অলিম্পিয়াকোস ফুটবল ক্লাব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(অলিম্পিয়াকোস এফসি থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অলিম্পিয়াকোস
ওলিম্পিয়াকোস ফুটবল ক্লাব.svg
পূর্ণ নামΟλυμπιακός Σύνδεσμος Φιλάθλων Πειραιώς
অলিম্পিয়াকোস সিন্দেসমোস ফিলাথলন পিরেয়াস
(পিরেয়াসের ভক্তদের অলিম্পিক ক্লাব)
ডাকনামথ্রিলোস (কিংবদন্তি)
এরিথ্রোলেফকি (লাল-সাদা)
প্রতিষ্ঠিত১০ মার্চ ১৯২৫; ৯৫ বছর আগে (1925-03-10)
মাঠকারাইস্কাকিস স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা৩২,১১৫[১][২]
মালিকএভাঙ্গেলোস মারিনাকিস
সভাপতিইয়ানিস মোরালিস
ম্যানেজারপেদ্রো মার্তিন্স
লীগসুপার লীগ গ্রিস
২০১৮–১৯২য়
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

অলিম্পিয়াকোস ফুটবল ক্লাব (গ্রিক: ΠΑΕ Ολυμπιακός Σ.Φ.Π. গ্রিক উচ্চারণ: [olimbiaˈkos]; সংক্ষিপ্ত নাম অলিম্পিয়াকোস, অলিম্পিয়াকোস পিরেয়াস অথবা পূর্ণ নাম অলিম্পিয়াকোস সিএফপি Oλυμπιακός Σύνδεσμος Φιλάθλων Πειραιώς অথবা অলিম্পিয়াকোস সিন্দেসমোস ফিলাথলন পিরেয়াস, "পিরেয়াসের ভক্তদের অলিম্পিক ক্লাব" নামে পরিচিত) হচ্ছে একটি গ্রীক পেশাদার ফুটবল ক্লাব, যার সদত দফতর পিরেয়াসে অবস্থিত। এই ক্লাবটি বড় মাল্টি-স্পোর্টস ক্লাব অলিম্পিয়াকোস সিএফপি-এর অংশ, তাদের নামটি প্রাচীন অলিম্পিক গেমস থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছিল এবং ক্লাবের প্রতীক, লরেল-মুকুটযুক্ত অলিম্পিক অ্যাথলিটের পাশাপাশি প্রাচীন গ্রীসের অলিম্পিক আদর্শের প্রতীক।[৩] এই ক্লাবের সকল হোম ম্যাচ পিরেয়াসের কারাইস্কাকিস স্টেডিয়ামে খেল থাকে, যার ধারণক্ষমতা ৩২,১১৫ জন।[৪]

এই ক্লাবটি ১৯২৫ সালের ১০ই মার্চ তারিখে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে, অলিম্পিয়াকোস গ্রীক ফুটবল ইতিহাসের সর্বাধিক সফল ক্লাব,[৫] ক্লাবটি ৪৪টি লীগ, ২৭টি কাপ (১টি ডাবল) এবং ৪টি সুপার কাপ জয়লাভ করেছে, সবগুলো শিরোপাই রেকর্ড সংখ্যক বার জয়লাভ করেছে।[৬] এই ক্লাবটি সর্বমোট ৭৫টি জাতীয় শিরোপা জয়লাভ করেছে; যার ফলে শিরোপা জয়ের দিক থেকে বিশ্বের সকল দলের মধ্যে ৯ম স্থানে রয়েছে।[৭] এই ক্লাবের আধিপত্যপূর্ণ সাফল্যের আরও প্রমাণ পাওয়া হচ্ছে অন্যান্য গ্রীক ক্লাবগুলোর সাথে সম্মিলিতভাবে ৩৯টি লীগ শিরোপা জয়, অন্যদিকে টানা ৭ বার গ্রীক লীগের শিরোপা জয়ের মাধ্যমে অলিম্পিয়াকোস রেকর্ড করেছে।

অর্জনসমূহ[সম্পাদনা]

ঘরোয়া[সম্পাদনা]

ইউরোপীয়[সম্পাদনা]

আঞ্চলিক[সম্পাদনা]

  • পিরেয়াস এফসিএ চ্যাম্পিয়নশিপ
    • চ্যাম্পিয়ন (২৫) (রেকর্ড): ১৯২৫, ১৯২৬, ১৯২৭, ১৯২৯, ১৯৩০, ১৯৩১, ১৯৩৪, ১৯৩৫, ১৯৩৭, ১৯৩৮, ১৯৪০, ১৯৪৬, ১৯৪৭, ১৯৪৮, ১৯৪৯, ১৯৫০, ১৯৫১, ১৯৫২, ১৯৫৩, ১৯৫৪, ১৯৫৫, ১৯৫৬, ১৯৫৭, ১৯৫৮, ১৯৫৯

ডাবল[সম্পাদনা]

  • চ্যাম্পিয়ন (১৭) (রেকর্ড): ১৯৪৬–৪৭, ১৯৫০–৫১, ১৯৫৩–৫৪, ১৯৫৬–৫৭, ১৯৫৭–৫৮, ১৯৫৮–৫৯, ১৯৭২–৭৩, ১৯৭৪–৭৫, ১৯৮০–৮১, ১৯৯৮–৯৯, ২০০৪–০৫, ২০০৫–০৬, ২০০৭–০৮, ২০০৮–০৯, ২০১১–১২, ২০১২–১৩, ২০১৪–১৫

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Επίσημα στοιχεία ΟΛΥΜΠΙΑΚΟΣ Σ.Φ.Π. 2018-19 (Greek ভাষায়)। superleaguegreece.net। সংগ্রহের তারিখ ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. "Seating Plan" (Greek ভাষায়)। olympiacos.org। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  3. "Olympiacos FC History"। olympiacos.org। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৩ 
  4. "The new Karaiskakis Stadium"। olympiacos.org। ২৩ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০১৩ 
  5. "Olympiacos, a true Greek legend"। fifa.com। ৭ অক্টোবর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৮ 
  6. "Trophies"। olympiacos.org। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১৩ 
  7. Οι ομάδες με τους περισσότερους τίτλους στον κόσμο, 9ος ο Ολυμπιακός (Greek ভাষায়)। sport24.gr। ১০ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৮ 
  8. Olympiacos titles ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১০ মে ২০১৯ তারিখে, Olympiacos official website olympiacos.org

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট