বেইজিং রিভিউ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বেইজিং রিভিউ
পিকিং রিভিউ-১৩ অক্টোবর, ১৯৫৯.png
পিকিং রিভিউর প্রথম পাতা (১৩ই অক্টোবর, ১৯৫৯)
ধরনসাপ্তাহিক পত্রিকা
প্রতিষ্ঠাকালমার্চ, ১৯৫৮
রাজনৈতিক মতাদর্শচীনের কমিউনিস্ট পার্টি
ভাষাইংরেজি, জাপানি, ফরাসি, জার্মানচীনা[১]
দাপ্তরিক ওয়েবসাইটwww.bjreview.com.cn

বেইজিং রিভিউ (চীনা: 北京周報; ফিনিন: běi jīng zhōu bào) হল চীনের একমাত্র ইংরেজিতে প্রকাশিত ম্যাগাজিন। চায়না ইন্টারন্যাশনাল পাবলিশিং গ্রুপ প্রকাশিত এ ম্যাগাজিনের প্রতি সংখ্যার সার্কুলেশন ৭০,০০০ এবং "পুরো চীন এবং বিশ্বের ১৫০টি রাষ্ট্র ও বেশকিছু অঞ্চলে" এই ম্যাগাজিন যায় বলে দাবি করা হয়।"[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৫৮ সালের ৪ঠা মার্চ সাপ্তাহিক পিকিং রিভিউ নামে প্রকাশ শুরু হয় এই ম্যাগাজিনের। ঝোউ এনলাই-এর পরামর্শে পিপলস চায়না নামের পাক্ষিক ম্যাগাজিনের স্থলে এই ম্যাগাজিনের কথা চিন্তা করা হয়। পিপলস চায়না ১৯৫০ সাল থেকে ১৯৫৭'র ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রকাশিত হয়েছিল।[৩]

শুরু থেকেই গণচীনের সরকারের সাথে পুরো বিশ্বের যোগাযোগের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে এই ম্যাগাজিন কাজ করত। এর প্রথম সংখ্যায় সম্পাদকীয়তে ম্যাগাজিনটির সম্পাদক জানান, যে ম্যাগাজিনটি "চীনের অর্থনীতি, রাজনীতি ও সাংস্কৃতিক উন্নয়ন, এবং সেইসাথে বিশ্বের সাথে চীনের সম্পর্ক ইত্যাদি বিষয় সময়ময়, যথাযথ এবং সর্বাগ্রে তথ্য সরবরাহ করতে চায়।"[৪] ১৯৭৯ সালের পত্রিকাটির নাম বদলে যায়। এ বছরের প্রথম সংখ্যা থেকেই বেইজিং রিভিউ হিসেবে পত্রিকাটি প্রকাশিত হতে থাকে। বৈদেশিক ভাষায় প্রকাশনার উপরে পিনয়িন বর্ণান্তরকরণ নিয়ম আরোপ করায় পত্রিকাটির নাম পরিবর্তন করা হয়।[৫]

অন্যান্য ভাষার সংস্করণ[সম্পাদনা]

৪ঠা মার্চ, ১৯৫৮ সালে ইংরেজিতে ম্যাগাজিনটি চালু হয়। পরবর্তীতে মার্চ, ১৯৬৩ সাল থেকে ফরাসীস্প্যানিশ ভাষায় দ্বি-সাপ্তাহিক হিসেবে ম্যাগাজিনটির প্রকাশ চলতে থাকে। ১৯৬৪ সালের ১লা জানুয়ারি থেকে এ ভাষাগুলোতেও সাপ্তাহিক হিসেবেই এর প্রকাশ চলতে থাকে। আগস্ট, ১৯৬৩ সালে পত্রিকাটির জাপানি ও জানুয়ারি, ১৯৬৪ সালে ইন্দোনেশীয় সংস্করণ চালু হয়। ২২শে সেপ্টেম্বর, ১৯৬৪ থেকে এর জার্মান সংস্করণ চালু হয় পিকিং রুন্ডেসচাউ নামে। ১৯৭০-এর শেষ দিকে আরবি সংস্করণ চালু করা হয়।[৫]

অনলাইন সংস্করণ[সম্পাদনা]

ইংরেজি ভাষায় মুদ্রিত সংস্করণ ছাড়াও চীনা, ইংরেজি, ফরাসি, জাপানি ও জার্মান ভাষায় বেইজিং রিভিউর অনলাইন সংস্করণ রয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে এ ম্যাগাজিনটি আইপ্যাড সংস্করণের পাশাপাশি বহুভাষিক ই-ম্যাগাজিন, মোবাইল ফোন, ই-মেইল নিউজলেটার চালু করেছে। পত্রিকাটির একটি সমৃদ্ধ সংগ্রহশালাও রয়েছে। বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ১ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে।[৬]

প্রকাশক[সম্পাদনা]

বেইজিং রিভিউর সম্পাদক ও অনুবাদকেরা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বৈদেশিক ভাষার অন্যান্য প্রেস এবং ম্যাগাজিনের সাথে যুক্ত থাকেন।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About BEIJING REVIEW"। ২৬ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৩ 
  2. "Beijing Review: Introduction"Beijing Review.com। ২০ ডিসেম্বর ২০০৬। ২৬ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১০ 
  3. "Zhou Enlai" 
  4. "Peking Review" (PDF)। ৪ মার্চ ১৯৫৮। At marxists.org। ৬ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা (PDF)। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১০ 
  5. "Peking Review / Beijing Review" 
  6. "Online & iPad edition" 
  7. "Beijing Rundschau"। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]