সিঙ্গাপুরের ধর্মবিশ্বাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সিঙ্গাপুরে ধর্ম (২০১৫ পরিসংখ্যান)[১]

  বৌদ্ধ (৭০.৩৩%)
  তাওবাদ এবং চীনের প্রাচীন ধর্ম (২.০%)
  খ্রিষ্টান (১৫%)
  ধর্মহীন বা নাস্তিক (১১.৫%)
  ইসলাম (০.৯৯%)
  হিন্দু (০.৩৭%)
  শিখ এবং অন্যান্য (০.২%)

সিঙ্গাপুরে বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ রয়েছে, দেশটিতে অনেক আগে থেকেই বিভিন্ন ধর্মের মানুষের বসবাস বিদ্যমান। সিঙ্গাপুর একটি ক্ষুদ্র রাষ্ট্র হওয়া সত্ত্বেও রাষ্ট্রটি ধর্মনিরপেক্ষ এবং সব ধর্মের সহাবস্থানের জন্য অতি সুপরিচিত। বিশ্বের সব গুরুত্বপূর্ণ ধর্মই সিঙ্গাপুরে রয়েছে; সিঙ্গাপুরের সরকারী পরিসংখ্যান সব সময়ই বলে যে দেশটিতে মোট দশটি ধর্ম রয়েছে।[২] ২০১৫ সালের একটি বৈশ্বিক গবেষণায় দেখা যায় যে সিঙ্গাপুরে বিশ্বের সব ধর্মই রয়েছে এবং বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ধর্মনিরপেক্ষ দেশ সিঙ্গাপুরকেই ধরা হয় অনেক আগে থেকেই।[৩]

বৌদ্ধ ধর্মের মানুষ সিঙ্গাপুরে সবথেকে বেশি দেখা গিয়েছে যা দেশটির জনগণের ৭০ শতাংশ মানুষ দ্বারা পালিত; ২০২১ সালের সর্বশেষ পরিসংখ্যান এটাই বলে যে সিঙ্গাপুরে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীই বেশি, এই বৌদ্ধদের প্রায় সবাই চীনা বংশোদ্ভূত।[১]

সামাজিক অবস্থা[সম্পাদনা]

সিঙ্গাপুরের সংবিধান ধর্মনিরপেক্ষ এবং সিঙ্গাপুরের মানুষগুলোও সকল ধর্মের প্রতি সমান শ্রদ্ধাবান

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Statistics Singapore: 2015 General Household Survey ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে. Religion data ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৯ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে
  2. "Introducing Singapore's IRO – Inter-Religious Organisation" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-১৪ 
  3. "Global Religious Diversity"। Pew Research। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৪