নরম্যান প্যাট্রিজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নরম্যান প্যাট্রিজ
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম(১৯০০-০৮-১০)১০ আগস্ট ১৯০০
গ্রেট বার, বার্মিংহাম, ইংল্যান্ড
মৃত্যু১০ মার্চ ১৯৮২(1982-03-10) (বয়স ৮১)
আবেরিস্টিদ, ওয়েলস
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১১২
রানের সংখ্যা ২৭১৯
ব্যাটিং গড় ১৮.৬২
১০০/৫০ ১৪/১
সর্বোচ্চ রান ১০২
বল করেছে ২০০৫৬
উইকেট ৯০৪৭
বোলিং গড় ২৩.০২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৭/৬৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৬ জানুয়ারি ২০১৯

নরম্যান আর্নেস্ট প্যাট্রিজ (ইংরেজি: Norman Partridge; জন্ম: ১০ আগস্ট, ১৯০০ - মৃত্যু: ১০ মার্চ, ১৯৮২) বার্মিংহামের গ্রেট বার এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ইংরেজ প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট তারকা ছিলেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। এছাড়াও, কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে খেলেছেন তিনি।[১] দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার ছিলেন নরম্যান প্যাট্রিজ

ম্যালভার্ন কলেজের ছাত্র ছিলেন তিনি। ম্যালভার্ন কলেজে অধ্যয়ন শেষে কেমব্রিজের পেমব্রুক কলেজে ভর্তি হন। ১৯২০ সালে এক বছর সেখানে ছিলেন। বৃষ্টিবিঘ্নিত বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে ব্লু লাভ করেন।[২]

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের কারণে পূর্ববর্তী মৌসুমে কোন প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলার আয়োজন করা হয়নি। ফলে, ১৯১৯ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননা লাভ করেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে সফলতা লাভ করলেও টেস্ট ক্রিকেটের ন্যায় আন্তর্জাতিক স্তরের ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ হয়নি তার।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি কার্যকরী ফাস্ট-মিডিয়াম ইনসুইঙ্গারের কারণে ১৯১৯ সালে লর্ডসে শৌখিন ও পেশাদার ক্রিকেটারদের দল জেন্টলম্যান বনাম প্লেয়ার্সের মধ্যকার বার্ষিক খেলার জন্যে মনোনীত হন। এটিই ঐ মৌসুমের প্রধান আকর্ষণ ছিল। তবে, তিনি এ সুযোগ গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানান। অবশেষে, ১৯৩৬ সালে খেলোয়াড়ী জীবনের শেষদিকে জেন্টলম্যান বনাম প্লেয়ার্সের মধ্যকার খেলায় তার অংশগ্রহণ ঘটে। লর্ডসের পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচীর তুলনায় ফোকস্টোনে এ খেলাটি মৌসুমের সর্বশেষ উৎসবে আয়োজন করা হয়।[৩]

১৯২১ থেকে ১৯৩৭ সাল পর্যন্ত ওয়ারউইকশায়ারের পক্ষে সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবন অতিবাহিত করেন। শুরুরদিকে নিয়মিতভাবে খেললেও পরবর্তীতে কদাচিৎ অংশ নিতেন। ব্যাট হাতে নিচেরদিকে মাঠে নামতেন। ১৮.৬২ গড়ে রান তুলেছেন ও নিয়মিতভাবে বোলিং উদ্বোধনে নামতেন। সকল প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ২,৭০০ এর অধিক রান তুলেছেন ও ৩৯৩ উইকেট পান।[১]

দেহাবসান[সম্পাদনা]

১০ মার্চ, ১৯৮২ তারিখে ওয়েলসের আবেরিস্টিদে ৮১ বছর বয়সে নরম্যান প্যাট্রিজের দেহাবসান ঘটে। উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাকে তার মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ করা হয়। এতে তার বোলিং ভঙ্গীমার বৈধতার বিষয়ে ক্ষাণিকটা সংশয় তুলে ধরা হয়েছিল। তবে, তিনি কখনো বল ছুঁড়ে মারার ঘটনার শিকারে পরিণত হননি।[৪] সেখানে উল্লেখ করা হয় যে, একজন ব্যাটসম্যান যিনি ব্যাপকভাবে বোলিং করতেন এবং উইকেটের পিছনে দণ্ডায়মান টাইগার স্মিথ ধিক্কার জানাতেন। ‘তিনি বল ছুঁড়ে মারতেন এবং তা বেশ ভালোভাবেই করতেন।’

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Norman Partridge"। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  2. "Scorecard: Oxford University v Cambridge University"। www.cricketarchive.com। ৫ জুলাই ১৯২০। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  3. "Scorecard: Gentlemen v Players"। www.cricketarchive.com। ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৩৬। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  4. "Obituary"। Wisden Cricketers' Almanack (1983 সংস্করণ)। Wisden। পৃষ্ঠা 1252। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]