ডিম পাহাড়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডিম পাহাড়ের চুড়া

ডিম পাহাড় বাংলাদেশের বান্দরবান জেলায় অবস্থিত একটি পাহাড়। পাহাড়টি আলীকদম এবং থানচি উপজেলার ঠিক মাঝখানে অবস্থিত। এই পাহাড় দিয়েই দুই থানার সীমানা নির্ধারিত হয়েছে। এই পাহাড়ের মধ্যে দিয়ে সমুদ্র সমতল থেকে আড়াই হাজার ফুট উঁচুতে নির্মাণ করা হয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে উঁচু সড়কপথ।[১] আড়াই হাজার ফুট উঁচু এ পাহাড় চূড়ার আকৃতি দেখতে ডিমের মতো হওয়ায় স্থানীয়রা একে ডিম পাহাড় নামেই চেনে।

বর্ণনা[সম্পাদনা]

ডিম পাহাড় ছিলো দুর্গম। সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগ টানা এক যুগ অকান্ত পরিশ্রম করে সড়কটি নির্মাণ করেছে। প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সড়কটি নির্মাণে খরচ হয়েছে ১২০ কোটি টাকা।[২] প্রথমে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সড়কটির নির্মাণকাজ শুরু করলেও পরে এটি সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগ ১৬ ইসিবি ও ১৭ ইসিবি কাজ সম্পন্ন করে। আলিকদম-থানচি আঞ্চলিক সড়ক বাংলাদেশের সবথেকে উঁচু রাস্তা। আলীকদম থেকে এই রাস্তা উপরের দিকে উঠতে শুরু করে ডিম পাহাড়ে রাস্তার উচ্চতা ২৫০০ ফুট।

ডিম পাহাড়ের নীচের শেড

কিভাবে যাবেন[সম্পাদনা]

ঢাকা-চট্টগ্রাম কিংবা কক্সবাজার থেকে বাস করে চকরিয়া বাস স্টেশন নামতে হবে। চকরিয়া থেকে বাসে করে আলীকদম বাসস্টেশন নামবেন। সেখান থেকে জীপ গাড়ি ভাড়া নেয়া যায়। অথবা বাস স্টেশন থেকে অটো রিক্সায় পানবাজার এসে ভাড়ায় চালিত মোটর বাইক নিয়ে ডিম পাহাড় যাওয়া যায়। ডিম পাহাড় ঘুরে ১০/১২ কিলোমিটার পাহাড়ি পথ পাড়ি দিলেই পৌঁছা যায় থানচি। বান্দরবান থেকে যেতে চাইলে আগে লোকাল বাসে কিংবা চান্দের গাড়িতে করে থানচি বাজার চলে যান। এরপর থানচি বাজার থেকে চান্দের গাড়ি কিংবা মোটরবাইকে করে ডিম পাহাড়। অতপর: গিরিনন্দিনী আলীকদম...।[১]

আলিকদম থেকে ডিম পাহাড় যাওয়ার পাহাড়ি রাস্তা


দুইভাবে আলিকদম থেকে ডিম পাহাড় যাওয়া যাউ- ১।জীপ রিজার্ভ নিয়ে বিশেষ করে বড় গ্রুপ হলে ভালো হয় ২।বাইক ভাড়া নিয়ে সেজন্য প্রতি বাইকে ২ জন করে যেতে পারবে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "২৫০০ ফুট পাহাড় চূড়ায় সড়ক"। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  2. "কাল উদ্বোধন হচ্ছে আড়াই হাজার ফুট উচ্চতার ডিম পাহাড় সড়ক"। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭