অরণ্যষষ্ঠী ব্রত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

অরণ্যষষ্ঠী ব্রত বা জামাইষষ্ঠী ব্রত বাংলার হিন্দুসমাজের অশাস্ত্রীয় বা মেয়েলি ব্রতগুলির অন্তর্গত একটি ব্রত। গ্রামীণ বাংলার বাঙালি হিন্দুঘরের সন্তানবতী মহিলারা পরিবারের মঙ্গল ও জনসম্পদ বৃদ্ধির কামনায় এই লৌকিক ব্রত পালন করেন। এটি জ্যৈষ্ঠ মাসের শুক্লাষষ্ঠী তিথিতে ষষ্ঠী দেবীর পূজা হিসাবে পালন করা হয়। এদিন বিবাহিতা কন্যা ও জামাতাকে নিমন্ত্রণ করে আপ্যায়নের সামাজিক রীতি আছে। [১][২]

ব্রতের আচার-অনুষ্ঠান[সম্পাদনা]

অরণ্যষষ্ঠী পালনের প্রথম পর্যায়ে প্রয়োজনীয় উপকরণ অর্থাৎ ১টি গাছের ডাল, ৭টি তালপাতার পাখা, বাঁশের নতুন বের হওয়া শিষ, ষাট গাছি দূর্বা, ষাটটি ধান ও বোঁটাসহ জোড়া করমচা সংগ্রহ করতে হয়।

দ্বিতীয় পর্যায়ে ষাটটি ধান পিটুলি করে বাঁশের শিষের সঙ্গে বেঁধে দিতে হয়। এরসাথে যুক্ত করা হয় জোড়া করমচা। এরপরে গাছের ডালটি মাটিতে পুঁতে দিতে হয়।[১]

ব্রতপালনের অঙ্গ হিসাবে অন্য সন্তানদের সঙ্গে নিমন্ত্রিত জামাইয়ের কপালে হলুদ-তেল ছুঁইয়ে হাতে 'ষাট-সূতা' (হলুদে ছোপানো ছয়গাছি পাকানো সুতো) বেঁধে দেওয়া হয়। তারপর নতুন বস্ত্র ও নানারকম উৎকৃষ্ট আহার্যে জামাইকে আপ্যায়ন করা হয়। পশ্চিমবঙ্গের কোনো কোনো জায়গায় জামাইষষ্ঠী উপলক্ষ্যে কাদাখেলার রীতি ও জামাতার গৃহে 'ষষ্ঠীর তত্ত্ব' পাঠানোর চল আছে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলার লোকসংস্কৃতির বিশ্বকোষ, দুলাল চৌধুরী, আকাদেমি অব ফোকলোর, কলকাতা: ৭০০০৯৪, প্রথম প্রকাশ:২০০৪, পৃষ্ঠা: ২৩৪
  2. চক্রবর্তী, ড. বরুণকুমার সম্পাদিত (১৯৯৫)। বঙ্গীয় লোকসংস্কৃতিকোষ। কলকাতা: অপর্ণা বুক ডিস্ট্রিবিউটার্স। পৃষ্ঠা ১৪২। আইএসবিএন 81-86036-13-X