তিমুরের সমাজতান্ত্রিক দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তিমুরের সমাজতান্ত্রিক দল

Partido Socialista de Timor
সংক্ষেপেপিএসটি
প্রেসিডেন্টএভেলিনো কোয়েলহো দা সিলভা
ভাইস প্রেসিডেন্টডোমিঙ্গস কাইরেসি
১ম মহাসচিবপেড্রো সারমেন্টো
২য় মহাসচিবএনা পেরেইরা সোয়ার্স
৩য় মহাসচিবজোনিকা পেরেইরা ডোস সান্তোস
প্রতিষ্ঠা২০ ডিসেম্বর ১৯৯০ (1990-12-20)
সদর দপ্তররুয়া কোলেজিও ডাস মাদ্রেস বালাইড, কুইন্টাল বট., দিলি, পূর্ব তিমুর
মতাদর্শসাম্যবাদ
মার্কসবাদ-লেনিনবাদ[১]
রাজনৈতিক অবস্থানবামপন্থী
জাতীয় আইনসভা (পূর্ব তিমুর)
০ / ৬৫
দলীয় পতাকা
Bandeira do Partido Socialista de Timor.png

তিমুরের সমাজতান্ত্রিক দল (পর্তুগিজ: Partido Socialista de Timor; abbreviated PST) পূর্ব তিমুরের একটি মার্কসবাদী-লেনিনবাদী রাজনৈতিক দল।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৯৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পূর্ব তিমুর ইন্দোনেশীয় শাসনাধীন থাকা অবস্থায় তিমুরের সমাজতান্ত্রিক দল প্রতিষ্ঠিত হয়। (যদিও দলটি দাবি করে, এটি আরও পূর্বে ১৯৯০ সালে ২০ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিল)[১] ফ্রেটিলিন নামক রাজনৈতিক দল বিভিন্ন কারণে ভাঙ্গনের শিকার হলে এভেলিনো মারিয়া দা সিলভা কোয়েলহো, পেড্রো মারটায়ার্স দা কোস্তা এবং এন্তোনিও লোপেস ফ্রেটিলিন থেকে বেরিয়ে এসে তিমুরের সমাজতান্ত্রিক দল প্রতিষ্ঠা করে। ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তা এবং অন্যান্য ইন্দোনেশীয় শহরগুলোর ছাত্র ও শ্রমিকগোষ্ঠী পিএসটি দলের ভিত্তি গড়ে তোলে। এসব স্থানে পূর্ব তিমুরীয় ছাত্র ও শ্রমিকেরা দলের সদস্য বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখে।[১] ২০০০ সালের ১০-১১ ফেব্রুয়ারি দলটির প্রথম জাতীয় মহাসমাবেশ পূর্ব তিমুরের রাজধানী দিলিতে অনুষ্ঠিত হয়।[১]

সংগঠন[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক কার্যালয়, একটি কেন্দ্রীয় কমিটি এবং শ্রমিক, নারী ও যুব অঙ্গসংগঠন নিয়ে পিএসটির রাজনৈতিক কাঠামো গঠিত। দলটি ভানগুয়ার্দা নামক নিউজলেটারও প্রকাশ করে থাকে। পর্তুগাল, পশ্চিম ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ার বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ও শ্রমিক সংঘের সাথে পিএসটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক রয়েছে।[১]

রাজনৈতিক উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

২০০২ সালের ২০শে ফেব্রুয়ারি স্বাধীনতা পুনরুদ্ধারের পূর্ব পর্যন্ত পিএসটি পূর্ব তিমুরীয় জনগণের ভবিষ্যৎ জাতীয় স্বাধীনতা রক্ষার্থে ইন্দোনেশিয়া প্রজাতন্ত্রের সাথে পূর্ব তিমুরের একীভূত হওয়ার বিরোধিতা করে। স্বাধীনতা অর্জনের পর পিএসটি একটি সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে পূর্ব তিমুরকে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ শুরু করে। সমবায় আন্দোলন, বিশেষ করে কৃষি ও শক্তিশালী সরকারী খাত গঠনে পিএসটি জোর প্রদান করে থাকে।[২]

নির্বাচলে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

২০০১ সালের ৩০ আগস্টে অনুষ্ঠিত পূর্ব তিমুরের সংসদীয় নির্বাচনে দলটি ১.৮% ভোট পায় এবং ৮৮টি আসনের মধ্যে ১টি আসনে জয়লাভ করে। ২০০৭ সালের ৩০ জুনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় নির্বাচনে পিএসটি মোট ভোটের ০.৯৬% ভোট পায়। তবে আসন জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ৩% ভোট না পাওয়ায় দলটি একটি আসনেও জয়লাভ করতে পারেনি।[৩]

২০০৭ সালের সংসদীয় নির্বাচনে পিএসটি ১%-এর চেয়েও কম ভোট লাভ করে এবং একটি আসনেও জয়লাভ করতে ব্যর্থ হয়।[১] ২০০৭ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে পিএসটি থেকে এভেলিনো কোয়েলহো দা সিলভা দাঁড়ান। তিনি ২.০৬% ভোট পেয়ে সপ্তম স্থান অধিকার করেন।[৪]

২০০৯ সালের অক্টোবরে স্থানীয় নির্বাচনে পিএসটি ৪৮৮৯টি পদের ৭৯টি পদ লাভ করে[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Shoesmith, Dennis। "Political Parties and Groupings of Timor-Leste"। Australian Labor International। ৭ মে ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৭ 
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১৮ 
  3. "National Provisional Results from the 30 June 2007 Parliamentary Elections" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০০৭-০৮-১০ তারিখে, Comissão Nacional de Eleições Timor-Leste, 9 July 2007.
  4. Results of 2007 presidential election ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৮ মার্চ ২০০৮ তারিখে, East Timor Election Commission website.