ময়ূরভঞ্জ রাজ্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ময়ূরভঞ্জ রাজ্য
ମୟୁରଭଞ୍ଜ ରାଜ୍ୟ
ব্রিটিশ ভারত দেশীয় রাজ্য
ঊনবিংশ শতাব্দীর প্রথমার্ধে–১৯৪৯
Orissa Tributary States-IGI.jpg
ইম্পেরিয়াল গেজেটিয়ার অব ইন্ডিয়া থেকে প্রাপ্ত ১৯০১ খ্রিস্টাব্বে ময়ূরভঞ্জ রাজ্যের সীমানা
আয়তন 
• ১৯০১
১০,৯৮২ বর্গকিলোমিটার (৪,২৪০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা 
• ১৯০১
৬,১০,৩৮৩
ইতিহাস 
• ১৯ এপ্রিল ১৮২২
রাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠাকাল ঊনবিংশ শতাব্দীর প্রথমার্ধে
১৯৪৯
পূর্বসূরী
উত্তরসূরী
মারাঠা সাম্রাজ্য
ভারত
বর্তমানে যার অংশওড়িশা, ভারত
রাজ পৃষ্ঠপোষকতায় তৈরী বারিপদার শ্রীহরি বলদেব জীউ মন্দির
ময়ূরভঞ্জের সাঁওতালি নৃত্য
ময়ূরভঞ্জ রাজ্যের উপজাতি জনসংখ্যার তুলনা

ময়ূরভঞ্জ রাজ্য (বা মোরভঞ্জ)[১](ওড়িয়া: ମୟୁରଭଞ୍ଜ ରାଜ୍ୟ) ছিলো ব্রিটিশ ভারতে অবস্থিত পূর্ব ভারতের একটি দেশীয় রাজ্য৷[১] এটি পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য এজেন্সির অন্তর্গত বৃহত্তর দেশীয় রাজ্যগুলির অন্যতম৷ প্রাথমিকভাবে এটি বেঙ্গল এজেন্সির তিনটি দেশীয় রাজ্যের একটি ছিলো পরে এটিকে উড়িষ্যা এজেন্সির অন্তর্ভুক্ত করা হয়৷ [১] রাজ্যপ্রতীকে রয়েছে দুটি ময়ূর৷ জনশ্রুতি অনুসারে এই রাজ্যের আদিশাসকগণ ময়ূরযুগলের চক্ষু থেকে সৃষ্ট৷ [২]

রাজ্যটি জুড়ে রয়েছে বিস্তীর্ণ পর্বত-আচ্ছাদিত ভূভাগ৷ এখানে বহু জনজাতি তথা সাঁওতাল, মুন্ডা, হো, কিসান প্রভৃতি জনজাতির বাস৷ [৩] বর্তমানে এই অঞ্চলটি ওড়িশা-পশ্চিমবঙ্গ-ঝাড়খণ্ড সীমানায় অবস্থিত ওড়িশার একটি জেলা৷ দেশীয় রাজ্য এবং বর্তমান জেলা উভয়ের সদরই রয়েছে বারিপদা শহরে৷ [১] খ্রিস্টীয় পঞ্চদশ শতাব্দী থেকে শহরটি এই রাজ্যের রাজধানী ছিলো, এছাড়া রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অপর শহর হলো দাসপুর৷ রাজ্যটির অধিকাংশ ভাগই জঙ্গলাচ্ছন্ন৷

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ শাসন[সম্পাদনা]

খ্রিস্টীয় অষ্টাদশ শতাব্দী অবধি ময়ূরভঞ্জ রাজ্য মারাঠাদের অধীনস্থ ছিল, ১৮২৯ খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ ও মারাঠাদের মধ্যে হওয়া তৃতীয় ইঙ্গ-মারাঠা যুদ্ধের বহু বছর পর এটি ব্রিটিশদের করদ রাজ্যে পরিণত হয়। ব্রিটিশ শাসন চলাকালীন ময়ূরভঞ্জের শাসক রাজারা জেলাটির উন্নয়নের বহু পদক্ষেপ গ্রহণ করে। ব্রিটিশ সহায়তায় ময়ূরভঞ্জ রাজ্য একটি উন্নতিশীল দেশীয় রাজ্যে পরিণত হয়। ভঞ্জ রাজারা আর্থিক সহায়তায় কটকে প্রথম চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা পায়। এছাড়াও তারা আর্থিক এবং ভূমিদানের মাধ্যমে উচ্চ শিক্ষার প্রসারের জন্য ইভানজেলিক্যাল মিশনারি সোসাইটির অধীনে রেভেনশা কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। কলেজটি ১৮৯৫ খ্রিস্টাব্দে তৎকালীন ময়ূরভঞ্জ রাজ্যের মহারাজা শ্রীরামচন্দ্র ভঞ্জদেওর তত্ত্বাবধানে প্রতিষ্ঠা পায়।[৪] ১৮০৪ খ্রিস্টাব্দে মহারানী সুমিত্রা দেবী ভঞ্জদেওয়ের তত্ত্বাবধানে ময়ূরভঞ্জ রাজপ্রাসাদ পূর্ণ রূপ লাভ করে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

মহারাজা শ্রীরামচন্দ্র ভঞ্জদেওয়ের শাসনকালে ময়ূরভঞ্জ রাজ্য রেলওয়ে কার্যকর হওয়া শুরু হয়। রূপসা থেকে বারিপদা অবধি ৫২ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেকশন এর প্রথম রেলপথ ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দের ২০শে জানুয়ারি তারিখে চালু হয়।[৫]

ভারতের স্বাধীনতা লাভের পর এই স্বাধীন রাজ্যটির শাসক ছিলেন মহারাজা প্রতাপচন্দ্র ভঞ্জদেও, তিনি ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দের পয়লা জানুয়ারি তারিখে ভারতীয় অধি রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন এবং তৎকালীন উড়িষ্যা প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত হন। পরবর্তীকালে এটি ওড়িশা রাজ্যে পরিণত হয়।

শাসকবর্গ[সম্পাদনা]

খ্রিস্টীয় উনবিংশ শতকের মাঝে মাঝে থেকে মহিগঞ্জ রাজ্যের শাসক "রাজা" উপাধি এবং ১৯১০ খ্রিস্টাব্দ থেকে "মহারাজা" উপাধি গ্রহণ করেন।[৬] রাজ্যটির নয়টি বন্দুক সালামীর (নাইন গান স্যালুট) অনুমতি ছিল। [৭]

আদি শাসকবর্গ[সম্পাদনা]

  • ১৬৮৮ – ১৭১১ সেবশ্বর ভঞ্জদেও
  • ১৭১১ – ১৭২৮ বীরবিক্রমাদিত্য ভঞ্জদেও
  • ১৭২৮ – ১৭৫০ রঘুনাথ ভঞ্জদেও
  • ১৭৫০ – ১৭৬১ চক্রধর ভঞ্জদেও (কেওনঝড়ের রাজার দ্বিতীয় পুত্র)
  • ১৭৬১ – ১৭৯৬ দামোদর ভঞ্জদেও (প্রথম বিবাহ: রাণী সুমিত্রা দেবী, দ্বিতীয় বিবাহ: সরাইকেল্লার রাজা অভিরাম সিংহের কন্যা রাণী যমুনা দেবী)
  • ১৭৯৬ – ১৮১০ রাণী সুমিত্রা দেবী (স্ত্রী) - ময়ূরভঞ্জ রাজপ্রতিনিধি
  • ১৮১০ - ১৮১৩ রাণী যমুনা দেবী (স্ত্রী) - ময়ূরভঞ্জ রাজপ্রতিনিধি
  • ১৮১৩ – ১৮২২ ত্রিবিক্রম ভঞ্জদেও (কেওনঝড়ের রাজা প্রতাপ বলভদ্র ভঞ্জের পুত্র ও ময়ূরভঞ্জের দত্তক পুত্র)
  • ১৮২২ – ১৮৬৩ যদুনাথ ভঞ্জদেও

রাজা[সম্পাদনা]

  • ১৮২২ – ১৮৬৩ যদুনাথ ভঞ্জদেও (শুধু নিজ ব্যবহারের জন্য মহারাজা উপাধি পান)
  • ১৮৬৩ – ১৮৬৮ শ্রীনাথ ভঞ্জদেও
  • ১৮৬৮ – ২৯ মে ১৮৮২ কৃষ্ণচন্দ্র ভঞ্জদেও (১৮৭৭ থেকে সার্বজনীন মহারাজা উপাধি ব্যবহার)
  • ২৯ মে ১৮৮২ – ১৯১০ শ্রীরামচন্দ্র ভঞ্জদেও (বিবাহ: মহারাণী সুচারু দেবী
    • ২৯ মে ১৮৮২ – ১৫ আগস্ট ১৮৯২ .... - রাজপ্রতিনিধি

মহারাজা[সম্পাদনা]

  • ১৯১০ – ২২ ফেব্রুয়ারি ১৯১২ শ্রীরামচন্দ্র ভঞ্জদেও (মহারাজা উপাধি ব্যবহার)
  • ২২ ফেব্রুয়ারি ১৯১২ – ২১ এপ্রিল ১৯২৮ পূর্ণচন্দ্র ভঞ্জদেও
    • ২২ ফেব্রুয়ারি ১৯১২ – ২১ এপ্রিল ১৯২৮ .... - রাজপ্রতিনিধি
  • ২১ এপ্রিল ১৯২৮ – ১৫ এপ্রিল ১৯৪৭ প্রতাপচন্দ্র ভঞ্জদেও (১৯৩৫ ১ জানুয়ারী থেকে, স্যার প্রতাপচন্দ্র ভঞ্জদেও

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1.  চিসাম, হিউ, সম্পাদক (১৯১১)। "Morbhanj"। ব্রিটিশ বিশ্বকোষ18 (১১তম সংস্করণ)। কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটি প্রেস। পৃষ্ঠা 820। [[বিষয়শ্রেণী:উইকিসংকলনের তথ্যসূত্রসহ ১৯১১ সালের এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা থেকে উইকিপিডিয়া নিবন্ধসমূহে একটি উদ্ধৃতি একত্রিত করা হয়েছে]]
  2. Imperial Gazetteer of India, v. 17, p. 242.
  3. The Tribes and Castes of the Central Provinces of India
  4. Special Report ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৯ এপ্রিল ২০১১ তারিখে at Hindu Vivek Kendra website
  5. Malleson, G. B.: An historical sketch of the native states of India, London 1875, Reprint Delhi 1984
  6. Princely States of India
  7. "Mayurbhanj Princely State (9 gun salute)"। ৫ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০২০