কোটেশ্বর শিব মন্দির

স্থানাঙ্ক: ২৫°৪৮′৪৭″ উত্তর ৮৯°২৯′২৭″ পূর্ব / ২৫.৮১৩০৬৯২° উত্তর ৮৯.৪৯০৭৭৮৯° পূর্ব / 25.8130692; 89.4907789
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কোটেশ্বর শিব মন্দির
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিহিন্দুধর্ম
জেলাকুড়িগ্রাম জেলা
উৎসবসমূহশিব রাত্রি, দূর্গা পূজা, ভাগবত জয়ন্তী, বাসন্তী পূজা
অবস্থান
দেশবাংলাদেশ
কোটেশ্বর শিব মন্দির বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কোটেশ্বর শিব মন্দির
বাংলাদেশে অবস্থান
স্থানাঙ্ক২৫°৪৮′৪৭″ উত্তর ৮৯°২৯′২৭″ পূর্ব / ২৫.৮১৩০৬৯২° উত্তর ৮৯.৪৯০৭৭৮৯° পূর্ব / 25.8130692; 89.4907789
স্থাপত্য
সৃষ্টিকারীনীলাম্বর সেন
পাঙ্গেশ্বরী লক্ষ্মীপ্রিয়া (পুনঃনির্মাণ)
প্রতিষ্ঠার তারিখ১৪৮৩ খ্রিষ্টাব্দ
১৮৯৭ খ্রিষ্টাব্দ (পুনঃনির্মাণ)
উচ্চতা৩৩ মি (১০৮ ফু)

কোটেশ্বর শিব মন্দির বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলায় অবস্থিত একটি প্রাচীন হিন্দু মন্দির। এই মন্দিরটির প্রধান বিগ্রহ দেবতা শিব। দেবীর নাম "ভ্রামরী দেবী" ও ভৈরব এর নাম "অম্বর ভৈরব"। এটি কোটেশ্বর শিব দূর্গা মন্দির নামেও পরিচিত।[১][২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কামতেশ্বর নীলাম্বর সেন তার রাজধানী কামতাপুর থেকে রাজ্যের প্রান্তসীমা পর্যন্ত অনেকগুলো রাজপথ নির্মাণ করেছিলেন। এর মধ্যে নীলাম্বরী সড়ক এবং দর্পার মাল্লি উল্লেখযোগ্য। সড়ক দু’টি কামতাপুর থেকে বর্তমান রংপুরের মধ্য দিয়ে ঘোড়াঘাট পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। তিনি ১৪৮৩ খ্রিষ্টাব্দে কোটেশ্বরে (বর্তমান কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলায় অবস্থিত) একটি মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন, যার ধ্বংসস্থলে ১৮৯৭ খ্রিষ্টাব্দে পাঙ্গেশ্বরী লক্ষ্মীপ্রিয়া নতুনভাবে মন্দির নির্মাণ করেন।

অবস্থান[সম্পাদনা]

এ মন্দিরটি রংপুর বিভাগের কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলায় অবস্থিত। এটি ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের আওতাধীন।

পূজা-পার্বণ[সম্পাদনা]

এই মন্দির প্রধান শিবরাত্রি খুব জাঁকজমক ভাবে পালিত হয়। বহু মানুষ শিবরাত্রি ব্রত পালন করে এখানে রাত্রি জাগরণ করে। এছাড়া এখানে দূর্গাপূজা এবং ভাগবত জয়ন্তী ও বেশ জনপ্রিয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "রাজারহাট উপজেলা"rajarhat.kurigram.gov.bd (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-১২ 
  2. "কোটেশ্বর শিব মন্দির"শিক্ষক বাতায়ন