নিম্ন অস্ট্রিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নিম্ন অস্ট্রিয়া
Niederösterreich নিডারও্যস্টার্‌রাইশ
অস্ট্রিয়ার রাজ্য
নিম্ন অস্ট্রিয়ার পতাকা
পতাকা
নিম্ন অস্ট্রিয়ার প্রতীক
প্রতীক
নিম্ন অস্ট্রিয়ার অবস্থান
রাষ্ট্র অস্ট্রিয়া
রাজধানীসাঙ্কট পোল্টন
সরকার
 • গভর্নরআর্ভিন প্রোল (ÖVP)
আয়তন
 • মোট১৯১৮৬ কিমি (৭৪০৮ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা
 • মোট১৬,৩৬,২৮৭
 • ঘনত্ব৮৫/কিমি (২২০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলCET (ইউটিসি+1)
 • Summer (ডিএসটি)CEST (ইউটিসি+2)
আইএসও ৩১৬৬ কোডAT-3
NUTS RegionAT1
Votes in Bundesrat12 (of 62)
ওয়েবসাইটwww.noe.gv.at

নিম্ন অস্ট্রিয়া (জার্মান: Niederösterreich, উচ্চারণ [ˈniːdɐˌʔøːstɐʀaɪ̯ç]   ( listen) , চেক: Dolní Rakousy, স্লোভাক: Dolné Rakúsko) অস্ট্রিয়ার নয়টি রাজ্যের অন্যতম। এটি অস্ট্রিয়ার উত্তর-পূর্বে অবস্থিত। ১৯৮৬ সাল থেকে রাজ্যটির রাজধানী সাঙ্কট পোল্টন। এর আগে রাজ্যটির রাজধানী ছিল ভিয়েনা, যদিও ভিয়েনা ভৌগলিকভাবে নিম্ন অস্ট্রিয়ার ভৌগোলিক সীমানার অভ্যন্তরে অবস্থিত নয়। নিম্ন অস্ট্রিয়ার ভৌগোলিক আয়তন ১৯,১৮৬ বর্গ কিলোমিটার এবং জনসংখ্যা ১.৬১২ মিলিয়ন। আয়তনের দিক থেকে এটি অস্ট্রিয়ার সবচেয়ে বড় রাজ্য এবং জনসংখ্যার দিক থেকে ভিয়েনার পরেই এর অবস্থান।

ভূগোল[সম্পাদনা]

ঊর্ধ্ব অস্ট্রিয়ার পূর্বে, দানিউব নদীর তীরে নিম্ন অস্ট্রিয়া অবস্থিত। নদীটি পশ্চিম থেকে পূর্বে প্রবাহিত হয়েছে। নিম্ন অস্ট্রিয়ায় ৪১৪ কিলোমিটারব্যাপী চেক প্রজাতন্ত্র এবং স্লোভাকিয়ার সাথে আন্তর্জাতিক সীমানা রয়েছে। এছাড়া অস্ট্রিয়ার অভ্যন্তরে ঊর্ধ্ব অস্ট্রিয়া, স্টিরিয়া এবং বুর্গেনল্যান্ড রাজ্যগুলির সাথে নিম্ন অস্ট্রিয়ার সীমানা রয়েছে। ভৌগোলিকভাবে নিম অস্ট্রিয়া চারটি অঞ্চলে বিভক্ত, এগুলোকে বলে ফিরটেল:

  • ভাইনফিরটেল
  • ভাল্ডফিরটেল
  • মোস্টফিরটেল
  • ইন্ডুস্ট্রিফিরটেল

এই অঞ্চলগুলির নিজস্ব ধরণের ভূতাত্ত্বিক গঠন রয়েছে। মোস্টফিরটেল প্রধাণত লাইমস্টোন আল্পস পর্বতের পাদদেশে অবস্থিত, এখানে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২০০০ মিটার উচ্চতাবিশিষ্ট পর্বত রয়েছে। ভাল্ডফিরটেলের অধিকাংশ স্থান গ্রানাইট ভূস্তর দ্বারা গঠিত। দক্ষিণে ভিয়েনা অববাহিকা থেকে ভাল্ডফিরটেলকে পৃথক করেছে দানিয়ুব নদী।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

নিম্ন অস্ট্রিয়ার ইতিহাস অস্ট্রিয়ার ইতিহাসের অনুরূপ। নিম্ন অস্ট্রিয়াতে অনেক প্রাসাদ ও রাজবাড়ি রয়েছে। এখানে অবস্থিত ক্লসটারনয়বুর্গ আবে অস্ট্রিয়ার অন্যতম প্রাচীন মঠ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে নিম্ন অস্ট্রিয়াতে অস্ট্রিয়ার সর্বোচ্চ সংখ্যক ইহুদী বসবাস করতো।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]