আলাপ:কর্ণতলী নদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

বংশি ও বুড়িগঙ্গা সম্পর্কে[সম্পাদনা]

ভাই, সালাম নেবেন। আশা করি ভাল আছেন। আপনার তৈরি করা নিবন্ধের বংশি নদী ও আমার তৈরি নিবন্ধের বংশী নদী এক না। আপনার নিবন্ধ পড়ে এটা বুঝতে পেরেছি। আপনি যদি এই নদীর লোকেশনটা দেন তাহলে আমি ছবি তোলে আপলোড করতে পারি। আমার বাসা সাভারে। আরেকটি কথা, আপনার সম্পাদিত বুড়িগঙ্গা নিবন্ধে নদীটি সাভারে থাকার কোন তথ্য নেই। অথচ সাভার বিষয়শ্রেণীর সাথে যুক্ত আছে। তাই এটা সাভারের ঠিক কোথায় যদি বলেন খুব ভাল হয়। এটারও ছবি তোলার ইচ্ছা আছে। ধন্যবাদ। - আদিব (আলাপ) ০৭:০০, ১৪ মার্চ ২০১৭ (ইউটিসি)

আদিব ভাই, তথ্যসূত্রে দেয়া বইয়ের বর্ণনা, গুগল ম্যাপ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাভার উপজেলার মানচিত্র, লিংক এখানে দেখে মনে হচ্ছে বংশি নদীটিকে কর্নাতলা নদী হিসেবে গুগলে এবং উপজেলা মানচিত্রে দেখানো হয়েছে। বুড়িগঙ্গা প্রসঙ্গে আরেকটু নিশ্চিত হয়ে পরে জানাবো। ভালো থাকুন।--সাদি (আলাপ) ০৭:৫২, ১৪ মার্চ ২০১৭ (ইউটিসি)

ভাই, আমি আপনার দেয়া লিংক এবং গুগল ম্যাপ দেখেছি। সেখানে ঠিক নামই বলা আছে। এই নদীর প্রকৃত নাম কর্ণতলী নদী। নদীটিকে ছোটবেলা থেকে এ নামেই চিনি। নদীটি দৈর্ঘ্যে প্রস্থে খুব একটা বড় নয়। অন্যদিকে বংশী নদী অনেক প্রশস্ত ও বড় নদী। এটি সাভারের প্রধান নদী। জামালপুর থেকে এই নদী বংশী নামে প্রবাহিত হয়েছে এবং সাভারেও নদীটি একই নামে প্রবাহিত। কেবল হেমায়েতপুরের কাছাকাছি এসে এই নদীর নাম পাল্টে গিয়ে ধলেশ্বরী হয়েছে। এ কারনে গুগল ম্যাপে বংশী নদীর পরিবর্তে ভুল করে ধলেশ্বরী'র নাম লেখা হয়েছে। অথচ আপনার দেয়া ম্যাপে ঠিকই বংশী নদীর নাম উল্লেখ আছে। বংশী নদী নিয়ে এনটিভির এই প্রতিবেদনটা দেখতে পারেন। নিবন্ধটিতে আপনি লিখেছেন, সাভার পৌরসভা এই নদীর তীরে অবস্থিত। আসলে সাভার পৌরসভা বংশী ও কর্ণতলী এই দুই নদীর তীরেই অবস্থিত। আমার মনে হয় নিবন্ধটি কর্ণতলী নদী - এই নামে স্থানান্তর করলে এটা যুক্তিসঙ্গত হবে। - আদিব (আলাপ) ১০:২২, ১৪ মার্চ ২০১৭ (ইউটিসি)

আদিব ভাই, ধন্যবাদ আলোচনার জন্য। স্থানান্তর করে দিচ্ছি।--সাদি (আলাপ) ০৪:০৪, ১৫ মার্চ ২০১৭ (ইউটিসি)