বিষয়বস্তুতে চলুন

সরকারি বিজ্ঞান কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরকারি বিজ্ঞান কলেজ
প্রাক্তন নাম
টেকনিক্যাল হাই স্কুল, ইন্টারমেডিয়েট টেকনিক্যাল কলেজ
নীতিবাক্য
  • শৃঙ্খলা
  • শিক্ষা
  • চরিত্র
  • উন্নতি
ধরনসরকারি
স্থাপিত১৯৫৪
অধিভুক্তিঢাকা শিক্ষা বোর্ড
অধ্যক্ষপ্রফেসর মোঃ শাহেদুল খবির চৌধুরী
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
৫০+
শিক্ষার্থী~২২৫০
অবস্থান
পোশাকের রঙ     আকাশী নীল      হালকা ধূসর
সংক্ষিপ্ত নামসবিক
ক্রীড়াফুটবল, ক্রিকেট, ব্যাডমিন্টন
ওয়েবসাইটwww.gsctd.edu.bd
মানচিত্র
কলেজ ক্যাম্পাস
শহিদ মিনার

সরকারি বিজ্ঞান কলেজ বাংলাদেশের ঢাকার ফার্মগেট এলাকায় অবস্থিত একটি সরকারি উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এই কলেজের নাম প্রথমে ইন্টারমেডিয়েট টেকনিক্যাল কলেজ ছিল। ৯ একর ভূমির উপর এই কলেজ স্থাপিত। ১৯৫৪ খ্রিষ্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত এই কলেজে কেবল উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বিজ্ঞান বিভাগে পাঠদান করা হয়।[১][২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কলেজটি ১৯৫৪ খ্রিষ্টাব্দে টেকনিক্যাল হাই স্কুল নামে যাত্রা শুরু করে। ১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দে ইন্টারমেডিয়েট টেকনিক্যাল কলেজ হিসেবে পুনঃনামকরণ করা হয়। ১৯৮৫ খ্রিষ্টাব্দে বি.এসসি কোর্স চালুর মাধ্যমে সরকারি বিজ্ঞান কলেজ হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে।[৪][৫]

বিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

বিজ্ঞান বিভাগ

পঠিত বিষয়সমূহ: বাংলা, ইংরেজি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত, জীববিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

ভর্তি ও বেতন[সম্পাদনা]

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক জারীকৃত নীতিমালা অনুযায়ী ভর্তি করা হয়ে থাকে কলেজে। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বেতন ও ফি নেয়া হয় ।

শিক্ষাদান[সম্পাদনা]

আটটি শাখায় ১২৫ জন করে ছাত্র এখানে পড়াশোনার সুযোগ পেয়ে থাকে। শাখাগুলোর নাম যথাক্রমে এ, বি, সি, ডি, ই, এফ, জি, এইচ। ভর্তির ক্রমানুসারে শিক্ষার্থীদের শাখাগুলোয় বিভক্ত করা হয়।বর্তমানে কলেজে প্রতি সপ্তাহে একটি কুইজ অনুষ্ঠিত হয় ।

পোশাক[সম্পাদনা]

আকাশী নীল শার্ট, বাদামি রঙের প্যান্ট, কালো মোজা, কালো জুতা, আর শীতের সময়ে নীল সোয়েটার।[৬]

আবাসন ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

কলেজের দুটি ছাত্রাবাস রয়েছে।

১. কাজী নজরুল ইসলাম ছাত্রাবাস: সংখ্যা বর্তমানে ১৫০। ছাত্রাবাসটির বর্তমান ম্যানেজার মোঃ অলিউল্লাহ।

২. ড. কুদরত ই খুদা ছাত্রাবাস: আসন সংখ্যা ১৮০। ছাত্রাবাসটির বর্তমান ম্যানেজার মোঃ জামাল মিয়া।

উভয় ছাত্রাবাসের বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে আছেন মোহাম্মদ হাবিবুল বাশার (সহকারী অধ্যাপক, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ)।

যাতায়াত[সম্পাদনা]

শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য দুটি বাস আছে।১.স্পন্দন-১ (চলাচলের রুট: ফার্মগেট থেকে সাইনবোর্ড)

২.স্পন্দন-২ (চলাচলের রুট: ফার্মগেট থেকে মিরপুর ১০)

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানটির কলেজ বার্ষিকী অনুরণন।

সহশিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

ছাত্রদের পড়াশোনার পাশাপাশি নৈতিক উন্নয়ন ও তাদের মাঝে নেতৃত্বের গুণাবলি বিকাশের লক্ষ্যে চালু আছে সরকারি বিজ্ঞান কলেজ বিএনসিসি প্লাটুন। এছাড়া ছাত্রদের সহশিক্ষা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে কলেজের নিজস্ব :

  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ বিতর্ক ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ বিজ্ঞান ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ গণিত ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ ফটোগ্রাফি ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ ক্রীড়া ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ তথ্য ও প্রযুক্তি ক্লাব
  • সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সাংস্কৃতিক ক্লাব

এছাড়াও রয়েছে চেতনা পরিষদ এর একটি শাখা। নির্দিষ্ট কর্মসূচির সাথে পালন করা হয়ে থাকে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

উল্লেখযোগ্য প্রাক্তন শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, তেজগাঁও, ঢাকা"gsctd.edu.bd। ২০২০-০৫-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ 
  2. "নামেই বিজ্ঞান কলেজ!"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ 
  3. "সমস্যার পাহাড়ে ধুঁকছে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ১০ সরকারী কলেজ || প্রথম পাতা"জনকন্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "GSC"govtsciencecollege.com। ৯ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  5. নিজামুল, হক (১৪ জুন ২০১৪)। "সরকারি বিজ্ঞান কলেজে দ্বিগুণ শিক্ষক"ইত্তেফাক। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  6. "সরকারি বিজ্ঞান কলেজ, তেজগাঁও, ঢাকা"gsctd.edu.bd। ২০২০-০৭-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-১৫