আবুল খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আবুল খান
Aboul Khan
রকিংহাম ২০ নির্বাচনী জেলার
নিউ হ্যাম্পশায়ার হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভস সদস্য
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২০০৬
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1960-03-01) ১ মার্চ ১৯৬০ (বয়স ৬০)
ভাণ্ডারিয়া উপজেলা, পিরোজপুর জেলা, বাংলাদেশ
রাজনৈতিক দলরিপাবলিকান পার্টি
মাতাশাহানারা বেগম
পিতামাহাবুব উদ্দিন খান কাঞ্চন
পেশাব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ

আবুল বাশার খান শাহীন (জন্ম: ১ মার্চ ১৯৬০) একজন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মার্কিন ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ। তিনি রকিংহাম-২০ নির্বাচনী এলাকা থেকে নিউ হ্যাম্পশায়ার হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভসের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[১]

জন্ম ও পরিবার[সম্পাদনা]

আবুল বাশার খান ১৯৬০ সালের ১ মার্চ পিরোজপুর জেলার ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাবেক সহকারী সচিব মাহাবুব উদ্দিন খান কাঞ্চন এবং শাহানারা বেগমের দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে বাশারই সবার বড়। ছোট বোন রোজী খান অস্ট্রেলিয়ায় এবং পরিবারের বাকি সদস্যগণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন।[২]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

আবুল ১৯৭৬ সালে ঢাকার মুসলিম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর ১৯৭৮ সালে নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন করে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হন। সেখানে তিন বছর অধ্যায়নের পর ১৯৮১ সালের ১০ জানুয়ারি স্টুডেন্ট ভিসায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গমন করেন এবং সেখানেই স্থায়ী হন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আবুল খান যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে ক্ষুদ্র ব্যবসার সাথে জড়িত হন। পরবর্তীতে, ২০০০ সালে তিনি নিউ হ্যাম্পশায়ারের সিব্রুক শহরে একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ক্রয় করেন। সেখানে নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন দ্রব্য বিক্রয়ের পাশাপাশি একটি গ্যাস স্টেশনও ছিল।[৪]

বাশার প্রথম নির্বাচনে অংশ নেন ২০০৫ সালে। সে বছর সিব্রুকের প্ল্যানিং বোর্ডের সদস্য নির্বাচনে চার প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে জয়লাভ করেন তিনি। এরপর ২০০৬ সালে তিনি সিব্রুকের বাজেট কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৮ এবং ২০১১ সালে তিনি সিব্রুক বোর্ড অব সিলেক্টম্যান পদে নির্বাচিত হন। এসময় তিনি শহরটিতে পারমাণবিক বিদ্যুত কেন্দ্র ও পানি পরিশোধন কেন্দ্র নির্মাণে ভূমিকা রাখেন। পরবর্তীতে, ২০১২ সালের ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি রিপাবলিকান পার্টির হয়ে অংশ নেন এবং নিউ হ্যাম্পশায়ারের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের সদস্য নির্বাচিত হন।[৫] সর্বশেষ ২০২০ সালের ৩ নভেম্বরের নির্বাচনেও তিনি এ পদে চতুর্থ বারের মতো নির্বাচিত হন।[১]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালে আবুল বাশার পিরোজপুরের মেয়ে মর্জিয়া হুদা খানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এ দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। ছেলের নাম আতিক খান ও মেয়ের নাম নূসরাত জাহান।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. আহমদ, শাহ (২০২০-১১-০৫)। "মার্কিন নির্বাচনে দুই বাংলাদেশির বিজয়"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৫ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "যুক্তরাষ্ট্র পার্লামেন্টে বাংলাদেশি শেখ রহমান ও আবুল খান"বাংলাদেশ প্রতিদিন (ইংরেজি ভাষায়)। ৯ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৫ 
  3. "চতুর্থবারের মতো স্টেট রিপ্রেজেন্টেটিভ হলেন ভান্ডারিয়ার আবুল খান"বাংলা ট্রিবিউন। ৪ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৫ 
  4. "রিপাবলিকান থেকে চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত পিরোজপুরের আবুল খান"যুগান্তর। ৪ নভেম্বর ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  5. "আমাদের আবুল খান"কালের কণ্ঠ। ১৩ জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  6. "মার্কিন নির্বাচনে দুই বাংলাদেশীর বিজয়"দৈনিক নয়াদিগন্ত। ২০২০-১১-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৫