গ্রাহাম হিউজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গ্রাহাম হিউজ
Graham-Hughes 2.jpg
২০১০-এর জুনে সৌদি আরবের জেদ্দাতে হিউজ
জন্ম (1979-02-28) ২৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯ (বয়স ৪০)[১]

গ্রাহাম ডেভিড হিউজ (ইংরেজীতে: Graham David Hughes, জন্ম ১৯৭৯) একজন ব্রিটিশ অভিযাত্রী, চলচ্চিত্র নির্মাতা, টেলিভিশন উপস্থাপক এবং গিনেস বিশ্ব রেকর্ডধারী। হিউজ সফলভাবে বিশ্বের ১৯৩টি জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্র ভ্রমণ করেছেন কোন ধরণের উড়োজাহাজে চড়া ছাড়াই বা আকাশ পথে না গিয়েই।[২] তিনি চার বছর ধরে এই অভিযান চালিয়েছিলেন এবং ২০১২ সালের নভেম্বরে তাঁর এই অভিযান শেষ হয়।[৩] এই অভিযান চলাকালে হিউজ ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক অ্যাডভেঞ্চার চ্যানেলে গ্রাহাম’স ওয়ার্ল্ড নামের একটি সাপ্তাহিক প্রোগ্রামে উপস্থাপনা করতেন। এই অনুষ্ঠানে হিউজ পূর্বের সব বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে আকাশ পথে না গিয়েও পৃথিবীর সবগুলো দেশ ভ্রমণ অভিযানের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরতেন।[৪]

দ্য ওডেসি এক্সপিডিশন[সম্পাদনা]

দ্য ওডেসি এক্সপিডিশন গ্রাহাম হিউজের একটি অভিযান যার উদ্দেশ্য জাতিসংঘের প্রতিটি সদস্য রাষ্ট্রে পদার্পন করা। হিউজ যুক্তরাজ্যের প্রতিটা দেশেই গিয়েছিলেন। হিউজ জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্র ছাড়াও বেশ কিছু দেশ ও অঞ্চলে গিয়েছিলেন, যেমন- ভ্যাটিকান সিটি, ফিলিস্তিনের আংশিক স্বীকৃত রাষ্ট্রসমূহ, পশ্চিম সাহারা, কসোভো এবং তাইওয়ান। জাতিসংঘ সদস্য রাষ্ট্রসমূহ মিলিয়ে তিনি মোট ২০১টি দেশে ভ্রমণ করেছেন। তবে হিউজ উত্তর কোরিয়াতে যাননি।[৫] তার ভ্রমণ অভিযানের নিয়ম ছিল: আকাশ পথে যাওয়া যাবে না, কোন ব্যক্তিগত পরিবহন ব্যবস্থা ব্যবহার করা যাবে না, কোন রাষ্ট্রের দূরবর্তী কোন অঞ্চল বা বিশেষ অঞ্চলে গিয়ে দেশটি ভ্রমণ করা হয়েছে বলে বিবেচনা করা যাবে না।[৬]

২০১২ সালের নভেম্বরের ২৬ তারিখে হিউজ তাঁর অভিযান সমাপ্ত করেন দক্ষিণ সুদানে প্রবেশের মাধ্যমে। অভিযান শেষে তিনি তার শহর লিভারপুলে ফিরে যান। গিনেস বিশ্ব রেকর্ড অবশ্য হিউজের রাশিয়ায় প্রবেশ করা নিয়ে অসন্তষ্ট ছিল।[৭] কারণ এটাই একমাত্র দেশ ছিল যেখানে হিউজ কোন স্বীকৃত সীমান্ত প্রবেশ পথ দিয়ে প্রবেশ করেননি। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে হিউজ সঠিকভাবে ভিসা গ্রহণ করে পুনরায় রাশিয়ায় যান। দ্য ওডেসি এক্সপিডিশনে হিউজেস দাতব্য সংস্থা ওয়াটারএইড-এর পক্ষে প্রচারণা চালান।

বিশ্ব রেকর্ড[সম্পাদনা]

গ্রাহাম হিউজ এক বছরের মধ্যেই ১৩৩টি দেশে গণপরিবহণ (বাস, ট্রেন, ট্রাম ইত্যাদি) ব্যবহার করে ভ্রমণ করার মাধ্যমে গিনেস বিশ্ব রেকর্ড অর্জন করেছেন।[৮][৯] তিনি তাঁর ৪ বছরব্যাপী অভিযানের প্রথম বছরেই এই স্বীকৃতি অর্জন করেন। ২০১৪ সালে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড নিশ্চিত করে যে, হিউজের “অভিযানটি ছিল সবচেয়ে কম সময়ে সব দেশে গণপরিবহণ ব্যবহার করে ভ্রমণ অভিযান। এটির সত্যতা যাচাই করতে গিনেস বিশ্ব রেকর্ড দীর্ঘ সময়ে ব্যয় করেছে।“ গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের প্রধান মার্কো ফ্রিগেটি বলেন, “সাম্প্রতিককালে কোন রেকর্ড যাচাই করতে এতো সময় লাগেনি।“[১০]

চলচিত্র ও অন্যান্য কাজ[সম্পাদনা]

হিউজ তাঁর নিজের কোম্পানি হাইড্রা স্টুডিও থেকে বেশ কয়েকটি স্বল্প দৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। ২০০৬ সালে তাঁর একটি চলচ্চিত্র লিভারপুল ৪৮ ঘন্টা ফিল্ম চ্যলেঞ্জ পুরস্কার পায়। ওয়ার্ল্ড চ্যালেঞ্জ এক্সপিডিশন্স নামক একটি ভ্রমণ পরিষেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের জন্য হিউজ কয়েকটি ভ্রমণ বিষয়ক ভিডিও তৈরি করেছেন। তিনি লিভারপুল-ভিত্তিক অনেক সঙ্গীতশিল্পী ও সঙ্গীত-প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করেছেন।[১১] ইউটিউবে হিউজের 'ওয়ান সেকেন্ড এভরি কান্ট্রি' ভিডিওটি তুমুল জনপ্রিয় হয়।[১২] এটি কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে প্রায় এক মিলিয়ন বার দেখা হয়। পরবর্তীতে বিবিসি[১৩] এবং সিবিএস[১৪] এটি নিয়ে সংবাদও প্রচার করে। হিউজের বিশ্ব ভ্রমণ নিয়ে বাজফিড[১৫] এবং এস্কুইয়ার ম্যাগাজিনে নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।[১৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Happy 30th Birthday Graham!"। Theodysseyexpedition.com। ৪ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  2. "Fastest time to visit all countries by public surface transport"। Guinnessworldrecords.com। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  3. "Graham Hughes: British man is first person to visit all 201 countries WITHOUT using a plane - Daily Mail Online"Mail Online। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  4. "Graham's World"National Geographic Channel - Videos, TV Shows & Photos - Asia। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  5. "I am the FIRST (and ONLY) person to visit EVERY COUNTRY in the world WITHOUT FLYING. I now live on a private island in the Caribbean. ASK ME ANYTHING!!! : IAmA"reddit। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  6. "NBCNews.com Video Player"। Msnbc.msn.com। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  7. Luke Traynor। "Graham Hughes: Guinness World Records won't count adventurer's trip round the globe - Mirror Online"mirror। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  8. Guinness World Records। "Most Countries Visited In One Year By Scheduled Ground Transport - Guinness World Records"। Guinnessworldrecords.com। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  9. "The Japan Times - News on Japan, Business News, Opinion, Sports, Entertainment and More"The Japan Times। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  10. "Every country without a flight: trip gets Guinness record"Telegraph.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  11. [১]
  12. "BBC News - Round-the-world trip film goes viral"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  13. "BBC News - Graham Hughes travelled the world without flying or driving"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  14. "Globetrotter hits 201 countries on shoestring budget, without air travel"। Cbsnews.com। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  15. Dan Martin। "This Is What Every Single Country In The World Looks Like For One Second"BuzzFeed। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  16. "Meet the Guy Who Circumnavigated the Globe Without Taking a Plane"Esquire। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]