফিফা বিশ্বকাপের শেষ এবং নির্ধারণী খেলা, যা মেক্সিকোতে অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৮৬ সালের ২৯ জুন মেক্সিকো সিটিইস্তাদিও অ্যাজতেকায় খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শক সংখ্যা ছিল ১১৪,৬০০। খেলাটি অনুষ্ঠিত হয় আর্জেন্টিনা এবং পশ্চিম জার্মানির মধ্যে। সাধারণ সময়ের মধ্যেই ৩–২ গোলের ব্যবধানে খেলায় জয় লাভ করে আর্জেন্টিনা।

খেলার সারমর্ম[সম্পাদনা]

হোসে লুইস ব্রাউন খেলার ২৩তম মিনিটে আর্জেন্টিনার পক্ষে প্রথম গোল করেন এবং প্রথমার্ধের শেষ পর্যন্ত স্কোর ছিল ১–০। বিরতির পর, হোর্হে ভ্যালদানো গোল করে আর্জেন্টিনাকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যান। ৭৪তম মিনিটে কার্ল-হাইন্ৎস রুমেনিগে পশ্চিম জার্মানির পক্ষে একটি গোল পরিশোধ করেন। ৮০তম মিনিটে রুডি ফোলার গোল করে পশ্চিম জার্মানিকে সমতায় ফেরান। যদিও দিয়েগো মারাদোনাকে পুরো খেলায় দারুণভাবে চিহ্নিত করে রাখা হয়, তার একটি দূর্দান্ত পাসকে গোলে পরিণত করেন হোর্হে বুরুচাগা, যা আর্জেন্টিনাকে ৩–২ ব্যবধানে এগিয়ে নিয়ে যায়। খেলার শেষ বাঁশি বাজা পর্যন্ত এই স্কোর বহাল থাকে এবং আর্জেন্টিনা দ্বিতীয়বারের মত বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। খেলায় ৬টি হলুদ কার্ড দেখানো হয়, যা ২০১০ ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনাল পর্যন্ত একটি রেকর্ড ছিল।

খেলার তথ্য[সম্পাদনা]

আর্জেন্টিনা
পশ্চিম জার্মানি
গো ১৮ নেরি পুম্পিদো হলুদ কার্ড পেয়েছেন ৮৫ মিনিটে ৮৫’
সু হোসে লুইস ব্রাউন
সে.ব্যা হোসে কুসিফো
সে.ব্যা ১৯ অস্কার রুগেরি
ডি.মি সার্জিও বাতিস্তা
রা.মি ১৪ রিকার্দো গিউস্তি
সে.মি হোর্হে বুরুচাগা মাঠ থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ৯০ মিনিটে ৯০’
সে.মি ১২ হেক্তর এনরিকে হলুদ কার্ড পেয়েছেন ৮১ মিনিটে ৮১’
লে.মি ১৬ হুলিও অলার্তিকোইকি হলুদ কার্ড পেয়েছেন ৭৭ মিনিটে ৭৭’
সে.স্ট্রা ১০ দিয়েগো মারাদোনা () হলুদ কার্ড পেয়েছেন ১৭ মিনিটে ১৭’
সে.ফ ১১ হোর্হে ভ্যালদানো
বদলি:
মি ২১ মার্সেলো ত্রবিয়ানি মাঠে নামানো হয়েছে ৯০ মিনিটে ৯০’
ম্যানেজার:
কার্লোস বিলার্দো
গো হারাল্ড স্কুমাচের
সু ১৭ ডিটমার জ্যাকবস
সে.ব্যা কার্লহাইন্ৎস ফর্সটার
সে.ব্যা হ্যান্স-পিটার ব্রিগেল হলুদ কার্ড পেয়েছেন ৬২ মিনিটে ৬২’
রা.উ.ব্যা ১৪ থমাস বের্টহোল্ড
লে.উ.ব্যা আন্ড্রেয়াস ব্রেহমে
সে.মি নরবার্ট এডের
সে.মি লোথার মাথেউস হলুদ কার্ড পেয়েছেন ২১ মিনিটে ২১’
অ্যা.মি ১০ ফেলিক্স মাগাথ মাঠ থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ৬৫ মিনিটে ৬৫’
সে.ফ ১১ কার্ল-হাইন্ৎস রুমেনিগে ()
সে.ফ ১৯ ক্লাউস আলোফস মাঠ থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ৪৫ মিনিটে ৪৫’
বদলি:
রুডি ফোলার মাঠে নামানো হয়েছে ৪৫ মিনিটে ৪৫’
২০ ডিয়েটের হোয়েনেস মাঠে নামানো হয়েছে ৬২ মিনিটে ৬২’
ম্যানেজার:
ফ্রাঞ্জ বেকেনবাউয়ের

সহকারী রেফারি:
এরিক ফ্রেডরিকসন (সুইডেন)
বের্নি উলোয়া মরেরা (কোস্টা রিকা)

খেলার আইন:

  • ৯০ মিনিট
  • ৩০ মিনিট অতিরিক্ত-সময় যদি প্রয়োজনীয় হয়
  • পেনাল্টি শুট-আউট যদি তখনও খেলায় সমতা থাকে
  • পাঁচটি খেলোয়াড় বদলি, যার মধ্যে দুইটি ব্যবহার হয়েছে

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]