ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়
Yerevan State University
Երևանի Պետական Համալսարան
Yerevan State University.jpg
ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যম্পাস
ধরনসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৬ মে ১৯১৯ (1919-May-16)
চেয়ারম্যানসারজান সারগাএয়ান
রেক্টরঅরাম সিমোনিয়ান
শিক্ষায়তনিক কর্মকর্তা
১,৬০০
শিক্ষার্থী২০,০০০
স্নাতক১৮,০০০
স্নাতকোত্তর২,০০০
অবস্থান,
৪০°১০′৫৪″ উত্তর ৪৪°৩১′৩৫″ পূর্ব / ৪০.১৮১৬৭° উত্তর ৪৪.৫২৬৩৯° পূর্ব / 40.18167; 44.52639স্থানাঙ্ক: ৪০°১০′৫৪″ উত্তর ৪৪°৩১′৩৫″ পূর্ব / ৪০.১৮১৬৭° উত্তর ৪৪.৫২৬৩৯° পূর্ব / 40.18167; 44.52639
শিক্ষাঙ্গনশহুরে
রঙসমূহব্লু, সাদা
         
ওয়েবসাইটysu.am
YSU gerb.jpg

ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় (আর্মেনীয়: Երևանի Պետական Համալսարան, ԵՊՀ, Yerevani Petakan Hamalsaran), ১৯১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত ইয়েরেভান আরমেনিয়ার এটি বৃহত্তম এবং সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়[১][২][৩][৪][৫] এই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ৩,১৫০ জন কর্মরত রয়েছে, এর ভেতর ১,১৯০ জন শিক্ষক, যার ২৫ জন শিক্ষাবিদ, ১৩০ জন অধ্যাপক, ৭০০ জন সহযোগী অধ্যাপক এবং ৩৬০ জন সহকারী শিক্ষককে। বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ৪০০ জন গবেষক, ১,৫০ জন স্নাতকোত্তর ছাত্র এবং ৮,৫০০ জন স্নাতক সম্মান ছাত্র সহ ৩০০ জন বিদেশী শিক্ষার্থী।[৬]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ফাউন্ডেশন[সম্পাদনা]

সিরাকান টিগরানিয়ান, বিশ্ববিদ্যালয় অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা
ওয়াই.ইউ.এস প্রথম একাডেমি ভবন, ইয়েরেভান

আর্মেনিয়া সরকার এবং রাজনীতিবিদ সিরাকান টিগরানিয়ার প্রচেষ্টায় ১৬ মে ১৯১৯ সালে "ইয়েরেভান স্টেট ইউনিভার্সিটি" প্রতিষ্ঠিত হয় এবং অধ্যাপক ইউরি গামবারিয়ান প্রথম রেক্টর হিসাবে নিযুক্ত হন এবং বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৯২০ সালে জানুয়ারি মাসের ৩১ তারিখে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেন, শুরুতে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি সাময়িকভাবে ছিল স্কুল অব কমার্স ভবনের আলএকড্রপলে (বর্তমান গুমরী প্রযুক্তি কেন্দ্র)। বিশ্ববিদ্যালয়টির শুরুর দিকে শুধুমাত্র ইতিহাস অনুষদ এবং ভাষাবিদ্যা অনুষদ এর একাডেমিক কর্মকর্তা ছিলো ৩২ জন এবং ছাত্র ছাত্রী সংখ্যা ছিলো ২৬১ জন। পরবর্তী সময়ে ধর্মতত্ত্ব অনুষদ, ইতিহাস অনুষদ, বিজ্ঞান অনুষদ, অর্থনীতি অনুষদ, ও ব্যবস্থাপনা অনুষদ চালু করা হয়।

অনুষদসমূহ[সম্পাদনা]

  • পদার্থবিদ্যা অনুষদ
  • গণিত এবং বলবিজ্ঞান অনুষদ
  • রেডিওপদার্থবিদ্যা অনুষদ
  • ইনফরম্যাটিক্স এবং ফলিত গণিত অনুষদ
  • রসায়ন অনুষদ
  • জীববিজ্ঞান অনুষদ
  • ভূগোল এবং ভূতত্ত্ব অনুষদ
  • দর্শনশাস্ত্র এবং মনোবিজ্ঞান অনুষদ
  • সমাজবিজ্ঞান অনুষদ
  • ধর্মশাস্ত্র অনুষদ
  • ইতিহাস অনুষদ
  • আর্মেনীয় দর্শনশাস্ত্র অনুষদ
  • রুশ ভাষাতত্ত্ব অনুষদ
  • প্রাচ্য শিক্ষা অনুষদ
  • রোম্যান্স এবং জার্মানিক ভাষাতত্ত্ব অনুষদ
  • সাংবাদিকতা অনুষদ
  • অর্থনীতি ও ব্যবস্থাপনা অনুষদ
  • আইন অনুষদ
  • আন্তর্জাতিক সম্পর্ক অনুষদ
  • বিদেশী নাগরিকদের জন্য প্রস্তুতিমূলক বিভাগ

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

ওয়াই.এস.ইউ এর গ্রন্থাগারের নতুন ভবনের ছবি

১৯২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ইয়েরেভান রাজ্য বিশ্ববিদ্যাল গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১২ অক্টোবর ১৯৯৪ সালে গ্রন্থাগারটি নতুন ভবনের স্থানান্তরিত করা হয়। আর্মেনিয়ান গণহত্যা সহ ইউরোপীয় এবং মার্কিন বুদ্ধিজীবী, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ইত্যাদি বিষয়ের বই রয়েছে এই গ্রন্থাগারে।

অন্যান্য কার্যক্রম[সম্পাদনা]

ওয়াই.এস.ইউ পাবলিশিং হাউস[সম্পাদনা]

৩১ জানুয়ারি ১৯২০ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশনা ওয়াই.এস.ইউ পাবলিশিং হাউস যাত্রা শুরু করে। প্রথম প্রকাশিত হয় "বিশ্ববিদ্যালয় আর্মেনিয়া" নামক মাসিক সংবাদপত্র। একই বছরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রকাশিত করে তার প্রথম বই Alexandrapol, যা ছিল নীতির মনোবিজ্ঞানের উইলিয়াম জেমসের লেখা। শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ওয়াই.এস.ইউ পাবলিশিং হাউস প্রায় ৫,৫০০টিরও বেশী বই প্রকাশ করেছে।

মাসিক সংবাদপত্র[সম্পাদনা]

ইয়েরেভান রাজ্য বিশ্ববিদ্যাল প্রকাশ করেছে "বিশ্ববিদ্যালয় ইয়েরেভান" (আর্মেনীয়: Երևանի համալսարան, Yerevani hamalsaran) একটি মাসিক ভিত্তি সংবাদপত্র।[৭]

প্রবাসী সামার স্কুল[সম্পাদনা]

ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৬ সালে "প্রবাসী সামার স্কুল" নামক একটি যৌথ প্রকল্প চালু আর্মেনিয়ার প্রবাসী মন্ত্রণালয়। এই প্রোগ্রামটি মাধ্যমে আর্মেনিয়ান প্রবাসী পাশাপাশি বাড়াতে থাকে দক্ষতা স্তর ও আর্মেনিয়ান ভাষা তরুণ প্রজন্মের মধ্যে আর্মেনীয় বিদেশে স্কুল কর্মসূচি।

কৃতি শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

ইয়েরেভান রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক উল্লেখযোগ্য কৃতি শিক্ষার্থী শিক্ষা গ্রহণ করে আরমেনিয়া ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Hacikyan, Agop Jack; Basmajian, Gabriel; Franchuk, Edward S.; Ouzounian, Nourhan (২০০৫)। The Heritage of Armenian Literature: From the eighteenth century to modern times। Detroit: Wayne State University Press। পৃষ্ঠা 1012। আইএসবিএন 9780814332214 
  2. "UNIVERSITIES IN ARMENIA by 2015 University Web Ranking"4icu.org। 4 International Colleges & Universities। 
  3. "Մայիսի 16-ը Մայր ԲՈՒՀ-ի հիմնադրման օրն է"culture.am (আর্মেনিয় ভাষায়)। ১৬ মে ২০১৫। 
  4. "ԵՊՀ հոգաբարձուների խորհրդի նիստում ընտրվել է "Երևանի պետական համալսարան" հիմնադրամի ռեկտորը [YSU Board of Trustees Elects Rector of Yerevan State University Foundation]"president.am (আর্মেনিয় ভাষায়)। Office to the President of the Republic of Armenia। ১৯ জুন ২০১৫। 
  5. "Նախագահ Սարգսեան. "Տակաւին Շատ Ընելիքներ Կան Երեւանի Պետական Համալսարանին Մէջ""Aztag (আর্মেনিয় ভাষায়)। ২২ জুন ২০১৫। ...Երեւանի պետական համալսարանը եղած է եւ միշտ պէտք է ըլլայ իբրեւ Մայր համալսարան եւ յառաջատար: 
  6. Ness, Daniel; Lin, Chia-Ling, সম্পাদকগণ (২০১৫)। International Education: An Encyclopedia of Contemporary Issues and Systems। Routledge। পৃষ্ঠা 789আইএসবিএন 9781317467519 
  7. YSU newspaper

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]