রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস
রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তির হাত
বিশেষত্ববাতবিদ্যা, অনাক্রম্যতন্ত্র
লক্ষণঅস্থিসন্ধি গরম হয়ে যাওয়া, ফুলে যাওয়া, ব্যথা হওয়া[১]
জটিলতারক্তশূন্যতা, প্লুরিসি, পেরিকার্ডাইটিস[১]
রোগের সূত্রপাতমধ্য বয়স[১]
স্থিতিকালআজীবন[১]
কারণঅজানা[১]
রোগনির্ণয়ের পদ্ধতিউপসর্গের উপর ভিত্তি করে, ইমেজিং পরীক্ষা, রক্ত পরীক্ষা[১][২]
পার্থক্যমূলক রোগনির্ণয়সিস্টেমিক লুপাস এরিথেমেটোসাস, সোরিয়াটিক আর্থ্রাইটিস, ফাইব্রোমায়ালজিয়া[২]
ঔষধব্যথার ওষুধ, স্টেরয়েড, প্রদাহ বিরোধী অ-স্টেরয়েড ওষুধ, বাত-বিরোধী ওষুধ [১]
সংঘটনের হার০.৫–১% প্রাপ্তবয়স্ক (উন্নত দেশে)[৩]
মৃতের সংখ্যা৩০,০০০ (২০১৫)[৪]

রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস ( RA ) হলো একটি দীর্ঘমেয়াদী স্বতঃঅনাক্রম্য রোগ যা প্রাথমিকভাবে অস্থিসন্ধিকে প্রভাবিত করে। [১] ফলে উষ্ণ, ফোলা এবং বেদনাদায়ক অস্থিসন্ধি পরিলক্ষিত হয়। [১] বিশ্রামের পরে ব্যথা অনুভুত হয়। [১] এ রোগে সাধারণত কব্জি এবং হাতের অস্থিসন্ধিগুলো বেশি জড়িত থাকে এবং শরীরের উভয় পাশে একই সাথে হয়ে থাকে। [১] এই রোগটি ত্বক, চোখ, ফুসফুস, হৃৎপিন্ড, স্নায়ু এবং রক্ত সহ শরীরের অন্যান্য অংশকেও প্রভাবিত করতে পারে। [১] এর ফলে রক্তশূন্যতা, ফুসফুসের চারপাশে প্রদাহ এবং হৃদপিণ্ডের চারপাশে প্রদাহ হতে পারে । [১] পাশাপাশি মাঝেমধ্যে জ্বর এবং দূর্বলতা দেখা দেয়।[১] প্রায়শই, লক্ষণগুলি কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাস ধরে ধীরে ধীরে আসে। [২]

যদিও রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের কারণ স্পষ্ট নয়, তবে এটি বংশানুগত এবং পরিবেশগত কারণে হয় বলে বলে মনে করা হয়। [৫] অন্তর্নিহিত প্রক্রিয়াটি শরীরের অস্থিসন্ধিগুলোতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আক্রমণ করে। [১] এর ফলে সন্ধি আবরণে প্রদাহ হয় এবং ঘন হয়ে যায়। [১] এটি হাড় এবং তরুণাস্থিকেও প্রভাবিত করে। [১] রোগ নির্ণয় বেশিরভাগই একজন ব্যক্তির লক্ষণ এবং উপসর্গের ভিত্তিতে করা হয়। [২] এক্স-রে এবং ল্যাবরেটরি পরীক্ষা রোগ নির্ণয় সমর্থন করতে পারে বা অনুরূপ উপসর্গ সহ অন্যান্য রোগ বাদ দিতে পারে। [১] অন্যান্য রোগ যা একইভাবে উপস্থিত হতে পারে তার মধ্যে রয়েছে সিস্টেমিক লুপাস এরিথেমাটোসাস, সোরিয়াটিক আর্থ্রাইটিস এবং ফাইব্রোমায়ালজিয়া[৬]

লক্ষণ ও উপসর্গ[সম্পাদনা]

রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস প্রাথমিকভাবে অস্থিসন্ধিগুলোকে প্রভাবিত করে। তবে এটি ১৫-২৫% এরও বেশি ক্ষেত্রে অন্যান্য অঙ্গগুলিকেও প্রভাবিত করে। এ ক্ষেত্রে উদ্ভূত জটিলতাগুলোর মধ্যে রয়েছে রয়েছে সংবহনতন্ত্রের রোগ, অস্টিওপোরোসিস, আন্তঃস্থায়ী ফুসফুসের রোগ, সংক্রমণ, ক্যান্সার, ক্লান্ত বোধ করা, হতাশা, মানসিক অসুবিধা এবং কাজ করতে সমস্যা। [৭]

ডায়াগ্রামটিতে দেখানো হয়েছে কিভাবে রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস অস্থিসন্ধিকে প্রভাবিত করে

ঝুঁকি[সম্পাদনা]

রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকির মধ্যে বংশানুগত এবং পরিবেশগত বিভিন্ন প্রভাবক জড়িত।

বংশানুগত[সম্পাদনা]

বিশ্বব্যাপী প্রায় ১% প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যা রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত। গবেষণায় দেখা গেছে যে ৪০-৬০ বছর বয়সে এবং মহিলাদের মধ্যে এটি সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। পারিবারিক ইতিহাস রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি প্রায় তিন থেকে পাঁচ গুণ ঝুঁকি বাড়ায়। ২০১৬ সালের হিসাবে, এটি অনুমান করা হয়েছিল যে জেনেটিক্স সেরোপজেটিভ ৪০-৬৫% ক্ষেত্রে দায়ী হতে পারে। আর সেরোনেগেটিভ রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের মাত্রা ৩০%। উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত টিস্যু মেজর হিস্টোকম্প্যাটিবিলিটি কমপ্লেক্স (এমএইচসি) অ্যান্টিজেনের জিনের সাথে রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস দৃঢ়ভাবে জড়িত। এইচএলএ-ডিআর ৪ হল প্রধান জেনেটিক ফ্যাক্টর যা জাতিগত গোষ্ঠী অনুযায়ী পরিবর্তিত হয়।[৮]

পরিবেশগত[সম্পাদনা]

রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের জন্য প্রতিষ্ঠিত এপিজেনেটিক এবং পরিবেশগত ঝুঁকির কারণ রয়েছে। ককেশীয় জনগোষ্ঠীর মধ্যে ধূমপান একটি প্রতিষ্ঠিত ঝুঁকির কারণ। অধূমপায়ীদের তুলনায় ধূমপায়ীদের ঝুঁকি তিনগুণ বেশি। বিশেষত পুরুষ, ভারী ধূমপায়ী এবং যাদের রিউম্যাটয়েড ফ্যাক্টর পজিটিভ। পরিমিত অ্যালকোহল সেবন ক্ষেত্রবিশেষে প্রতিরক্ষামূলক হতে পারে।

ক্রমাগত সিলিকার সংস্পর্শে আসলে রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি বেড়ে যায়।[৯]

রোগ নির্ণয়[সম্পাদনা]

ব্যবস্থাপনা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Handout on Health: Rheumatoid Arthritis"National Institute of Arthritis and Musculoskeletal and Skin Diseases। আগস্ট ২০১৪। জুন ৩০, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২, ২০১৫ 
  2. Majithia V, Geraci SA (নভেম্বর ২০০৭)। "Rheumatoid arthritis: diagnosis and management": 936–939। ডিওআই:10.1016/j.amjmed.2007.04.005পিএমআইডি 17976416 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Lancet2016 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. Wang H, Naghavi M, Allen C, Barber RM, Bhutta ZA, Carter A, ও অন্যান্য (GBD 2015 Mortality and Causes of Death Collaborators) (অক্টোবর ২০১৬)। "Global, regional, and national life expectancy, all-cause mortality, and cause-specific mortality for 249 causes of death, 1980-2015: a systematic analysis for the Global Burden of Disease Study 2015"Lancet388 (10053): 1459–1544। ডিওআই:10.1016/S0140-6736(16)31012-1পিএমআইডি 27733281পিএমসি 5388903অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  5. "Handout on Health: Rheumatoid Arthritis"National Institute of Arthritis and Musculoskeletal and Skin Diseases। আগস্ট ২০১৪। জুন ৩০, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২, ২০১৫ "Handout on Health: Rheumatoid Arthritis". National Institute of Arthritis and Musculoskeletal and Skin Diseases. August 2014. Archived from the original on June 30, 2015. Retrieved July 2, 2015.
  6. Majithia V, Geraci SA (নভেম্বর ২০০৭)। "Rheumatoid arthritis: diagnosis and management": 936–939। ডিওআই:10.1016/j.amjmed.2007.04.005পিএমআইডি 17976416 Majithia V, Geraci SA (November 2007). "Rheumatoid arthritis: diagnosis and management". The American Journal of Medicine. 120 (11): 936–939. doi:10.1016/j.amjmed.2007.04.005. PMID 17976416.
  7. Turesson C, O'Fallon WM, Crowson CS, Gabriel SE, Matteson EL (আগস্ট ২০০৩)। "Extra-articular disease manifestations in rheumatoid arthritis: incidence trends and risk factors over 46 years"Annals of the Rheumatic Diseases62 (8): 722–727। ডিওআই:10.1136/ard.62.8.722পিএমআইডি 12860726পিএমসি 1754626অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  8. Rennie KL, Hughes J, Lang R, Jebb SA (এপ্রিল ২০০৩)। "Nutritional management of rheumatoid arthritis: a review of the evidence"Journal of Human Nutrition and Dietetics16 (2): 97–109। ডিওআই:10.1046/j.1365-277x.2003.00423.xপিএমআইডি 12662368 
  9. Pollard KM (১১ মার্চ ২০১৬)। "Silica, Silicosis, and Autoimmunity"Frontiers in Immunology7: 97। ডিওআই:10.3389/fimmu.2016.00097অবাধে প্রবেশযোগ্যপিএমআইডি 27014276পিএমসি 4786551অবাধে প্রবেশযোগ্য 

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]

শ্রেণীবিন্যাস
বহিঃস্থ তথ্যসংস্থান