ভাজক কলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

ভাজক কোষ দিয়ে ভাজক টিস্যু (Meristematic tissue) গঠিত হয়৷ এই টিস্যুর কোষগুলো বার বার বিভক্ত হয়, ফলে উদ্ভিদের বৃদ্ধি ঘটে। ভাজক টিস্যু হতেই অন্যান্ন স্হায়ী টিস্যু সৃষ্ট হয়৷

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

  • ভাজক টিস্যুর কোষগুলো আকৃতিতে সমান ব্যাসবিশিষ্ট ও আয়তনে খুবই ছোট;
  • অপরিণত কোষে গঠিত ভাজক টিস্যু সর্বদাই বিভাজনক্ষম ও মাইটোসিস পদ্ধতিতে বরাবর বিভাজিত হয়;
  • কোষগুলো সাধারণত আয়তাকার, ডিম্বাকার, পঞ্চভুজ বা ষড়ভুজাকার হয়;
  • পেকটিনওসেলুলোজ নির্মিত এবং পাতলা;
  • এই কোষে সাধারণত সেকেন্ডারি কোষ প্রাচীর থাকে না;
  • কোষে ঘন দানাদার সাইটোপ্লাজম ও বড় আকারের নিউক্লিয়াস থাকে;
  • কোষে সাধারণত কোনো কোষ গহ্বর থাকে না থাকলেও আকারে ক্ষুদ্র ও সংখ্যায় অগণিত যাদের প্রো ভ্যাকুওল বলে;
  • কোষগুলো আকারে ছোট এবং দৈর্ঘ্য প্রস্থের প্রায় সমান;
  • কোষে বিদ্যমান প্লাস্টিড আদি প্রকৃতির ( প্রো-প্লাস্টিড);
  • এ টিস্যু বিপাক হার বেশি বলে কোষে কোনো প্রকার বর্জ্য পদার্থ, সঞ্চিত খাদ্য ও ক্ষরিত পদার্থ থাকে না;
  • এই টিস্যু সাধারণত মূল ও কান্ডের অগ্রভাগে অবস্থান করে;
  • ভাজক কলার কোষগুলোর মাঝে সাধারণত কোনো আন্তঃকোষীয় ফাঁক থাকে না৷

ভাজককলার প্রকারভেদ[সম্পাদনা]

  • উৎপত্তি অনুসারে ৩ প্রকার
    • প্রারম্ভিক
    • প্রাইমারি
    • সেকেন্ডারি
  • অবস্থান অনুসারে ৩ প্রকার
    • শীর্ষস্থ
    • স্থায়ী টিস্যু মধ্যস্থ
    • পার্শ্বীয়
  • বিভাজন অনুসারে ৩ প্রকার
    • মাস
    • প্লেট
    • রিব
  • কাজ অনুসারে ৩ প্রকার

[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. মাধ্যমিক জীববিজ্ঞান