মফিকুল হাসান তৃপ্তি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মফিকুল হাসান তৃপ্তি
জাতীয় সংসদ-এর প্রাক্তন সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৯৬ – ২০০১
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মশার্শা উপজেলা, যশোর জেলা
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
দাম্পত্য সঙ্গীশুকরিয়া কামাল
পিতামাতামো. তোফাজ্জল হোসেন (পিতা)[১]

মফিকুল হাসান তৃপ্তি একজন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের রাজনীতিবিদ। তিনি সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[২][৩]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

মফিকুল হাসান তৃপ্তি ১৯৬০ সালের ২০শে ফেব্রুয়ারি যশোর জেলার শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া সনাতনকাঠি গ্রামে এক কৃষক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম তোফাজ্জল হোসেন এবং মায়ের নাম রিজিয়া খাতুন। রাজনীতিবিদ ও সাবেক সাংসদ আলী তারেক তাঁর চাচা। মফিকুল হাসান তৃপ্তি ১৯৭৫ সালে বাগআঁচড়া ইউনাইটেড স্কুল থেকে এসএসসি, ১৯৭৭ সালে যশোর সরকারী এম.এম. কলেজ থেকে এ ইচএসসি পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি মৃত্তিকা বিজ্ঞানে অনার্সসহ মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন।[৪]

মফিকুল হাসান তৃপ্তি ছাত্রজীবনে রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন তিনি বিএনপি ছাত্র সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত হন।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ঢাবির এসএম হলের সদস্য, প্রেসিডেন্ট, ঢাবি কমিটির ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সহ-সম্পাদক, যুগ্ম সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে তিনি বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-দপ্তর সম্পাদক, নির্বাহী কমিটির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির -দপ্তর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। [৪]

তিনি সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য ছিলেন। তিনি দ্বিতীয় খালেদা মন্ত্রিসভায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির অফিস সেক্রেটারি ছিলেন।[২][৩]

২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে তিনি যশোর -১ থেকে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন।[৫]

সমালোচনা[সম্পাদনা]

বহিষ্কার[সম্পাদনা]

২০০৭-২০০৮ সাল পর্যন্ত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দলে সংস্কারকে সমর্থন করার পরে তাকে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। [৬] ২০০৩ সালের ২৩ শে মে বিমানবন্দরে ভারী বন্দুক নিয়ে যাওয়ার পরে তাকে যশোর বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার করা হয়। বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ খালেদুর রহমান টিটো, মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ, এবং নারায়ণ চন্দ্র চন্দ[৭]

বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ১৯ নভেম্বর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তৃপ্তির বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়।[৮]

গ্রেফতার[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ২৩ মে, তাকে যশোর বিমানবন্দরে একটি বন্দুকসহ গ্রেপ্তার করা হয়। সেই সময়ে বিমানবন্দরে সংসদ সদস্য মোহাম্মদ খালেদুর রহমান টিটো, মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদনারায়ন চন্দ্র চন্দ উপস্থিত ছিলেন

২০১৮ সালের ৯ আগস্ট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক আফতাব আহমেদকে ২০০৬ সালের হত্যার অভিযোগে তাঁকে ঢাকার ফুলার রোডে তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।[৯]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তৃপ্তির সহধর্মিণী শুকরিয়া কামাল ঢাবি থেকে সমাজবিজ্ঞানে অনার্স মাস্টার্সের ডিগ্রীধারী। বর্তমানে তিনি শেরে বাংলানগর কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মহা পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এ দম্পতির ২ ছেলে। হাসান আসপিয়া নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ ডিগ্রীধারী এবং হাসান আমর কানাডায় অধ্যয়নরত। [৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বিএনপির মনোনয়ন নিলেন দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা তৃপ্তি"এনটিভি। ২৮ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৯ 
  2. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "মফিকুল হাসান তৃপ্তি"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-২৮ 
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ এপ্রিল ২০২১ 
  5. "২০৬ আসনে বিএনপির চূড়ান্ত প্রার্থী যাঁরা"প্রথম আলো। ২০১৮। 
  6. "Delwar expels Tripti from BNP"। bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৮ 
  7. "Ex-MP Tripti held with his licensed revolver"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২৩ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৮ 
  8. "বিএনপি নেতা মফিকুল হাসান তৃপ্তি সিআইডির হাতে গ্রেপ্তার"চ্যানেল আই অনলাইন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৮-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-২৮ 
  9. "Ex-BNP lawmaker held over former NU VC murder"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ আগস্ট ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৮