লইট্টা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Harpadon nehereus (by Hamid Badar Osmany).jpg

লইট্টা বা লোটে মাছ বা বম্বে ডাক লিজার্ড জাতীয় মাছ যার বৈজ্ঞানিক নাম Harpadon nehereus। "nehereus" শব্দটির জন্য এই মাছটিকে সাধারণতঃ স্থান বিশেষে অনেকে "নীহারি" মাছ বলে থাকেন। এটি শব্দের একটি অপভ্রংশে ব্যবহৃত নাম। এই মাছটি সাধারণত ২৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত বড় হয় এবং সর্বোচ্চ সাইজ ৪০ সেন্টিমিটার রেকর্ড করা হয়েছে।[১]

নামকরণ[সম্পাদনা]

লইট্টা মাছ, ইংরেজিতে বলা হয় Bombay Duck। কিন্তু শুনতে হাঁস মনে হলেও আসলে বৃটিশদেরই দেয়া এই নাম। বৃটিশ আমলে ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে লইট্টা শুটকি মালগাড়ি মেইল ট্রেনে বোম্বে আসতো। বৃটিশরা এই লইট্টা শুটকির চালানকে বলতো ‘মেইল’ বা ‘ডাক’। সেই থেকে ‘বোম্বে ডাক’।

উপকারিতা[সম্পাদনা]

লইট্টা মাছ স্বস্তা মাছ। দামে স্বস্তা হলেও পুষ্টিতে ভরপুর এই লইট্টা মাছ। লইট্টা মাছ প্রোটিনে ভরপুর। যখন লইট্টা মাছকে শুটকি করা হয়, তখন এই প্রোটিনের পরিমান আরো বৃদ্ধি পায়। আর প্রোটিন আমাদের শরীরের টিস্যু গঠনে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখে। এছাড়াও লইট্টা মাছে থাকা প্রোটিন শরীরের হরমোন, এনজাইম এবং অন্যান্য কেমিক্যালের ভারসাম্য বজায় রাখে।

লইট্টা মাছে রয়েছে অতি উপকারী ওমেগা-৩-ফ্যাটি অ্যাসিড। এটি মানুষের শরীরের রক্তনালীগুলোকে পরিষ্কার রেখে হার্ট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

হার্টের সুস্বাস্থ্যের জন্যে লইট্টা মাছে থাকা ওমেগা-৩-ফ্যাটি অ্যাসিডের কাজ বহুমাত্রিক যেমন, অতিরিক্ত রক্ত জমাট বাঁধা প্রতিহত করা, রক্তে ট্রাইগ্লিসারাইডের লেভেল কমানো, রক্ত-সঞ্চালন বাড়ানো ইত্যাদি।

লইট্টা মাছ আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত রোগীর জন্যে খুবই উপকারি। এই মাছের তেল দারুন এক  ব্যথানাষক ওষুধ হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও লইট্টা মাছ কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। লইট্টা শুটকিতে থাকা ক্যালসিয়াম উচ্চ-রক্তচাপ কমায়।

এছাড়াও এই ক্যালসিয়াম পিরিয়ড শুরুর প্রাককালে নারীদের যে মুডজনিত মানসিক সমস্যা হয় তা কমায়। লইট্টা শুটকিতে রয়েছে প্রচুর আয়রন। যারা রক্তাল্পতায় ভুগছেন, তাদের জন্য এটি দারুণ কার্যকরি।

লইট্টা মাছ হিমোগ্লোবিন তৈরি, পেশির শক্তিবৃদ্ধি, ব্রেইনের সক্ষমতা বৃদ্ধি, শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ, শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, অনিদ্রা কমানো, শক্ত হাঁড় ও দাঁত তৈরি, পরিপাকে সহায়তা, দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি, ত্বক ও ঠোঁটের সুস্বাস্থ্যসহ অসংখ্য স্বাস্থ্য-উপকার করে থাকে।

শ্রেণীতাত্ত্বিক অবস্থান[সম্পাদনা]

Kingdom: Animalia

Phylum: Chordata

Class: Actinopterygii

Order: Aulopiformes

Family: Synodontidae

Genus: Harpadon

Species:H. nehereus

বাসস্থান[সম্পাদনা]

এই মাছটি সাধারণত ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে পাওয়া যায় যেমন বঙ্গোপসাগর এবং দক্ষিণ চীন সাগর[২]

মাছটি সাধারণত তরকারী হিসেবে বা ভেজে খাওয়া হয় । ভারত এবং বাংলাদেশে এই মাছটির শুটকি মাছ তৈরি করে খাওয়া হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]