হিন্দ বিনতে আওফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

হিন্দ বিনতে আওফ বা খাওলা বিনতে আওফ ছিলেন হযরত মুহাম্মাদ সা. এর শাশুড়ি[১], এবং তার সন্তান-সন্ততি ও বংশধরে অনেক বিখ্যাত সাহাবি জন্ম নিয়েছিলেন। মুহাম্মদের একাধিক সাহাবীর মা হওয়ায় তিনি "পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ শাশুড়ী" হিসাবে পরিচিত ছিলেন।[২] তিনি খাওলা নামেও পরিচিত।[৩]

তার পিতা আওফ ইবনে জুহাইর ছিলেন ইয়েমেনের হিমিয়ার গোত্রের। মায়ের নাম আয়শা বিনতে মুহাজ্জাম। তার চারবার বিয়ে হয়েছিল এবং তার মোট নয় সন্তান ছিল।

সন্তান-সন্ততিঃ[সম্পাদনা]

১. মাহমিয়াহ ইবনুল যাজি আল জুবায়দি। তিনি প্রথম দিকেই ইসলাম গ্রহণ করেন এবং এরপর ১৩ বছর আবিসিনিয়ায় বাস করেন। ৬২৮ সালে মদিনা আগমনের পর নবী মুহাম্মাদ তাকে কোষাধ্যক্ষ পদে নিযুক্ত করেন।
২. লুবাবা বিনতে আল হারিস (উম্মে ফাদল), আবাস ইবনে আব্দুল মুত্তালিবের স্ত্রী এবং বিখ্যাত সাহাবি ইবনে আব্বাসের মা।[৪]
৩. বারা বিনতে হারিস, নবী মুহাম্মাদের সাথে বিবাহের পর মায়মুনা বিনতে হারিস নামে পরিচিত হন।[৫]
৪. আল সায়িব ইবনুল হারিস
৫. কাতান ইবনুল হারিস
৬. জয়নব বিনতে খুজাইমা, নবী মুহাম্মাদ সা. এর স্ত্রীদের অন্যতম।[৬]
৭. আসমা বিনতে উমাইস, যিনি রাবিয়া ইবনে রিয়ব আল-হিলালী, জাফর ইবনে আবী তালিব, খলিফা আবু বকর এবং খলিফা আলীর সাথে আবর্তে বিবাহ করেন এবং তাঁর নিজের অন্তত আটটি সন্তান ছিল। [৩][৬]
৮. সালমা বিনতে উমাইস, হামজা ইবনে আব্দুল মুত্তালিবের স্ত্রী ছিলেন।
৯. আওন ইবনে উমাইস, তিনি আল হারাহতে মৃত্যুবরণ করেন।[৪]
১০. লুবাবা "ছোট", লায়লা বা আসমা নামেও পরিচিত, যিনি ওয়ালিদ ইবনে আল-মুগিরা আল-মাখজুমিকে বিয়ে করেছিলেন এবং বিখ্যাত যোদ্ধা খালিদ ইবনে ওয়ালিদের মা ছিলেন।[৫][৬]
১১।  হুযায়লা বিনতে হারিস।[৬][৫]
১২।  ঘোরা বিনতে আল-হারিস, ইজজা নামেও পরিচিত, তিনি আবদুল্লাহ ইবনে মালিক আল-হিলালির সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. The Encyclopaedia of Islam, New Edition: Supplement (ইংরেজি ভাষায়)। Brill Archive। ১৯৮০-০১-০১। আইএসবিএন 978-90-04-06167-5 
  2. "Hind bint Awf"English Wikipedia 
  3. Tabari, Muhammad ibn Yarir al-; Tabari; ?abar? (১৯৯৮-০১-২৯)। The History of al-Tabari Vol. 39: Biographies of the Prophet's Companions and Their Successors: al-Tabari's Supplement to His History (ইংরেজি ভাষায়)। SUNY Press। পৃষ্ঠা ২০১। আইএসবিএন 978-0-7914-2820-7 
  4. Landau-Tasseron/Tabari, p. 201.
  5. জারির তাবারী, মুহাম্মদ ইবনে (২০১৫-০৭-০৭)। History of al-Tabari Vol. 39, The: Biographies of the Prophet's Companions and Their Successors: al-Tabari's Supplement to His History (ইংরেজি ভাষায়)। Ella, Landau-Tasseron কর্তৃক অনূদিত। SUNY Press। পৃষ্ঠা ১৮৫,২০১। আইএসবিএন 978-1-4384-0998-6 
  6. Sa'd, Muhammad Ibn (২০১২)। Kitab al-Tabaqat al-kabir (আরবি ভাষায়)। । Maktabat al-Janyi। আইএসবিএন 978-977-01-7875-1