মরান স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

মরান স্বায়ত্তশাসিত কাউন্সিল হচ্ছে ভারতের আসাম রাজ্যের জাতিগত মরান জনগণের বিকাশ ও সুরক্ষার জন্য গঠিত একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রশাসনিক বিভাগ। ২০২০ সালে এটি গঠিত হয়। [১]

সম্পর্কিত[সম্পাদনা]

মরান জনগোষ্ঠী মূলত আসামের তিনসুকিয়া জেলায় বসবাস করা আদিবাসী।[২] ২০২০ সালের ২৪ মার্চে বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার আসাম বিধানসভায় মরান স্বায়ত্তশাসিত কাউন্সিল বিল পেশ করে। বিরোধী দলগুলোর কোনও আপত্তি ছাড়াই বিলটি একই বছরের সেপ্টেম্বরে পাস হয়।[১]

প্রশাসন[সম্পাদনা]

মরান স্বায়ত্তশাসিত পরিষদে ২৫ জন সদস্য রয়েছে। এই সদস্যদের মধ্যে ২২ জন সরাসরি নির্বাচিত হন এবং ৩ জন সদস্য রাজ্যপাল কর্তৃক মনোনীত হন। [৩]

২০২১ সালের জানুয়ারিতে আসাম রাজ্য সরকার জানিয়েছিল যে, মরান স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ, মাতাক স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ, কামতাপুর স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ, এবং বড়ো কাছাড়ি কল্যাণ স্বায়ত্তশাসিত পরিষদের অন্তর্বর্তীকালীন কাউন্সিল গঠন করবে। ২০২১ সালের আসাম বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই স্বায়ত্তশাসিত পরিষদগুলোর নির্বাচন সম্ভব না হওয়ায় সরকার মরান স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ ও মাতাক স্বায়ত্তশাসিত পরিষদের জন্য ২৫ জন কামতাপুর স্বায়ত্তশাসিত পরিষদের জন্য ৩০ জন, এবং বড়ো কাছাড়ি কল্যাণ স্বায়ত্তশাসিত পরিষদের জন্য ৪০ জন সদস্যকে মনোনীত করে।[৪]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Assam Assembly Passes Bills To Create Three Separate Autonomous Councils"The wire। ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০২০ 
  2. Arunabh Saikia (২৪ মার্চ ২০২০)। "Assam's small ethnic groups dumped BJP over CAA. The party wooed them back – not just for elections"Scroll। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০২০ 
  3. "Formation of 3 autonomous councils: Dispur in dilemma"Sentinelassam। ২০ অক্টোবর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০২০ 
  4. "Assam Government To Form Four Interim Councils Soon"Sentinelassam। ৯ জানুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০২০