হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য
জন্ম১৯২৮
মৃত্যু১৪ মার্চ ২০০২(২০০২-০৩-১৪)
মাতৃশিক্ষায়তনকলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাগবেষক
উল্লেখযোগ্য কর্ম
যাত্রাগানে মতিলাল রায়
হিন্দুদের দেবদেবী - উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ
দাম্পত্য সঙ্গীসন্ধ্যারানী ভট্টাচার্য
পিতা-মাতাসিদ্ধেশ্বর ভট্টাচার্য (পিতা)
ত্রিনয়নী দেবী (মাতা)

হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য (১৯২৮ - ১৪ মার্চ ২০০২) ছিলেন সংস্কৃত ও বাংলা সাহিত্যের এক গবেষক। নবদ্বীপ তথা নদিয়ার সাহিত্য-সংস্কৃতি-ইতিহাস চর্চার ক্ষেত্রে এক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব।[১]

জন্ম ও শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

হংসনারায়ণ ভট্টাচার্যের জন্ম বৃটিশ ভারতের অধুনা পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার মীরহাটে। পিতা সিদ্ধেশ্বর ভট্টাচার্য ও মাতা ত্রিনয়নী দেবী। তিনি হুগলি মহসিন কলেজ থেকে সংস্কৃতে সাম্মানিক স্নাতক হন এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সংস্কৃত, বাংলা ও প্রাচীন ইতিহাস-সংস্কৃতিতে এম.এ পাশ করেন। তিনি নবদ্বীপের প্রখ্যাত যাত্রাকার মতিলাল রায়ের জীবন ও সৃষ্টিকর্ম নিয়ে মৌলিক গবেষণা করে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। তার গবেষণাপত্রটির নাম ছিল যাত্রাগানে মতিলাল রায় ও তাঁহার সম্প্রদায়[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি দেওঘর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা দিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে নবদ্বীপ বিদ্যাসাগর কলেজের অধ্যাপক হিসাবে যোগ দেন। প্রায় ৩৪ বৎসরের অধ্যাপনা জীবন সমাপ্ত করেন ১৯৯৪ খ্রিস্টাব্দে। তিনি ওই কলেজের বাংলা ও বাংলা সাহিত্য বিভাগে ডিন পদে অবসর নেন।[২]

উল্লেখযোগ্য সাহিত্যকর্ম[সম্পাদনা]

হংসনারায়ণ ভট্টাচার্যের উল্লেখযোগ্য সাহিত্যকীর্তি হল তিন খণ্ডে হিন্দুদের দেবদেবী উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ। তিনি বহু পত্রপত্রিকায় ২৫০ টিরও বেশি গবেষণামূলক  প্রবন্ধ, কবিতা, ভ্রমণকাহিনী, ছোটোগল্প রচনা করেছেন। তিনি চন্দ্রশেখর ঠাকুর ছদ্মনামেও ছোটো গল্প লিখেছেন।[৩]

তার অন্যান্য গ্রন্থ গুলি হল:

  • রবীন্দ্রসাহিত্যে আর্যপ্রভাব
  • বাংলা মঙ্গল কাব্যের ধারা
  • বাংলা নাট্য সাহিত্য পরিচয়
  • যুগাবতার শ্রীকৃষ্ণ
  • বঙ্গসাহিত্যাভিধান (৪ খণ্ড)
  • বাংলা ছন্দ সমীক্ষা
  • বাংলা অলঙ্কার সমীক্ষা
উপন্যাস
  • সিন্ধু তরঙ্গ
  • মন্দির ত্যাজি যব
ছোটগল্প
  • বারোমতি
ভ্রমণকাহিনী
  • রূপের অমরাবতী কাশ্মীর
  • হিমাচল হিমালয়

ভট্টাচার্যের রচনা ভারতীয় বিজ্ঞানের ইনস্টিটিউট অফ ডিজিটাল লাইব্রেরি অব ইন্ডিয়া দ্বারা নথিভুক্ত করা হয়েছে। [৪] তার কাজকে ভট্টাচার্যের সমবয়সী ও উত্তরসূরীরাও ব্যাপকভাবে উদ্ধৃত করেছেন।[৫][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, দ্বিতীয় খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, জানুয়ারি ২০১৯ পৃষ্ঠা ৪৭১, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-২৯২-৬
  2. "হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য, এক নিরলস গবেষক"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৪ 
  3. হিন্দুদের দেবদেবী - উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ
  4. "Browsing Bengali by Date of Publication "1957""ডিজিটাল লাইব্রেরি অফ ইন্ডিয়া। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬ 
  5. "Puja Special..."Archive.thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬ 
  6. "Bhaṭṭācārya, Haṃsanārāẏaṇa 1928- (WorldCat Identities)"ওয়ার্ল্ডক্যাট। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৬