দুর্যোধন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দূর্যোধন
Duryodhana
দূর্যোধন দ্রোণাচার্যকে তার সৈন্যদের প্রদর্শন করাচ্ছেন
পদবিহস্তিনাপুর রাজ্যের "যুবরাজ"
অস্ত্রগদা
পরিবারধৃতরাষ্ট্র (পিতা)
গান্ধারী (মাতা)
দাম্পত্য সঙ্গীভানুমতী
সন্তানলক্ষণ কুমার, লক্ষণা
ধর্মহিন্দুধর্ম

দূর্যোধন হলেন মহাভারতের একটি চরিত্র। তিনি কৌরব পক্ষের যুবরাজ ছিলেন। তার পিতার নাম ধৃতরাষ্ট্র এবং মাতার নাম গান্ধারী। তিনি ধৃতরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ সন্তান এবং দুঃশাসনের বড় ভাই।[১]

জন্ম[সম্পাদনা]

ধৃতরাষ্ট্রের ঔরসে গান্ধারীর গর্ভে জন্ম হয়েছিল দুর্যোধনের। গান্ধার-রাজ সুবলের একমাত্র মেয়ে গান্ধারী ভগবান মহাদেব-এর কৃপা পেলে মহাদেব তাকে একশ' পুত্র পাবার বর বা আশির্বাদ দেন। তবে ঐ সময় গান্ধারীর মনে মেয়ে সন্তান পাবার আশা ছিল। তাই দুর্যোধনসহ তাদের ১০০জন ভাই-এর সাথে দুঃশলা নামের একমাত্র বোনের জন্ম হয়। দুর্যোধন এবং ভীম একই দিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ভীম দিবাভাগে এবং দুর্যোধন রাত্রিভাগে জন্মগ্রহণ করেন। জন্মের সময় দুর্যোধন গাধার মতো গর্জন করেছিলেন। একই সাথে কাক, শৃগাল, শকুন, হায়েনা প্রভৃতি পশুপাখি অমঙ্গলসূচক শব্দে উচ্চস্বরে চিৎকার করতে শুরু করল। বিভিন্ন লক্ষণ বিবেচনা করে বিদুর ও অন্যান্য ব্রাহ্মণ পণ্ডিতেরা তাকে কুরু বংশের ধ্বংসের কারণ হিসাবে চিহ্নিত করেন। অনেকে তার পিতাকে এই কুলক্ষণযুক্ত পুত্রকে ত্যাগ করার পরামর্শ দেন। পুত্রস্নেহে অন্ধ হয়ে তিনি তাতে অসম্মতি প্রকাশ করেন। তাই শেষ পর্যন্ত দুর্যোধন রাজপরিবারেই প্রতিপালিত হন।

পাশা খেলা[সম্পাদনা]

পাণ্ডবরা তাদের খাণ্ডবপ্রস্থ-এ একবার দুর্যোধনসহ সবাইকে নিমন্ত্রণ করলে তারা সবাই গেলে পাণ্ডবরা তাদের সবাইকে অপমান করেন। আর এতে দুর্যোধন রাগান্বিত হয়ে মামা শকুনি-এর সাথে পরামর্শ করে পাশা খেলার আয়োজন করেন। যার পরিণতি ছিল কুরুক্ষেত্র যুদ্ধ এবং দুর্যোধন, মামা শকুনিসহ শত ভাইয়ের মৃত্যু হয়।

কুরুক্ষেত্র যুদ্ধ[সম্পাদনা]

দুর্যোধনই ছিলেন কুরুক্ষেত্র যুদ্ধের মূল কারণ।

তথ্য সূত্র[সম্পাদনা]

https://web.archive.org/web/20140203224452/http://www.onushilon.org.bd/myth/hindu/durbh.htm http://archives.anandabazar.com/archive/1120129/29binodan.html

  1. http://www.ebangladictionary.com/31881[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]