কালাপাশ চুটকি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

কালাপাশ চুটকি
Dark-sided Flycatcher on branch.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: পক্ষী
বর্গ: Passeriformes
পরিবার: Muscicapidae
গণ: Muscicapa
প্রজাতি: M. sibirica
দ্বিপদী নাম
Muscicapa sibirica
Gmelin, 1789

কালাপাশ চুটকি (বৈজ্ঞানিক নাম: Muscicapa fuliginosa) (ইংরেজি: Dark-sided Flycatcher) বা ঝুলরঙাচটক Muscicapidae (মাসসিকাপিডি) গোত্র বা পরিবারের অন্তর্গত Muscicapa (মাসসিকাপা) গণের এক প্রজাতির ছোট বৃক্ষচারী পাখি[১][২][৩] কালাপাশ চুটকির বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ সাইবেরিয়ার চুটকি (ল্যাটিন musca = মাছি, capere = দখল করা, sibiricus = সাইবেরিয়ার)।[২] সারা পৃথিবীতে এক বিশাল এলাকা জুড়ে এদের আবাস, প্রায় ৩০ লাখ বর্গ কিলোমিটার।[৪] বিগত কয়েক দশক ধরে এদের সংখ্যা বাড়েও নি আবার আশঙ্কাজনক পর্যায়ে চলে যায় নি। সেকারণে আই. ইউ. সি. এন. এই প্রজাতিটিকে Least Concern বা ন্যূনতম বিপদগ্রস্ত বলে ঘোষণা করেছে।[৫] বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত নয়।[২]

প্রাপ্তিস্থান[সম্পাদনা]

শীতকালে উত্তর-পূর্ব ভারত, বাংলাদেশ, ভুটান, মিয়ানমার, জাপান, দক্ষিণ চীন, তিব্বতদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অনেক দেশে কালাপাশ চুটকি দেখা যায়।

বিবরণ[সম্পাদনা]

ডালে বসছে কালাপাশ চুটকি

দেহের দৈর্ঘ্য ১৩-১৪ সেন্টিমিটার। প্রাপ্তবয়স্ক পাখির শরীরের পেছনের অংশ ধূসর-বাদামি রঙের হতে পারে। পেটের মাঝে সাদা দাগ থাকে। ঠোঁট কালো রঙের ও চওড়া। চোখ বড়, কালচে-বাদামি এবং চোখের রঙ ধুসর। পায়ের পাতা ও নখ কালো। অপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির দেহ একটু ভিন্ন ধরণের। রঙ বাদামি, বুক ও বগলে কালচে রঙের ছাপ থাকতে পারে।[৩]

খাদ্যাভাস[সম্পাদনা]

উড়ন্ত ছোট পোকা শিকার করে খায় এরা। অন্ধকারেও এরা পোকা ধরে খেতে পারে। কোমল সুরে সি-সি করে ডাকে কোন কোন সময়।[৩]

স্বভাব[সম্পাদনা]

কালাপাশ চুটকি সাধারণত নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে থাকে, এছাড়া আলপ্স পাহাড়, বনের ধার, ওক বনেও থাকে কোন কোন সময়। বড় পত্রবহুল জঙ্গল এদের প্রিয়। শীতকালে সমতল ভূমিতে আসে। শীতে একাকী থাকতে পারে।[৩]

প্রজনন[সম্পাদনা]

মাকড়সার জাল ও শেওলা দিয়ে সাধারনত মে-জুলাই মাসে গাছের ডালে বাসা করে। বাসা দেখতে অনেকটা বাটি আকৃতির। সংখ্যায় তিন-চারটি ডিম পারে এরা যা সবুজ রঙের। যখন মেয়ে পাখি একা ডিমে তা দেয় তখন ছেলে পাখি খাবার সন্ধান করে। ছেলে ও মেয়ে পাখির চেহারা একই রকম।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. রেজা খান, বাংলাদেশের পাখি (ঢাকা: বাংলা একাডেমী, ২০০৮), পৃ. ৯০।
  2. জিয়া উদ্দিন আহমেদ (সম্পা.), বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ: পাখি, খণ্ড: ২৬ (ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি, ২০০৯), পৃ. ৩৬৭।
  3. অসময়ে কালাপাশ চুটকি, সৌরভ মাহমুদ, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ০৪-০৯-২০১২ খ্রিস্টাব্দ।
  4. Muscicapa sibirica, BirdLife International এ কালাপাশ চুটকি বিষয়ক পাতা।
  5. Muscicapa sibirica, The IUCN Red List of Threatened Species এ কালাপাশ চুটকি বিষয়ক পাতা।

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

  • Brazil, Mark A. (1991) The Birds of Japan, Christopher Helm, London.
  • Kennedy, Robert S.; Gonzales, Pedro C.; Dickinson, Edward C.; Miranda, Hector C. & Fisher, Timothy H. (2000) A Guide to the Birds of the Philippines, Oxford University Press, Oxford.
  • Lee, Woo-Shin, Koo, Tae-Hoe & Park, Jin-Young (2000) A Field Guide to the Birds of Korea, LG Evergreen Foundation, Seoul.
  • MacKinnon, John & Phillipps, Karen (2000) A Field Guide to the Birds of China. Oxford University Press, Oxford.
  • Robson, Craig (2002) A Field Guide to the Birds of South-East Asia. New Holland, London.
  • Bradshaw, C.; Jepson, P. J.; Lindsey, N. J. (১৯৯১)। "Identification of brown flycatchers"। British Birds84 (12): 527–542। 
  • Alström, Per; Hirschfeld, Erik (১৯৯১)। "Field identification of Brown, Siberian and Grey-streaked Flycatchers"। Birding World4 (8): 271–278। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]