চরিমায়া তামাং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
চরিমায়া তামাং
জাতীয়তানেপালি
প্রতিষ্ঠানশক্তি সমুহ
পরিচিতির কারণনারী পাচারের বিরুদ্ধে কাজ
উল্লেখযোগ্য কর্ম
নেপাল ভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা শক্তি সমুহ-এর প্রতিষ্ঠাতা
পুরস্কারমার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি রোডহ্যাম ক্লিনটনের কাছ থেকে হিরো অ্যাক্টিং টু মডার্ন-ডে স্ল্যাভারি পুরস্কার ২০১১

চরিমায়া ("অনু") তামাং হলেন একজন নেপালি সমাজকর্মী এবং নারীপাচার বিরোধী সক্রিয়কর্মী।[১][২][৩] তিনি নেপাল ভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা শক্তি সমুহ-এর প্রতিষ্ঠাতা। সংস্থাটি ভারতের বিভিন্ন যৌনপল্লি থেকে উদ্ধারকৃত নারীদের দ্বারা গঠিত এবং এটি নারী পাচারের বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি সালে ২০১৩ সালে রামোন ম্যাগসেসে পুরস্কারেও ভূষিত হয়েছে। যৌনকর্মী হিসাবে যৌনপল্লীতে কাজ করার জন্য ১৬ বছর বয়সে তিনি ভারতে বিক্রি হয়েছিলেন। ১৯৯৬ সালে ভারত সরকার তাকে সহ আরো ২০০ জন নেপালি নারীকে উদ্ধার করেছিল। এর আগে তিনি যৌনপল্লীতে ২২ মাস অতিবাহিত করেছিলেন। নেপালে ফিরে যাওয়ার পরে তাকে তার সম্প্রদায় থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।[৪] পরবর্তীতে ২০০০ সালে তিনি এবং তার মত অন্যান্য ১৫ জন মিলে শক্তি সমুহ নামে একটি বেসরকারি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • ২০১১ সালে আধুনিক যুগের দাসত্ব সমাপ্তির নায়িকা হিসেবে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি রোডহ্যাম ক্লিনটনের কাছ থেকে হিরো অ্যাক্টিং টু মডার্ন-ডে স্ল্যাভারি পুরস্কার
  • জাতীয় গোরিমায়া নারী প্রতিভা পুরস্কার[৫]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Archived copy"। ২০১৩-০৭-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৮-০২ 
  2. "News | Sisters of Charity of Nazareth" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৯ 
  3. "Archived copy"। ২০১২-০১-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৮-০২ 
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩০ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মার্চ ২০২১ 
  5. "Archived copy"। ২০১৪-০২-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৮-১৭