স্বামী ত্রিগুণাতীতানন্দ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
স্বামী ত্রিগুণাতীতানন্দ
Swami Trigunatitananda portrait.jpg
স্বামী ত্রিগুণাতীতানন্দ
জন্মসারদাপ্রসন্ন মিত্র
(১৮৬৫-০১-৩০)৩০ জানুয়ারি ১৮৬৫
নাওরা গ্রাম, চব্বিশ পরগনা, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু১০ জানুয়ারি ১৯১৫(1915-01-10) (বয়স ৪৯)
সান ফ্রান্সিস্কো, ক্যালিফোর্নিয়া, যুক্তরাষ্ট্র
গুরুরামকৃষ্ণ পরমহংস
দর্শনঅদ্বৈত বেদান্ত
Quotation

"Work hard. Discipline yourself. Build your character. Endure to the end. Realize your Self. And be free."

১৮৮৭ খ্রীষ্টাব্দের ৩০ জানুয়ারি কলকাতার বরানগর মঠে গৃহীত আলোকচিত্র
দন্ডায়মান: (বামদিক হতে) শিবানন্দ, রামকৃষ্ণানন্দ, স্বামী বিবেকানন্দ, রাঁধুনী, দেবেন্দ্রনাথ মজুমদার , মহেন্দ্রনাথ গুপ্ত (শ্রীম),ত্রিগুণাতীতানন্দ, এইচ.মুস্তাফি
উপবিষ্ট: (বামদিক হতে) স্বামী নিরঞ্জনানন্দ, স্বামী সারদানন্দ,হুটকো গোপাল, স্বামী অভেদানন্দ

স্বামী ত্রিগুণাতীতানন্দ বা সারদা মহারাজ (৩০ জানুয়ারি ১৮৬৫ - ১০ জানুয়ারি ১৯১৫) শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের সন্ন্যাসী শিষ্যবর্গের অন্যতম। তার পূর্বাশ্রমের নাম ছিল সারদাপ্রসন্ন মিত্র। রামকৃষ্ণ মঠের বাংলা মাসিক পত্রিকা "উদ্বোধন" তার উদ্যোগে প্রথম প্রকাশিত হয়। পরে স্বামী বিবেকানন্দের উৎসাহে ১৯০২ খ্রীষ্টাব্দে তিনি আমেরিকা গমন করেন এবং সান ফ্রান্সিসকো কেন্দ্রের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। সান ফ্রান্সিসকোয় একটি নূতন ভবনের নির্মাণ (যা পরে "হিন্দু মন্দির" নামে খ্যাত হয়) তার উল্লেখযোগ্য অবদানসমূহের একটি। ১৯১৪ খ্রীষ্টাব্দের ২৭ ডিসেম্বর হিন্দু মন্দিরের বেদির উপর দাঁড়িয়ে রবিবাসরীয় প্রার্থনা করার সময় এক অপ্রকৃতিস্থ ব্যক্তির ছোঁড়া বোমার আঘাতে আহত হয়ে ১৯১৫ খ্রীষ্টাব্দের ১০ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সারদাপ্রসন্ন মিত্রের জন্ম বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির চব্বিশ পরগনা জেলার নাওরা গ্রামে তার মাতুলালয়ে। কলকাতার মেট্রোপলিটন ইনস্টিটিউশনের শ্যামবাজার শাখা থেকে এন্ট্রান্স পাশ করেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণকথামৃত'কার মহেন্দ্রনাথ গুপ্তের (শ্রীম) সঙ্গে তিনি দক্ষিণেশ্বরে শ্রীরামকৃষ্ণদেবের কাছে প্রথম যান। শ্রীরামকৃষ্ণের সংসারত্যাগী সন্তানগণের অন্যতম তিনি বরাহনগর মঠে সন্ন্যাসগ্রহণ করে ত্রিগুণাতীতানন্দ নামে আখ্যাত হন। তিনি ছিলেন স্বামী বিবেকানন্দের প্রিয় গুরুভাই।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা ২৭৬, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬