স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ (স্টেডিয়াম)

স্থানাঙ্ক: ৫১°২৮′৫৪″ উত্তর ০°১১′২৮″ পশ্চিম / ৫১.৪৮১৬৭° উত্তর ০.১৯১১১° পশ্চিম / 51.48167; -0.19111
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ
"দ্য ব্রিজ"
Stamford Bridge Clear Skies.JPG
পূর্ণ নামস্ট্যামফোর্ড ব্রিজ
অবস্থানফুলহ্যাম
লন্ডন, SW6
ইংল্যান্ড
স্থানাঙ্ক৫১°২৮′৫৪″ উত্তর ০°১১′২৮″ পশ্চিম / ৫১.৪৮১৬৭° উত্তর ০.১৯১১১° পশ্চিম / 51.48167; -0.19111
গণপরিবহনLondon Underground ফুলহ্যাম ব্রডওয়ে
মালিকচেলসি পিচ মালিক পিএলসি
পরিচালকচেলসি
নির্বাহী কর্মকর্তা৫১
ধারণক্ষমতা৪১,৬৩১[৪][৫]
উপস্থিতির রেকর্ড৮২,৯০৫ (চেলসিআর্সেনাল, ১২ অক্টোবর ১৯৩৫)[৩]
আয়তন১০৩ বাই ৬৭.৫ মিটার (১১২.৬ গজ × ৭৩.৮ গজ)
উপরিভাগটার্কেট স্পোর্টসের গ্রাস মাস্টার[২]
নির্মাণ
নির্মাণাধীন১৮৭৬
উদ্বোধন২৮ এপ্রিল ১৮৭৭[১]
পুনঃসংস্কার১৯০৪–১৯০৫, ১৯৯৮
স্থপতিআর্কিবল্ড লিচ (১৮৮৭)
ভাড়াটে
লন্ডন অ্যাথলেটিক ক্লাব (১৮৭৭–১৯০৪)
চেলসি (১৯০৫–বর্তমান)
লন্ডন মোনার্কস (এনএফএল ইউরোপ) (১৯৯৭)

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ (/ˈstæmfərd/) হচ্ছে ফুলহ্যামের একটি ফুটবল স্টেডিয়াম, যেটি দক্ষিণ পশ্চিম লন্ডনের চেলসিতে অবস্থিত। এটি সাধারণত দ্য ব্রিজ হিসাবে পরিচিত।[৬][৭] এই স্টেডিয়ামটি চেলসি ফুটবল ক্লাবের হোম স্টেডিয়াম হিসেবে ব্যবহৃত হয়, যেটি প্রিমিয়ার লীগ, উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের মতো খেলা আয়োজন করে থাকে।

এই স্টেডিয়ামটির ধারণক্ষমতা হচ্ছে ৪১,৮৩৭, এটি ২০১৯–২০ প্রিমিয়ার লীগ মৌসুমের নবম বৃহত্তম ভেন্যু। চেলসি ফুটবল ক্লাব ২০২৩–২৪ মৌসুমের মধ্যে এর ধারণক্ষমতা ৩,০০০-এর বেশি বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে।[৮] যখন এই স্টেডিয়ামের সম্প্রসারণের কাজ চলবে, তখন চেলসির ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে খেলার যাওয়ার ইচ্ছা রয়েছে।[৯]

১৮৮৭ সালে এই স্টেডিয়ামটি উন্মুক্ত করা হয়েছিল। ১৯০৫ সাল পর্যন্ত এই স্টেডিয়ামটি লন্ডন অ্যাথলেটিক ক্লাব ব্যবহার করত, যখন নতুন মালিক গাস মেয়ার্স চেলসি ফুটবল ক্লাব গঠন করে তখন তিই এই স্টেডিয়ামটি ক্লাবটির জন্য গ্রহণ করেছিলেন, যেখানে চেলসি তাদের হোম ম্যাচ আয়োজন করা শুরু করে। ১৯৯০-এর দশকে যখন এটি আধুনিক, অল-সিটার স্টেডিয়ামে সংস্কার করা হয়েছিল, তখন বেশ কয়েক বছর যাবত সংস্কার কাজের মাধ্যমে এটিতে বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হয়েছে।

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ ইংল্যান্ড ফুটবল দলের আন্তর্জাতিক ম্যাচ, এফএ কাপের ফাইনাল, সেমিফাইনাল এবং এফএ কমিউনিটি শিল্ডের খেলা আয়োজন করে থাকে। ফুটবল ছাড়াও এই স্টেডিয়ামটি ক্রিকেট, রাগবি ইউনিয়ন, স্পিডওয়ে, গ্রেহাউন্ড রেসিং, বেসবল এবং আমেরিকান ফুটবলের মতো আরও অনেক খেলাতে আয়োজন করে। ১৯৩৩ সালের ১২ই অক্টোবর তারিখে চেলসি এবং আর্সেনালের মধ্যকার লীগ ম্যাচের জন্য এই স্টেডিয়ামে সর্বোচ্চ ৮২,৯০৫ জন দর্শক উপস্থিত হয়েছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. স্টেডিয়ামের ইতিহাস ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ মে ২০১২ তারিখে chelseafc.com
  2. Kostka, Kevin (২৩ মে ২০১৪)। "Stamford Bridge is getting a makeover"We Ain't Got No History 
  3. "Attendances"Chelsea F.C.। ২৬ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. https://www.stadia-magazine.com/news/new-project/chelsea-fc-make-announcement-on-new-stadium-plans.html
  5. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ এপ্রিল ২০২০ 
  6. "Premier Talents Brings Brazilian Blue to the Bridge"। chelseafc.com। ১৪ জানুয়ারি ২০১১। ১৭ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১১ 
  7. Winter, Henry (২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "Chelsea v Manchester United battle has lost its edge"Daily Telegraph। London। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১১ 
  8. MacInnes, Paul (১২ জানুয়ারি ২০১৭)। "Chelsea get permission for new expanded Stamford Bridge stadium"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জানুয়ারি ২০১৭ 
  9. Pasztor, David (৩ মে ২০১৭)। "Chelsea's new stadium at Stamford Bridge still at least five years away"We Ain't Got No History 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]