জোমেল ওয়ারিকান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জোমেল ওয়ারিকান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজোমেল আন্দ্রেল ওয়ারিকান
জন্ম (1992-05-20) ২০ মে ১৯৯২ (বয়স ২৭)
রিচমন্ড হিল, সেন্ট ভিনসেন্ট
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক২২ অক্টোবর ২০১৫ বনাম শ্রীলঙ্কা
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১২-বর্তমানবার্বাডোস
সাগিকর হাই পারফরম্যান্স সেন্টার
ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ১৬
রানের সংখ্যা ২১ ১৩৪
ব্যাটিং গড় ২১.০০ ৭.৪৪ ০.০০
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২০* ২৪ ০*
বল করেছে ২৭০ ৩,১১১ ১০২ ৫৪
উইকেট ৭২
বোলিং গড় ২১.৫০ ১৬.৮৬ ৪৮.৫০ ৪১.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৪/৬৭ ৮/৭২ ১/৩২ ১/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ৬/– ০/– ১/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ২৯ অক্টোবর ২০১৫

জোমেল আন্দ্রেল ওয়ারিকান (জন্ম: ২০ মে, ১৯৯২) সেন্ট ভিনসেন্টে জন্মগ্রহণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদীয়মান ক্রিকেটারওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি স্লো অর্থোডক্স বোলার হিসেবে ভূমিকা রাখছেন। পাশাপাশি ডানহাতে নীচের সারিতে ব্যাটসম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন জোমেল ওয়ারিকান[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সেন্ট ভিনসেন্টে জন্মগ্রহণ করলেও পরবর্তীকালে তিনি বার্বাডোসে স্থানান্তরিত হন। সেখানে তিনি কম্বারমেয়ার স্কুলে ভর্তি হন ও এম্পায়ার ক্রিকেট ক্লাবে যোগ দেন। ২০০৯ সালে জেসন হোল্ডারের সাথে বার্বাডোসের উদীয়মান তরুণ ক্রিকেটার হিসেবে তিনি লর্ড গ্যাভরন পুরস্কার লাভ করেন।[২] এরপর ২০১০ সালে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিনিধিত্ব করেন।[৩] ২০১১ সালে লিভারপুল ও ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয়বারের মতো গ্যাভরন পুরস্কার বিজয়ী হিসেবে পুরো মৌসুম সেফটন পার্কের পক্ষে খেলেন।[৪] ঐ প্রতিযোগিতায় তিনি ৫১ উইকেট ও ৩৭৩ রান সংগ্রাহক ছিলেন।[৫] ক্যারিবিয় দ্বীপপুঞ্জে ফিরে মার্চ, ২০১২ সালে বার্বাডোসের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নেন। ২০১৪ মৌসুমের পূর্বে দলে তিনি নিয়মিত সদস্য ছিলেন না। বিসিএ এলিট ক্রিকেট লীগে সর্বোচ্চ উইকট সংগ্রহকারী হন ও ধীরগতির বোলার হিসেবে তিন দিনের চ্যাম্পিয়নশীপে রেকর্ড গড়েন ও এম্পায়ার দলকে শিরোপা জয়ে সহায়তা করেন।[৬] এ ধারাবাহিকতা রক্ষা করে আঞ্চলিক চার দিনের প্রতিযোগিতায় দুইবার আট উইকেটসহ ৪৯ উইকেট পান।[৭]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সালে শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট দলের সদস্য মনোনীত হন তিনি।[৮] ২২ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। প্রথমদিনেই তিনি ৬৭ রানে ৪ উইকেট দখল করেন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Jomel Warrican"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  2. http://www.barbadosadvocate.com/newsitem.asp?more=local$NewsID=8718&NewsID=9530[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "Jomel Warrican"Cricinfo 
  4. http://www.lpoolcomp.co.uk/news.php?id=836
  5. "First XI Averages 2011"seftonparkcc.co.uk 
  6. http://www.lancashirecricket.co.uk/index.php/news/latest-news/4755.html
  7. http://cricketarchive.com/Archive/Events/23/WICB_Professional_Cricket_League_Regional_4_Day_Tournament_2014-15/Bowling_by_Wickets.html
  8. "Holder replaces Ramdin as captain for SL Tests"ESPNcricinfo। ESPN Sports Media। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  9. "Debutant spinner Jomel Warrican helps West Indies dominate against Sri Lanka"The Guardian। London। ২২ অক্টোবর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]