ফাজিলকা জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফাজিলকা জেলা
ਫ਼ਾਜ਼ਿਲਕਾ ਜ਼ਿਲ੍ਹਾ
জেলা
ফাজিলকা জেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩০°২৪′১১″ উত্তর ৭৪°০১′৩০″ পূর্ব / ৩০.৪০৩° উত্তর ৭৪.০২৫° পূর্ব / 30.403; 74.025স্থানাঙ্ক: ৩০°২৪′১১″ উত্তর ৭৪°০১′৩০″ পূর্ব / ৩০.৪০৩° উত্তর ৭৪.০২৫° পূর্ব / 30.403; 74.025
দেশ ভারত
রাজ্যপাঞ্জাব
ভাষাসমূহ
 • সরকারীপাঞ্জাবী
সময় অঞ্চলIST (ইউটিসি+5:30)
ফাজিলকা জেলা সৃষ্টির আগে, পাঞ্জাবের জেলাগুলি, তাদের সদর দপ্তর সহ।

ফাজিলকা জেলা (পাঞ্জাবী: ਫ਼ਾਜ਼ਿਲਕਾ ਜ਼ਿਲ੍ਹਾ, প্রতিবর্ণী. ফ়াজ়িলকা জ়িল্হা) উত্তর-পশ্চিম ভারতীয় প্রজাতন্ত্রে, পাঞ্জাব রাজ্যের ২২টি জেলার মধ্যে অন্যতম নতুন জেলা। এই জেলায় ৩১৪টি রাজস্ব গ্রাম আছে।

ফাজিলকা জেলার  সদর দপ্তর  ফাজিলকা শহর। আবোহার এই জেলার বৃহত্তম শহর।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২৭ জুলাই ২০১১ সালে, ফাজিলকা জেলাকে পাঞ্জাব সরকারের দ্বারা পাঞ্জাবের ২১তম জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়.[১] তার আগে  ফাজিলকা ফিরোজপুর জেলার অন্তর্ভুক্ত ছিল।

অবস্থান[সম্পাদনা]

এটা পাকিস্তান সীমান্তের পাশে অবস্থিত। উত্তরে ফিরোজপুর জেলা, শ্রী মুক্তসার সাহিব এর পূর্বে, দক্ষিণে রাজস্থান এবং পাকিস্তান পশ্চিমে। এটি ফজল দীন দ্বারা অধিষ্ঠিত ছিল এবং নাম ছিল বাংলা। 

ভূগোল[সম্পাদনা]

 গ্রীষ্মকালে খুব গরম এবং শীতকালে খুব ঠান্ডার জন্য, এটির জলবায়ু চরভাবাপন্ন। শতদ্রু নদী, জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়ে  ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত দিয়ে পাকিস্তানেের দিকে প্রবাহিত হয়।

প্রশাসন[সম্পাদনা]

জেলা প্রশাসকই, জেলার সিইও। ২০১৪ সালে মনজিত ব্রার, আইএএস,  ফাজিলকা জেলা প্রশাসক হন। জেলাটি প্রশাসনিকভাবে নিম্নলিখিত তহশিলের বিভক্ত :

আবোহার শহর, ফাজিলকা জেলার বৃহত্তম শহর।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

ভারতের ১৯৬১ সালের  জনগণনা অনুসারে, ফিরোজপুর জেলার ফাজিলকা তহশীল এর ৬০.২% মানুষ হিন্দি, তাদের ভাষা হিসাবে নিবন্ধিত করেছে এবং কেবলমাত্র ৩৯.৪% পাঞ্জাবী ভাষাকে তাদের ভাষা হিসাবে নিবন্ধিত করেছে।

ক্রম ভাষা 1961 সালের আদমশুমারী[২]
হিন্দি ৬০.২%
পাঞ্জাবী ৩৯.৪%
অন্যান্য ০.৪%

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]