মুকুল দত্ত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মুকুল দত্ত
মুকুল দত্ত.jpg
জন্ম২৭ নভেম্বর ১৯৩৩
রেওয়ায়, মধ্য প্রদেশ
মৃত্যু১৫ জুলাই ২০১১
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাগীতিকার এবং চলচ্চিত্র পরিচালক

মুকুল দত্ত (জন্ম: ২৭ নভেম্বর ১৯৩৩ - মৃত্যু: ১৫ জুলাই ২০১১)[১] বাংলা আধুনিক ও চলচ্চিত্র সংগীতের বিশিষ্ট গীতিকার এবং চলচ্চিত্র পরিচালক[২] আধুনিক বাংলা গান এবং বাংলা ছায়াছবির জগতে যিনি উষ্ণ প্রেমাবেগ রেখেছিলেন তিনি তাঁদের একজন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি মধ্যপ্রদেশের রেওয়ায় এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। কৈশোর জীবন কাটে পশ্চিমবঙ্গের খড়গপুরে, তিনি পড়াশোনা করেন সেখানকার ইন্ডিয়ান হাই স্কুলে (এখনকার রেলওয়ে স্কুল)৷ ইন্টারমিডিয়েট পড়াশোনা করেন মধ্যপ্রদেশের বিলাসপুরে৷ গ্র্যাজুয়েশন বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে৷ তারপর তিনি এম এ পড়াশোনা করেন কলকাতায় ৷ প্রথম শিক্ষাকতা করেন খড়গপুরে সিলভার জুবিলি হাই স্কুলে৷ শিলালিপি সিনেমার সুবাদে চাঁদ উসমানিকে বাংলা শেখানোর দায়িত্ব ছিল মুকুলের সেই সুত্রে দীর্ঘদিন দেখাশোনা এবং প্রেম তারপর বিয়ে করেন চাঁদ উসমানিকে।[৩]

সঙ্গীত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৬০-এর দশক থেকে ১৯৯০-এর দশক পর্যন্ত বাংলা আধুনিক ও চলচ্চিত্র সংগীতের জগতে সমৃদ্ধি আনয়ণে স্বকীয় ভূমিকা রাখেন। তিনি বিমল রায়, পরে হৃষীকেশ মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে সহ পরিচালকের কাজ করেছেন। তিনি হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, কিশোর কুমার, রাহুল দেব বর্মণ, লতা মঙ্গেশকর, আশা ভোঁসলে এবং আরও অনেক জ্ঞানী-গুণী শিল্পী তাঁর লেখা গানে গান গেয়েছেন। ১৯৬২ সালে হেমন্তের গলায় মুকুলের লেখা প্রথম দুটি গানই সুপারহিট৷ তার আর পর নেই এবং তুমি এলে অনেকদিনের পরে যেন বৃষ্টি এল৷ ১৯৬৪ সালে পলাতক ছবিতে তারপর ১৯৭৫ সালে ফুলেশ্বরী ছবিতে শ্রেষ্ঠ গীতিকার পুরষ্কার পান। আগমন ছবিতে ১১ গানের মধ্যে ৮টি গানই ছিল মুকুল দত্তের লেখা৷ কিশোরের প্রথম দুটি বাংলা আধুনিক গানই মুকুলের লেখা একদিন পাখি উড়ে এবং বাবা ও খোকা৷ ১৯৮০ সালে মুকুলের লেখা কিশোরের কণ্ঠে পুজোর চারটে গানই সুপারহিট আমার পুজার ফুল ভালোবাসা হয়ে গেছে, সে যেন আমার পাশে, চোখের জলের হয় না কোনও রং, কেন রে তুই চড়লি ওরে[৪] সে যেন আমার পাশে আজও বসে আছে গানটি লিখেছিলেন মহঃ রফির জন্য, মহঃ রফি গানটা ভেবেছিলেন উত্তমকুমারের স্মৃতিতে গাইবেন কিন্ত্ত মহঃ রফিও দ্রুত তো চলে গেলেন। মুকুলের কথায় রফি এবং উত্তমের প্রসঙ্গ শুনে ওই গানটা গেয়ে ছিলেন কিশোর কুমার এবং গানটি সুপারহিট হয়েছিল৷ রাহুল দেববর্মণের সুরে শেষ সিনেমা ১৯৪২ এ লাভ স্টোরির বাংলা ভার্সন গান হয়েছিল সবগুলো লিখেছিলেন মুকুল দত্ত। মুকুল দত্তের জীবনের অল্প অংশ জুড়ে বাংলা৷ তবু তিনি বাঙালির সাংস্কৃতিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে গিয়েছেন৷ তাই মুকুল দ্রুত ঝরে যাবে না তিনি নিজেই তো বাঙালির চিরচেনা গানে চিরকালীন আশার কথাই লিখে গিয়েছেন,তাই এই গানটির কথা মনে আসে চলে যেতে যেতে দিন বলে যায়, আঁধারের শেষে ভোর হবে[৫]

জনপ্রিয় গান[সম্পাদনা]

আধুনিক গান[সম্পাদনা]

  • তুমি এলে অনেক দিনের পর যেন বৃষ্টি এল (হেমন্ত)
  • কোন পাখি ধরা দিকে চায় (হেমন্ত)
  • আরও ভালো হত (হেমন্ত)
  • বন্ধু তোমার পথের সাথীকে (হেমন্ত)
  • ফেরানো যাবে না আর (হেমন্ত)
  • হাজার বছর (হেমন্ত)
  • ঘুম নেই (হেমন্ত)
  • একদিন পাখি উড়ে (কিশোর)
  • নয়ন সরসী কেন (কিশোর)
  • এই যে নদী (কিশোর)
  • সে তো এল না (কিশোর)
  • চলেছি একা কোন অজানায় (কিশোর)
  • আমি নেই ভাবতেই ব্যথায় (কিশোর)
  • তারে আমি চোখে দেখিনি (কিশোর)
  • বাবা ও খোকা (কিশোর)
  • আমার পুজার ফুল (কিশোর)
  • কেন রে তুই চড়লি (কিশোর)
  • সে যেন আমার পাশে (কিশোর)
  • চোখের জলের হয় না ( কিশোর)
  • তোমায় পড়েছে মনে (কিশোর)
  • আজ থেকে আর ভালোবাসার (কিশোর)
  • জড়িয়ে ধরেছি যারে (কিশোর)
  • মন দরজা খুলে দে না (কিশোর)

বাংলা ছায়াছবির গান[সম্পাদনা]

  • জীবনপুরের পথিক রে ভাই (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি পলাতক)
  • কেন গেলে পরবাসে (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি মণিহার)
  • কে যেন গো ডেকেছে আমায় (হেমন্ত-লতা৷ ছবি মণিহার)
  • যখন ডাকলো বাঁশি (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি বাঘিনী)
  • ফুলেশ্বরী, ফুলেশ্বরী ফুলের মতো নাম (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি ফুলেশ্বরী
  • যেও না দাঁড়াও বন্ধু (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি ফুলেশ্বরী)
  • আমি দেখতে ভালোবাসি (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি ফুলেশ্বরী)
  • টাপুর টুপুর বৃষ্টি (হেমন্ত৷ ছবি ফুলেশ্বরী)
  • আমি হতে পারিনি আকাশ (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি মণিহার)
  • সব কথা বলা হল (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি মণিহার)
  • তুমি শতদল হয়ে (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি ফুলেশ্বরী)
  • দোষ দিও না আমায় (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি পলাতক)
  • আহা কৃষ্ণ কালো (হেমন্ত মুখোপাধ্যায়৷ ছবি পলাতক)
  • তোমার মনের তুলসীতলায় (হেমন্ত৷ মেঘমুক্তি)
  • চলে যেতে যেতে দিন বলে যায় (লতা মঙ্গেশকর৷ মন নিয়ে)
  • চঞ্চল ময়ুরী এ রাত ( লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • চঞ্চল মন আনমনা হয় (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • যাবার বেলায় (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • যদিও রজনী পোহাল (লতা মঙ্গেশকর৷ বাঘিনী)
  • বোঝো না কেন ( লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • ওরে মন পাখি (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি অনিন্দিতা)
  • কেন গেলে পরবাসে (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি: মণিহার)
  • বৃষ্টি অনাসৃষ্টি (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি: প্রতীক)
  • যে প্রদীপ জ্বালছো তুমি (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি: শ্বেতপাথরের থালা)
  • কানামাছি ভোঁ ভোঁ (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি: শ্বেতপাথরের থালা)
  • এই মাল নিয়ে চিরকাল (মান্না দে৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • ভালোবাসার এই কী রে খাজনা (মান্না দে, আশা ভোঁসলে৷ ছবি আগমন)
  • ভালোবাসার গঙ্গা বুঝি (মান্না দে৷ ছবি শহর থেকে দূরে)
  • শোন রে বলি (মান্না দে৷ ছবি গণদেবতা)
  • বিধি রে সুখের বিধি (মান্না দে৷ ছবি আগমন)
  • ওগো নিরুপমা (কিশোর কুমার৷ ছবি অনিন্দিতা)
  • কারও কেউ নইকো আমি (কিশোর৷ ছবি লালকুুঠি)
  • সরস্বতীর সেবা (কিশোর কুমার৷ ছবি একটুকু ছোঁয়া লাগে)
  • দুস্তর পারাবার (হেমন্ত-কিশোর৷ ছবি একটুকু ছোঁয়া লাগে)
  • কে যায় রে (আশা ভোঁসলে৷ ছবি লালকুঠি)
  • মনের মানুষ খুঁজতে ( আশা ভোঁসলে৷ ছবি অদ্বিতীয়া)
  • আষাঢ় শ্রাবণ মানে না তো মন (লতা মঙ্গেশকর৷ ছবি: মণিহার)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mukul Dutt"geni_family_tree। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৯ 
  2. "Mukul Dutt"IMDb। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৯ 
  3. "হেমন্ত, কিশোর এবং বাংলা গানের সোনার মুকুল"Eisamay Blog। ২০১৭-০৮-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৯ 
  4. "Hemant Kumar in the Hindi Films as a Playback Singer : Sangeet Bhuvan"hemanta-mukherjee.sangeet-bhuvan.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৯ 
  5. Tikhe, Veerendra। "Pooja songs"panchammagic.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৯