মার্শাল ম্যাকলুহান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মার্শাল ম্যাকলুহান
Marshall McLuhan.jpg
আনুমানিক ১৯৩৬ সালে মার্শাল ম্যাকলুহান
জন্মহার্বার্ট মার্শাল ম্যাকলুহান
(১৯১১-০৭-২১)২১ জুলাই ১৯১১
এডমন্টন, আলবার্টা, কানাডা
মৃত্যুডিসেম্বর ৩১, ১৯৮০(1980-12-31) (বয়স ৬৯)
টরন্টো, অন্টারিও, কানাডা
ধারাপ্রচার মাধ্যম তত্ত্ব, টরন্টো স্কুল অব কম্যুনিকেশ থিয়োরি
আগ্রহপ্রচার মাধ্যম, গণমাধ্যম, বোধশক্তিতত্ত্ব, নব্য সমালোচনাবাদ
অবদানদ্য মিডিয়াম ইজ দ্য মেসেজ, বিশ্বগ্রাম, ফিগার এন্ড গ্রাউন্ড মিডিয়া, টেট্রাড অব মিডিয়া ইফেক্টস, হট এন্ড কুল মিডিয়া

হার্বার্ট মার্শাল ম্যাকলুহান, (জন্ম: ২১ জুলাই, ১৯১১ - মৃত্যু: ৩১ ডিসেম্বর, ১৯৮০) ইংরেজি সাহিত্যে কানাডীয় অধ্যাপক ও দার্শনিক ছিলেন। পরবর্তীকালে মার্শাল ম্যাকলুহান প্রচারমাধ্যমের দিকে ঝুঁকে পড়েন। প্রচারমাধ্যমের মাধ্যমে সমাজের প্রভাব বিষয়ে তাঁর সম্যক আগ্রহ ছিল। তাঁকে `বিশ্বগ্রাম ধারণার জনক বা প্রবর্তক' হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে।

বিজ্ঞাপনটেলিভিশন শিল্পে তিনি বেশকিছু বিষয়ে ব্যবহারিক প্রয়োগ নিয়ে কাজ করে গেছেন।[২][৩] 'আন্ডারস্ট্যান্ডিং মিডিয়া: দি এক্সটেনশনস অব ম্যান' তাঁর অন্যতম সেরা গ্রন্থ।

পরিচিতি[সম্পাদনা]

প্রচারমাধ্যমকে বার্তাবাহক ও বিশ্বগ্রাম হিসেবে পরিচিত করে জনপ্রিয় হয়েছেন তিনি।[৪] ১৯৬০-এর দশকের শেষদিক পর্যন্ত প্রচারমাধ্যম থেকে দূরে থাকলেও ১৯৭০-এর দশকের শুরুতে এতে প্রভাববিস্তার করতে শুরু করেন।[৫] তাঁর মৃত্যু পরবর্তী বছরগুলোয় শিক্ষাঙ্গনে বিতর্কিত ব্যক্তিত্ব হিসেবে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে।[৬] ইন্টারনেট ব্যবস্থা প্রবর্তনের পর তাঁর কার্যাবলী ও দৃষ্টিভঙ্গী পুণরায় আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়।[৭][৮][৯]

দ্য গুটেনবার্গ গ্যালাক্সি[সম্পাদনা]

ম্যাকলুহানের "দ্য গুটেনবার্গ গ্যালাক্সি: দ্য মেকিং অব টাইপোগ্রাফিক ম্যান" (১৯৬২) মূলতঃ মুদ্রণের ইতিহাস ও সমাজে এর প্রভাব সম্পর্কিত গ্রন্থ। এ গ্রন্থে ম্যাকলুহান দেখিয়েছেন যে কিভাবে বর্ণলিখন, মুদ্রণ শিল্প ও পরবর্তীকালে গণমাধ্যমে চিন্তাধারার প্রতিফলন ঘটে যা পরবর্তীতে সামাজিক সংগঠনে প্রভাববিস্তার করে।

গ্রন্থে তাঁর জীবন দর্শন নিম্নরূপ:-

  • নতুন ইলেকট্রনিক আন্তঃনির্ভরশীলতা পৃথিবীতে বিশ্বগ্রামের প্রতিকৃতি হিসেবে পুণঃপ্রবর্তন করেছে। মনে রাখুন, এটি লিখিত দলিল যা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব ধারণার পূর্বে রচিত হয়েছে।[১০]p31
  • অশিক্ষিত সমাজ ব্যবস্থায় কেউ ব্যকরণসিদ্ধ ভুল করতে পারে না।[১০]p239
  • মুদ্রণলিপি নীরবতার ভাষাকে হস্তগত করেছে।[১০]p251

আন্ডারস্ট্যান্ডিং মিডিয়া[সম্পাদনা]

আন্ডারস্ট্যান্ডিং মিডিয়া: দি এক্সটেনশনস অব ম্যান প্রচারমাধ্যমের প্রতিক্রিয়া বিষয়ক পথিকৃৎ শিক্ষা। এ গ্রন্থে প্রচারমাধ্যমের প্রভাবে তাদের কর্মসূচী গুরুত্বপূর্ণ দিকে ধাবিত হবার কথা তুলে ধরা হয়। কিভাবে বিভিন্ন মাধ্যম সমাজে প্রভাববিস্তার করে তারই চেষ্টা সম্পর্কে বুঝানো হয়েছে এখানে। ম্যাকলুহানের মতে প্রচারমাধ্যম ভূমিকা রাখছে। এটি শুধুমাত্র তথ্য সরবরাহ করেই ক্ষান্ত হয় না বরং প্রচারমাধ্যম নিজেই অন্যতম চরিত্র। ম্যাকলুহান এ গ্রন্থে লিখেছেন যে, একটি প্রজ্জ্বলিত বাল্ব তার স্বকীয় উজ্জ্বলতার মাধ্যমে পরিবেশ সৃষ্টিতে সক্ষম।[১১]

গ্রন্থের অন্যতম প্রসিদ্ধ বাক্য হচ্ছে - দ্য মিডিয়াম ইজ দ্য ম্যাসেজ। (প্রচারমাধ্যমই বার্তা) এটি একটি ধারণা যা একটি প্রচারমাধ্যম যেমন টেলিভিশন প্রকৃতপক্ষে বিভিন্ন তথ্য প্রদানের মাধ্যম হিসেবে দেখা ও অনুধাবনের মাধ্যমে প্রভাববিস্তার ঘটায়।

দ্য মিডিয়াম ইজ দ্য ম্যাসেজ[সম্পাদনা]

দ্য মিডিয়াম ইজ দ্য ম্যাসেজ: অ্যান ইনভেনটরি অব ইফেক্টস (১৯৬৭) গ্রন্থটি ব্যাপকভাবে পাঠক কর্তৃক সমাদৃত হয়।[৮] বিশ্বব্যাপী প্রায় এক মিলিয়ন কপি বিক্রয় হয়।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Keller, Katherine (November 2, 2007). "Writer, Creator, Journalist, and Uppity Woman: Ann Nocenti". Sequential Tart.
  2. "Programming: Getting the Message"Time। অক্টোবর ১৩, ১৯৬৭। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১১ 
  3. "Television: Dann v. Klein: The Best Game in Town"Time। মে ২৫, ১৯৭০। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১১ 
  4. Levinson, Paul. 1999. Digital McLuhan: a guide to the information millennium. Routledge. [১] আইএসবিএন ০-৪১৫-১৯২৫১-X
  5. Plummer, Kevin। "Historicist: Marshall McLuhan, urban activist"। www.torontoist.com। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২০, ২০১১ 
  6. Stille, Alexander (১৪ অক্টোবর ২০০০)। "Marshall McLuhan is back from the dustbin of history; with the internet, his ideas again seem ahead of their time"The New York Times। পৃষ্ঠা 9। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১১ 
  7. Beale, Nigel (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮)। "Living in Marshall McLuhan's galaxy"The Guardian। UK। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১১ 
  8. Wolf, Gary (১৯৯৬)। "The Wisdom of Saint Marshall, the Holy Fool"Wired 4.01। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-১০  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ অবৈধ; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "wired saint" নাম একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  9. Boxer, Sarah (৩ এপ্রিল ২০০৩)। "CRITIC'S NOTEBOOK; McLuhan's Messages, Echoing On Iraq"The New York Times। পৃষ্ঠা 1। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০১১ 
  10. McLuhan, Marshall 1962. The Gutenberg Galaxy: the making of typographic man. London: Routledge & Kegan Paul.
  11. Understanding Media, p. 8.
  12. Marchand, Philip 1989. Marshall McLuhan: the medium and the messenger. Random House. The MIT Press, revised ed, 1998, p. 203. আইএসবিএন ০-২৬২-৬৩১৮৬-৫

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Benedetti, Paul and Nancy DeHart. Forward Through the Rearview Mirror: Reflections on and by Marshall McLuhan. Boston:The MIT Press, 1997.
  • Bobbitt, David. "Teaching McLuhan: Understanding Understanding Media." Enculturation, December, 2011. http://www.enculturation.net/teaching-mcluhan
  • Carpenter, Edmund. "That Not-So-Silent Sea" [Appendix B]. In The Virtual Marshall McLuhan edited by Donald F. Theall. McGill-Queen's University Press, 2001: 236–261. (For the complete essay before it was edited for publication, see the external link below.)
  • Cavell, Richard. McLuhan in Space: A Cultural Geography. Toronto: University of Toronto Press, 2002.
  • Coupland, Douglas. Extraordinary Canadians: Marshall McLuhan. Penguin Canada, 2009; US edition: Marshall McLuhan: You Know Nothing of my Work!. Atlas & Company, 2011.
  • Daniel, Jeff. "McLuhan's Two Messengers: Maurice McNamee and Walter Ong: world-class interpreters of his ideas." St. Louis Post-Dispatch (Sunday, August 10, 1997: 4C).
  • Federman, Mark. McLuhan for Managers: New Tools for New Thinking. Viking Canada, 2003.
  • Finkelstein, Sidney Walter. "Sense and Nonsense of McLuhan." International Publishers Co, 1968.
  • Flahiff, F. T. Always Someone to Kill the Doves: A Life of Sheila Watson. Edmonton: NeWest Press, 2005.
  • Giddings, Seth. The New Media and Technocultures Reader. Routledge, 2011:82-91
  • Havers, Grant N. "Marshall McLuhan and the Machiavellian Use of Religious Violence." In Faith, War, and Violence. Vol. 39 of Religion and Public Life, edited by Gabriel R. Ricci. New Brunswick, NJ: Transaction Publishers, 2014. pp. 179–203.
  • Levinson, Paul. Digital McLuhan: A Guide to the Information Millennium. Routledge, 1999. আইএসবিএন ০-৪১৫-১৯২৫১-X; book has been translated into Japanese, Chinese, Croatian, Romanian, Korean and Macedonian
  • Ong, Walter J.: "McLuhan as Teacher: The Future Is a Thing of the Past." Journal of Communication 31 (1981): 129–135. Reprinted in Ong's Faith and Contexts: Volume One (Scholars Press, 1992: 11–18).
  • Ong, Walter J.: [Untitled review of McLuhan's The Interior Landscape: The Literary Criticism of Marshall McLuhan 1943–1962]. Criticism 12 (1970): 244–251. Reprinted in An Ong Reader: Challenges for Further Inquiry (Hampton Press, 2002: 69–77).
  • Prins, Harald E.L., and Bishop, John M. "Edmund Carpenter: Explorations in Media & Anthropology." Visual Anthropology Review Vol.17(2): 110-40 (2002). [২]
  • Prins, Harald E.L., and John Bishop. "Edmund Carpenter: A Trickster's Explorations of Culture & Media." pp. 207–45. In Memories of the Origins of Ethnographic Film. B. Engelbrecht, ed. Frankfurt am Main: Peter Lang, 2007.
  • Theall, Donald F. The Virtual Marshall McLuhan. McGill-Queen's University Press, 2001.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]