টাকিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টাকিন
Takin Standing (22221570730).jpg
টাকিন, রজার উইলিয়াম পার্ক চিরিয়াখানা, প্রভিডেন্স, রোড আইল্যান্ড
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস e
অপরিচিত শ্রেণী (ঠিক করুন): Budorcas
প্রজাতি: B. taxicolor
দ্বিপদী নাম
Budorcas taxicolor
হজসন, ১৮৫০
Subspecies

B. t. bedfordi
B. t. taxicolor
B. t. tibetana
B. t. whitei

Takin range.jpg
টাকিনের বিচরণ এলাকা।

টাকিন (/ˈtɑːkɪn/; Budorcas taxicolor; তিব্বতি: ར་རྒྱ་ওয়াইলি: ra rgya), বা গ্নু ছাগল,[২] একটি ক্যাপ্রিনি উপপরিবারের বৃহৎ প্রজাতির ছাগল-জাতীয় প্রাণী, যাদের প্রধানত দেখা মেলে পূর্ব হিমালয় অঞ্চলে। এদের চারটি উপ-প্রজাতি হলো মিশমি টাকিন, সোনালী টাকিন, তিব্বতি বা সিচুয়ান টাকিন, এবং ভুটানী টাকিন। টাকিন ভুটানের জাতীয় পশু।[৩]

আবাসস্থল[সম্পাদনা]

সমুদ্রতল থেকে ১,০০০ এবং ৪,৫০০ মি (৩,৩০০ এবং ১৪,৮০০ ফু) এর উচ্চতার মধ্যে বনভূমি উপত্যকা থেকে পাথুরে, ঘাস দিয়ে আবৃত আলপাইন অঞ্চলে টাকিন পাওয়া যায়।[২] মিশমি টাকিন পূর্ব অরুণাচল প্রদেশে দেখা যায়, আর ভুটানী টাকিন পশ্চিম অরুণাচল প্রদেশ এবং ভুটানে রয়েছে।[৪] ভারতের অরুণাচল প্রদেশের দিহং-দিবাং বায়োস্ফিয়ার রিজার্ভ মিশমি, উত্তর সিয়াং (কোপু)[৫] এবং ভুটানী টাকিনের উভয়েরই একটি শক্তিশালী কেন্দ্র।[৬] উত্তর আমেরিকার ওহাইওর কম্বারল্যান্ডে বুনো টাকিনের একটি সক্রিয় প্রজননশীল দল বিচরণ করে। তারা চিড়িয়াখানা ও অ্যাকুরিয়াম অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে গঠিত একটি স্পেসিস সারভাইভাল প্ল্যান (এসএসপি) এর অংশ। আমেরিকার মিনেসোটা চিড়িয়াখানায় বন্দি অবস্থায়ও কিছু রয়েছে।[৭] সান দিয়েগো চিড়িয়াখানা, দ্য লস অ্যাঞ্জেলেস চিড়িয়াখানা, নর্থ ডাকোটাতে রেড রিভার চিড়িয়াখানা, মন্টানার জুমন্টানায়, রোড আইল্যান্ডের রজার উইলিয়ামস পার্ক চিড়িয়াখানা এবং কানাডার অন্টারিওর পিটারবারোতে রিভারভিউ পার্ক ও চিড়িয়াখানায় প্রদর্শনের জন্য রয়েছে কিছু টাকিন।

অবস্থা[সম্পাদনা]

মূলত অতিরিক্ত পরিমাণে শিকার ও তাদের প্রাকৃতিক আবাস ধ্বংসের কারণে, টাকিনকে চীনে বিপন্ন এবং আইইউসিএন এর তালিকায় বিপদগ্রস্ত হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যদিও টাকিন প্রাকৃতিকভাবে একটি সাধারণ প্রজাতি নয়, তবে তাদের সংখ্যা যথেষ্ট হ্রাস পেয়েছে বলে মনে হয়। মায়ানমারে অবৈধ বন্যপ্রাণীর ব্যবসায় টাকিনের শিং রয়েছে এবং ১৯৯৯-২০০৬ সাল থেকে তাচিলিক বাজারে তিনটি সমীক্ষায় মোট ৮৯ টি শিং প্রকাশ্যে বিক্রির জন্য পাওয়া গিয়েছিল।[৮]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Song, Y-L.; Smith, A.T.; MacKinnon, J. (২০০৮)। "Budorcas taxicolor"বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা (ইংরেজি ভাষায়)। আইইউসিএন2008: e.T3160A9643719। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০২০  অজানা প্যারামিটার |name-list-style= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  2. Animal Diversity Web (November, 2002) "Budorcas taxicolor" (University of Michigan Museum of Zoology) via arkive.org
  3. "যাচ্ছে রেড পান্ডা, আসছে টাকিন"আজকাল। জুলাই ১৭, ২০১৭। ১৮ জুলাই ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৫, ২০১৮ 
  4. Choudhury, A.U. (2003). The Mammals of Arunachal Pradesh. Regency Publications, New Delhi. 140pp
  5. Dasgupta, S., Sarkar, P., Deori, D., Kyarong, S., Kaul, R., Ranjitsinh, M. K. & Menon, V. 2010 Distribution and Status of Takin (Budarcos taxicolor)along the Tibet, Myanmar and Bhutan border in India. A report of Wildlife Trust of India submitted to CEPF. 47 pages.
  6. Choudhury, A.U. (2010). Mammals and Birds of Dihang – Dibang Biosphere Reserve, North-east India. Lambert Academic Publishing, Saarbrücken, Germany. 104pp.
  7. Minnesota Zoo (March, 2008) "Takin" mnzoo.com Retrieved 2011-09-15
  8. Shepherd and Nijman (2016)

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Maurice Burton; Robert Burton (জানুয়ারি ২০০২)। The international wildlife encyclopedia। Marshall Cavendish। পৃষ্ঠা 2623–4। আইএসবিএন 978-0-7614-7285-8। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]