বিষয়বস্তুতে চলুন

বিবেক তীর্থ

স্থানাঙ্ক: ২২°৩৫′৩৬″ উত্তর ৮৮°২৮′২১″ পূর্ব / ২২.৫৯৩৩° উত্তর ৮৮.৪৭২৬° পূর্ব / 22.5933; 88.4726
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বিবেক তীর্থ
মানচিত্র
বিকল্প নামরামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ সেন্টার ফর হিউম্যান এক্সেলেন্স অ্যান্ড সোশ্যাল সাইন্সেস
সাধারণ তথ্য
অবস্থাসম্পূর্ণ
ঠিকানাঅ্যাকশন এরিয়া-২, নিউ টাউন, কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, পিন: ৭০০১৫৬
দেশভারত
স্থানাঙ্ক২২°৩৫′৩৬″ উত্তর ৮৮°২৮′২১″ পূর্ব / ২২.৫৯৩৩° উত্তর ৮৮.৪৭২৬° পূর্ব / 22.5933; 88.4726
নির্মাণকাজের আরম্ভ উদযাপন১১ নভেম্বর ২০১৪; ৯ বছর আগে (2014-11-11)
নির্মাণকাজের আরম্ভ৩ মার্চ ২০১৬; ৮ বছর আগে (2016-03-03)
নির্মাণব্যয় ১৬০ কোটি (ইউএস$ ১৯.৫৬ মিলিয়ন)
ভূতল৫ একর (২০,০০০ বর্গমিটার)
গণপরিবহন সুবিধাইকো পার্ক মেট্রো স্টেশন
ওয়েবসাইট
belurmath.org/ramakrishna-mission-new-town-viveka-tirtha

বিবেক তীর্থ বা রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ সেন্টার ফর হিউম্যান এক্সেলেন্স অ্যান্ড সোশ্যাল সাইন্সেস ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতা শহরের উপকণ্ঠে নিউ টাউনে অবস্থিত এক সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা কেন্দ্র। এটি স্বামী বিবেকানন্দকে উৎসর্গ করে নির্মিত। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১১ নভেম্বর ২০১৪-এ বিবেক তীর্থের শিলান্যাস করেছিলেন।[১]

অবস্থান[সম্পাদনা]

বিবেক তীর্থ নিউ টাউনের অ্যাকশন এরিয়া-২ অঞ্চলে বিশ্ব বাংলা সরণিতে ইকো পার্কের ১ নং গেটের পাশে অবস্থিত। ৬ নং মেট্রো লাইনের ইকো পার্ক মেট্রো স্টেশন এই বিবেক তীর্থ এলাকায় পরিষেবা প্রদান করবে।[২][৩][৪]

বিবরণ[সম্পাদনা]

বিবেক তীর্থ রামকৃষ্ণ মিশনের অধীন এক সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা কেন্দ্র। ২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এর প্রস্তাব করেছিল এবং ১১ নভেম্বর ২০১৪-এ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের তৎকালীন সাধারণ সচিব স্বামী সুহিতানন্দজী এর শিলান্যাস করেছিলেন।[৫][৬] বিবেক তীর্থ ১০-তলা প্রধান ভবন এবং ভগিনী নিবেদিতা, জে. জে. গুডউইন, ওল সারা বুল ও জোসেফাইন ম্যাকলিয়ডের নামে চারটি ভবন নিয়ে গঠিত। নিবেদিতা, গুডউইন, বুল ও ম্যাকলিয়ড প্রত্যেকেই স্বামী বিবেকানন্দের চার বিদেশি শিষ্য ছিলেন। প্রধান ভবনটি আর্ট ইনস্টিটিউট অব শিকাগোর আদলে তৈরি, যেখানে বিবেকানন্দ ১১ সেপ্টেম্বর ১৮৯৩-এ তাঁর বিখ্যাত বক্তৃতা দিয়েছিলেন।[৩] এতে প্রশাসনিক কার্যালয় ও ১,৪০০টি আসনের অডিটোরিয়াম রয়েছে। অন্যান্য ভবনে ডিজিটাল গ্রন্থাগার, প্রদর্শনী কক্ষ ও ধ্যান কক্ষ রয়েছে। বিবেক তীর্থ ক্যাম্পাস ৫ একর (২০,০০০ বর্গমিটার) ক্ষেত্র জুড়ে বিস্তৃত। শিলান্যাসের দুই বছর পর মার্চ ২০১৬-এ এর নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল এবং এর খরচ বাবদ  ১৬০ কোটি (ইউএস$ ১৯.৫৬ মিলিয়ন)[৬] পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য উচ্চশিক্ষা পরিষদ ও নবদিগন্ত ইন্ডাস্ট্রিয়াল টাউনশিপ অথরিটি যথাক্রমে ২ কোটি (ইউএস$ ২,৪৪,৪৬৬) ৭ কোটি (ইউএস$ ০.৮৬ মিলিয়ন) দান করেছিল।[৪] কর্পোরেট ও পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিংও এর নির্মাণের জন্য অর্থদান করেছিল।[৫] চরিত্র নির্মাণ, যোগাযোগের দক্ষতা, অভিভাবকদের উৎসাহ দান, চাপ নিয়ন্ত্রণ, মন নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি বিষয়ে সেখানে পড়ানো হয়।[১][২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bureau, M. Post (২০১৬-০৩-০৪)। "Construction work of Vivek Tirtha begins"millenniumpost.in (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১১ 
  2. donationsbm। "Ramakrishna Mission Vivekananda Centre for Human Excellence and Social Sciences (Viveka Tirtha), New Town, Kolkata"Belur Math – Ramakrishna Math and Ramakrishna Mission (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১১ 
  3. "Vivek Tirtha – A tribute to the great saint"aitcofficial.org। ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০২১ 
  4. "Viveka Tirtha, one-of-a-kind institute dedicated to Swami Vivekananda, to come up soon – ABPEducation"abpeducation.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-০১-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১১ 
  5. "VIVEKA TIRTHA Ramakrishna Mission Vivekanda Centre for Human Excellence and Social Sciences"thecommontimes.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১৬ 
  6. Goswami, Tarun (২০২০-১২-২৬)। "Work on RKM Centre for Human Excellence in full swing"millenniumpost.in (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]