বোর্টসগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাউরসাক
Boortsog.JPG
ঘরেতৈরি বোর্টসগ
অন্যান্য নামবোরসক, বৌইরসাক, বাউরসাক
ধরনভাঁজা ময়দার পিণ্ড
প্রকারমিষ্টান
প্রধান উপকরণমাখন, লবণ পানি, দুধ, ইস্ট, ময়দা
রন্ধনপ্রণালী: বাউরসাক  মিডিয়া: বাউরসাক

বোর্টসগ, বোরসক, বৌইরসাক, বা বাউরসাক ( কাজাখ: бауырсақ কিরগিজ: боорсок [boːrˈsoq], মঙ্গোলীয়: боорцог রুশ: баурсак, তাতার: Cyrillic бавырсак, Latin bawırsaq, উজবেক: bog'irsoq তাজিক: бусроқ [buˈsrɒq], তুর্কী: pişi, bişi, tuzlu lokma, halka, তুর্কমেনীয়: pişme) হচ্ছে মধ্য এশিয়া, আইডেল-উরাল, মঙ্গোলিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যের রন্ধনশৈলীতে প্রাপ্ত ভাজা ডোনাট জাতীয় এক প্রকার খাদ্য।[১] এটি ত্রিভুজাকৃতির বা কখনও কখনও গোলাকারও হয়ে থাকে।[২] মাখানো এই ময়দার তালে ময়দা, ইস্ট, দুধ, ডিম, মার্জারিন (কৃত্রিম মাখন), লবণ, চিনি এবং চর্বি রয়েছে।[৩] তাজিক বোটর্সগ ভাঁজার আগে প্রায়ই ময়দার তালের উপর একটি ছোট চালনীর নীচে চাপ দিয়ে একটি আড়াআড়ি ভঙ্গিতে সজ্জিত করা হয়।

বোর্টসগ প্রায়ই চিনি, মাখন বা মধু দিয়ে মিষ্টান হিসাবে খাওয়া হয়। এগুলোকে কুকি বা বিস্কুট হিসাবে মনে করা হতে পারে, ফলে এগুলোকে ভাজা হয়, এগুলোকে কখনও কখনও আবার ডোনাটের সঙ্গে তুলনাও করা হয়। মঙ্গোলিয়ান এবং তুর্কি জাতির লোকেরা মাঝে মাঝে চাতে ডুবিয়ে খায়। মধ্য এশিয়ায়, বোরসাকি প্রায়ই শর্বার পাশাপাশি খাওয়া হয়।[৪]

প্রস্তুতপ্রণালী[সম্পাদনা]

বোর্টসগের জন্য মাখানো ময়দার উপকরণ একটি সাধারণ মালকড়ি থেকে শুরু করে, একটি মিষ্টি, মচমচে মালকড়ি পর্যন্ত হয়ে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, একটি সাধারণ কিরগিজ রেসিপিতে এক অংশ মাখন, ৭ অংশ লবণ জল, এবং ৬ অংশ দুধ, ইস্ট ও ময়দার সাথে থাকে, যেখানে অধিক জটিল রেসিপিতে ডিম ও চিনি যুক্ত করা হয়।

চেপটা ময়দার পিণ্ডকে টুকরা টুকরা করে কেটে বোর্টসগ তৈরি করা হয়। সাধারণত মধ্য এশিয়ার রীতিতে কাজ না করলে, এই টুকরাগুলো ডুবু করে ভাঁজার আগেই মূর্ত হয়ে বিভিন্ন আকারে বেঁকে যেতে পারে। যা মঙ্গোলিয়ানদের মধ্যে খুবই সাধারণ। মালকরিগুলোকে ডুবু ভেজে সোনালী বাদামী রংয়ের করে তোলা হয়। অতিরিক্ত আস্বাদন প্রদান করার জন্য ঐতিহ্যগতভাবে মঙ্গোলিয়ানরা বোর্টসগের মধ্যে ভেড়ার চর্বি দিয়ে থাকে, কিন্তু এর পরিবর্তে উদ্ভিজ্ তেলও ব্যবহৃত হতে পারে।[৫][৬][৭]

বিশ্ব রেকর্ড[সম্পাদনা]

২০ এপ্রিল ২০১৪ সালে রাশিয়ার উফায় বৃহত্তম (১৭৯ কেজি) বোর্টসগ তৈরি করা হয়েছিল। প্রস্তুতির জন্য ১,০০৬টি ডিম, ২৫ কেজি চিনি, ৭০ কেজি ময়দা, ৫০ কেজি বাশকির মধু ব্যবহার করা হয়।[৮] ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ সালে মা দিবস উদযাপনের সময় একটি গিনেস রেকর্ড তৈরি করে নেয়, যখন একই দিনে ৮৫৬ কিলোগ্রাম বোর্টসগ একই জায়গায় রান্না করা হয়। উদযাপন কালে বউ ও শাশুড়ীদের দলের মধ্যে একটি রন্ধনসম্পর্কীয় যুদ্ধ হিসাবে প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় সাতটি দল অংশ নেয়।[৯]

চিত্রসম্ভার[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]