হিন্দু পৌরাণিক বানর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রাম ও বানর প্রধান

বানর (সংস্কৃত: वानर), হিন্দুধর্মে বানর[১] অথবা 'বনে বসবাসকারী মানুষের জাতি'।[২]

রামায়ণ মহাকাব্যে, রাবণকে পরাজিত করতে বানাররা রামকে সাহায্য করে।

হিন্দু সাহিত্যে[সম্পাদনা]

রাবণের বিরুদ্ধে যুদ্ধে রামকে সাহায্য করার জন্য ব্রহ্মা বানরদের সৃষ্টি করেন। তারা শক্তিশালী এবং তারা ঐশ্বরিক বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন ছিল। ব্রহ্মার আদেশ গ্রহণ করে, দেবতারা কিষ্কিন্ধ (বর্তমানে কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশমহারাষ্ট্রের কিছু অংশের সাথে চিহ্নিত) সিয়নে পিতামাতার পুত্রদের জন্ম দিতে শুরু করেন। সীতার সন্ধানের সময় রাম তাদের সঙ্গে প্রথম দেখা করেন দণ্ডকারণ্যে[৩] বানারদের বাহিনী রামকে সীতার সন্ধানে এবং সীতার অপহরণকারী রাবণের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সাহায্য করেছিল। নল ও  নীল সাগরের উপর  সেতু তৈরি করেছিলেন যাতে  রাম ও সেনারা লঙ্কায় পাড়ি দিতে পারেন।[৪]

রামায়ণে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, বানর হনুমান বেশ কয়েকবার আকৃতি পরিবর্তন করে। যখন হনুমান লঙ্কায় রাবণের প্রাসাদে অপহৃত সীতাকে অনুসন্ধান করেন, তখন তিনি নিজেকে বিড়ালের আকারে সংকুচিত করেন, যাতে শত্রু দ্বারা তাকে সনাক্ত করা না যায়। তারপরে, সে পাহাড়ের আকার নেয়।[৫]

মহাভারত সহ অন্যান্য গ্রন্থেও বানরদের উল্লেখ পাওয়া যায়। মহাকাব্য মহাভারত  এদেরকে বন-নিবাস হিসাবে বর্ণনা করে এবং সর্বকনিষ্ঠ পাণ্ডব সহদেবের মুখোমুখি হওয়ার কথা উল্লেখ করে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Monier-Williams, Monier। "Monier-Williams Sanskrit Dictionary 1899 Basic"www.sanskrit-lexicon.uni-koeln.de। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০২২ 
  2. Krishna, Nanditha (২০১৪-০৫-০১)। Sacred Animals of India (ইংরেজি ভাষায়)। Penguin UK। আইএসবিএন 978-81-8475-182-6 
  3. "The Ramayana index" 
  4. "Adam's bridge"ব্রিটানিকা বিশ্বকোষ। ২০০৭। ১২ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০০৭ 
  5. Goldman, Robert P. (Introduction, translation and annotation) (1996). Ramayana of Valmiki: An Epic of Ancient India, Volume V: Sundarakanda. Princeton University Press, New Jersey. 0691066620. pp. 45–47.