রস মর্গ্যান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রস মরগ্যান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরস উইনস্টন মরগ্যান
জন্ম (1941-02-12) ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৪১ (বয়স ৮১)
অকল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১০৪)
২৯ জানুয়ারি ১৯৬৫ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট২০ এপ্রিল ১৯৭২ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২০ ১৩৬
রানের সংখ্যা ৭৩৪ ৫৯৪০
ব্যাটিং গড় ২২.২৪ ২৭.৫০
১০০/৫০ -/৫ ৮/৩২
সর্বোচ্চ রান ৯৭ ১৬৬
বল করেছে ১,১১৪ ৮৩৩৯
উইকেট ১০৮
বোলিং গড় ১২১.৭৯ ৩২.৯৪
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/১৬ ৬/৪০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১২/- ৮৫/১
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

রস উইনস্টন মরগ্যান (ইংরেজি: Ross Morgan; জন্ম: ১২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪১) অকল্যান্ড এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়কাল থেকে ১৯৭০-এর দশকের শুরুরদিক পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে অকল্যান্ড দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে মাঝারিসারিতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন রস মরগ্যান

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৫৭-৫৮ মৌসুম থেকে ১৯৭৬-৭৭ মৌসুম পর্যন্ত রস মরগ্যানের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। এছাড়াও, নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হিসেবে সুনাম ছিল তার। বলকে আলতো ছোঁয়ায় মিড উইকেট বরাবর ফেলার দিকেই অধিক স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন ও অফস্পিনার ছিলেন তিনি।

১৯৫৭-৫৮ মৌসুমে মাত্র ১৬ বছর বয়সে অকল্যান্ডের পক্ষে তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে। ১৯৬৪-৬৫ মৌসুমের প্লাঙ্কেট শীল্ডে চমৎকার অল-রাউন্ড ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেন। সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টসের বিপক্ষে ৬/৪০ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন। এটিই পরবর্তীকালে তার সেরা বোলিং পরিসংখ্যান হিসেবে চিত্রিত হয়ে যায়। এর কয়েকদিন পর ওয়েলিংটনের বিপক্ষে ১১২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। ফলশ্রুতিতে, তাকে জাতীয় দলে খেলার জন্যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

১৯৭৬-৭৭ মৌসুম পর্যন্ত অকল্যান্ডের পক্ষে খেলা চালিয়ে যেতে থাকেন। ১৯৬৮-৬৯ মৌসুমে অকল্যান্ডে অনুষ্ঠিত খেলায় ক্যান্টারবারির বিপক্ষে ১৬৬ রানের ইনিংস খেলেন। দলের সংগৃহীত ঘোষিত ৩১৪/৮ রানের মধ্যে তার এ ইনিংসটি পরবর্তীকালে তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সর্বোচ্চ হিসেবে রয়ে যায়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে বিশটি টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন রস মরগ্যান। ২৯ জানুয়ারি, ১৯৬৫ তারিখে অকল্যান্ডে সফরকারী পাকিস্তান দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ২০ এপ্রিল, ১৯৭২ তারিখে পোর্ট অব স্পেনে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৬৪-৬৫ মৌসুমে পাকিস্তান দল নিউজিল্যান্ড গমনে আসে। অকল্যান্ডে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয় তার। ৬৬ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এটিই খেলায় সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল। ক্রাইস্টচার্চে অনুষ্ঠিত সিরিজের পরের টেস্টে ৯৭ রান তুলেন। এটিই তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ টেস্ট রান ছিল।

ভারত সফরে বেশ দূর্দান্ত খেলেন। তবে, পরবর্তী ২২ ইনিংসে মাত্র ২৮৭ তুলতে সমর্থ হয়েছিলেন। এর পরের কয়েক মাসে ভারত, পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি সিরিজে দলের নিয়মিত খেলোয়াড় হিসেবে রয়ে যান। কয়েকটি মূল্যবান ইনিংস খেলাসহ অফ স্পিন বোলিংয়ে মাঝে-মধ্যে উইকেট লাভ করেন। তিনি তার প্রথম ১২ টেস্টে ৩০.১৩ গড়ে ৬৬৩ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হন। কিন্তু, এরপর থেকে রান খরায় ভুগতে থাকেন। পরবর্তী কয়েক বছরে আট টেস্টে অংশ নিয়ে মাত্র ৭১ রান সংগ্রহ করেন।

১৯৭২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমন করেন। এ সফরেই নিজের শেষ তিন টেস্টে অংশ নেন। এ পর্যায়ে তিনি নবজাতকের মৃত্যুতে দেশে প্রত্যাবর্তনকারী রিচার্ড কলিঞ্জের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন।[১] এ সিরিজে তিনি মাত্র ৮ রান ও এক উইকেট পান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Test Cricket Tours - New Zealand to West Indies 1971-72"Test-cricket-tours.co.uk। ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]