অভ্যন্তরীণ অভিবাসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

অভ্যন্তরীণ অভিবাসন বা স্বদেশী অভিবাসন দ্বারা একটি ভূ-রাজনৈতিক সত্তার মধ্যে মানব-অভিবাসন বোঝান হয় যা সাধারণত একটি জাতিরাষ্ট্রের মধ্যে হয়ে থাকে। মূলত শিক্ষার জন্য কিংবা অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য বা কোনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা নাগরিক ঝামেলার কারণে অভ্যন্তরীণ অভিবাসন ঘটে থাকে। [১] রাজনৈতিক বা অর্থনৈতিক কারণে প্রায়শই আন্তঃসীমান্ত অভিবাসন ঘটে থাকে। নগরায়ণ হিসাবে বর্ণিত গ্রামাঞ্চল থেকে শহুরে অঞ্চলে স্থানান্তর প্রবণতাও অভ্যন্তরীণ অভিবাসনের অন্যতম একটি উদাহরণ।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

[ উদ্ধৃতি প্রয়োজন ]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পৃথিবীর অনেক দেশেই বড় রকমের অভ্যন্তরীণ অভিবাসনের রীতি চালু রয়েছে।

  • মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিম্নলিখিত বড় অভিবাসনের ঘটনা ঘটেছে :
    • ঊনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি সময়ে পশ্চিম উপকূলের দিকে পূর্ব দিকে অবস্থিত রাজ্য়সমূহ থেকে একটি বিশাল অভ্যন্তরীণ অভিবাসন ঘটেছে।
    • আফ্রিকান আমেরিকানদের বৃহৎ আকারে অভিবাসন এটি মূলত তিনটি পর্যায়ে বিভক্ত করা যায় : প্রথম অভিবাসনটি বিংশ শতকের গোড়ার দিকে প্রথম কৃষিপ্রধান দক্ষিণ অংশ থেকে শিল্পোন্নত উত্তর-পূর্ব এবং মধ্য-পশ্চিম অংশে ঘটেছিল। একই দিকে অনুরূপভাবে ১৯৪০ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত দ্বিতীয় দফায় অভিবাসন সম্পন্ন হয়েছিল। অবশেষে দেশটির অন্যান্য অংশ থেকে শহুরে দক্ষিণাংশে বিপরীত অভিবাসন যা বিংশ শতাব্দীর শেষ দিকে আরম্ভ হয়।
    • বিশ শতকের গোড়ার দিকে গ্রামীণ সমভূমিসমূহ জনশুন্য় হতে শুরু করে এবং বর্তমানে অনেক গ্রামীণ কাউন্টিতে জনসংখ্যা তাদের ১৯০০ সালের জনসংখ্যার ৪০% এরও কম রয়েছে।
    • ১৯৩০ এর দশকের ধুলি ঝড় এর সময় সুস্থিত অভিবাসন শুরু হয়েছিল কিন্তু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে তা দক্ষিণ ও পশ্চিম আমেরিকার সান বেল্ট এর দিকে তরান্বিত হয় । সমগ্র জাতিগোষ্ঠীই এই অভিবাসন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত ছিল।
    • ১৯৯০ সাল থেকে শুরু হয় ক্যালিফোর্নিয়া থেকে অন্যান্য রাজ্যে বেশিরভাগ শ্রমজীবী এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের অভিবাসন। তবে বিশেষত শ্বেতাঙ্গশ্রেণির মানুষেরা এই চলমান অভিবাসন প্রক্রিয়ার অন্তর্গত ছিল।
  • ঐতিহাসিকভাবেই যুক্তরাজ্যে অনেকবারই ইংল্যান্ডের উত্তর থেকে দক্ষিণে এবং স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড (সম্প্রতি উত্তর আয়ারল্যান্ড ) এবং ওয়েলস থেকে ইংল্যান্ডে অভিবাসনের ঘটনা ঘটেছে। এটি ছিল শিল্প বিপ্লবকালে এবং আইরিশ আলুর দুর্ভিক্ষের পরেও সর্বাধিক প্রচলিত অভিবাসন।
  • নিউজিল্যান্ডে, মানুষের উত্তরাংশে গমনের প্রবণতা যাচাই করে দেখা গেছে যে উত্তরে অবস্থিত নগর অঞ্চলে অকল্যান্ডের মানুষ অভিবাসন করায় দক্ষিণ দ্বীপে ধীরে ধীরে জনসংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে।
  • ফিলিপাইনে, কেন্দ্রীয় সরকার এবং সরকারী ক্ষমতা এবং তহবিলের প্রায় অসম বিতরণের কারণবশত, প্রদেশের লোকেরা আরও ভাল চাকরি এবং সুযোগের সন্ধানের উদ্দেশ্যে মেট্রো ম্যানিলার দিকে যাত্রা শুরু করে। এটি তখন থেকেই অব্যাহত ছিল, যদিও এখন তা সংখ্যায় অনেক কম । বর্তমানে মেট্রো সেবু এবং মেট্রো দাভাও অভ্যন্তরীণ অভিবাসীদের বিকল্প গন্তব্য হিসাবে ক্রমশই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।
  • ১৯৫০ ও ১৯৬০ এর দশকে ইতালির অর্থনৈতিক অলৌকিক ঘটনা চলাকালীন উত্তর - পশ্চিম ইতালিতে তথাকথিত "শিল্প ত্রিভুজ" এর দরুন দক্ষিণ ইতালি থেকে অভিবাসীদের আগমন ঘটেছিল। কারণ তৎকালীন দেশের দক্ষিণাঞ্চল ছিল অনুন্নত এবং তা দারিদ্র্যের কবলে পড়েছিল। ১৯৫৫ থেকে ১৯৬৩ সালের মধ্যে অভিবাসন শীর্ষে পৌঁছেছিল, যখন প্রায় ১,৩০০,০০০ দক্ষিণাঞ্চলীয় শ্রমিকের উত্তরের শিল্প শহরগুলোতে আগমন ঘটেছিল। আশির দশকের বিরতির পরে উত্তর-দক্ষিণের অভিবাসন পুনরায় আরম্ভ হয়েছে, এবার উত্তর এবং মধ্য ইতালির অন্যান্য অঞ্চলে তা চলে গেছে।

মাধ্যমিক অভিবাসন[সম্পাদনা]

অভ্যন্তরীণ অভিবাসনের একটি উপ নমুনা হল অভিবাসী গোষ্ঠীর স্থানান্তর — যাকে প্রায়শই গৌণ বা পরবর্তী অভিবাসন হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। মাধ্যমিক অভিবাসন শব্দটি অবশ্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে অভিবাসীদের স্থানান্তরকে বোঝাতেও ব্যবহৃত হয়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবা প্রশাসনের শিশু ও পরিবার প্রশাসনের একটি কর্মসূচিতে অফিস অফ রিফিউজি রিসেটেলমেন্ট কে পুনর্বাসিত শরণার্থীদের দ্বিতীয় স্থানান্তর পরিচালনার দায়িত্ব আরোপ করা হয়েছে। [২][৩] তবে, মাধ্যমিক অভিবাসন এবং সম্পর্কিত কর্মসূচীর কাঠামোগত পরিবর্তন সম্পর্কে খুব কম তথ্যই রয়েছে। [৪] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসিত শরণার্থী বণ্টনের পিছনে অন্যতম চালিকা শক্তি হিসাবে ধারণা করা হয় মাধ্যমিক অভিবাসনকেই । [৫]

সোমালি এবং যুক্তরাষ্ট্রে মাধ্যমিক অভিবাসন[সম্পাদনা]

সোমালি নামক একটি শরণার্থী গোষ্ঠী যা প্রথমদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছিল এবং মিনেসোটা, ওহাইও ও ওয়াশিংটনে উল্লেখযোগ্য হারে সম্প্রদায় গঠন করেছে। [৬] ওহাইওর মিনেপোলিস, মিনেসোটা এবং কলম্বাসে মাধ্যমিক অভিবাসন সোমালি আমেরিকান জনসংখ্যার দিক দিয়ে এই দুটি অঞ্চলকে যথাক্রমে প্রথম এবং দ্বিতীয় করেছে। ভূগোলবিদ তমারা মট বলেছেন যে সোমালিদের কলম্বাস আগমনের পেছনে মূল কারণই ছিল পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং অন্যান্য সোমালিদের সাথে নিকটবর্তী হওয়া , ওএইচ [৭] যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত সোমালিরা প্রায়শই বিদেশে তাদের বর্ধিত পরিবারের সম্পদ পাঠাত, মানি রেমিটেন্স ইম্প্রুভমেন্ট আইনে স্বাক্ষর করে তারা এ সুবিধা প্রাপ্ত হত। [৮] ২০০১ সালের ফেব্রুয়ারিতে সমাজসেবা সংস্থাগুলো কয়েকটি পরিবারকে সেখানে স্থানান্তরিত করার পরে মেইন লুইস্টন সোমালিদের জন্য দ্বিতীয় অভিবাসন গন্তব্য়ে পরিণত হয়। [৯] ১৯৮২ এবং ২০০০ সালের মধ্যে, পুনর্বাসনের এজেন্সিসমূহ পোর্টল্যান্ড, মেইন অঞ্চলে ৩১৫ সোমালিসহ অন্যান্য শরণার্থীদের রাখতে শুরু করে। পোর্টল্যান্ডে উচ্চ হারে আবাসন ভাড়া অধিগ্রহণের কারণে প্রথমে এরা লুইস্টনে স্থানান্তরিত হয়েছিল। সোমালিদের রয়েছে যাযাবরদের মত জীবনযাপনের ইতিহাস। এরা প্রায়শই সেলফোনের মাধ্যমে , বর্ধিত পরিবার, বংশের সদস্য এবং বন্ধুবান্ধবদের একটি বিশাল নেটওয়ার্ক তৈরি করে যোগাযোগ বজায় রাখত। পরে সোমালিরা লুইস্টন সম্পর্কে আরোও জানতে পারে এবং সেখানকার জীবনযাত্রার মান তাদের আকৃষ্ট করে ফেলে। তুলনামুলক অল্প বাসা ভাড়া , ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠা, নিরাপত্তা এবং শিশুদের বৃহত্তর সামাজিক নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি নিশ্চয়তা পাবার কারণে তারা এ ছোট শহরটিকে পছন্দ করে ফেলে। ২০০১ সালের ফেব্রুয়ারি এবং ২০০২ সালের আগস্টের মধ্যেই প্রায় ১০০০ এর বেশি সংখ্যক সোমালি লুইস্টনে চলে আসে। [৭] এই প্রথমদিকের মাধ্যমিক অভিবাসীদের বেশিরভাগই আটলান্টার ঠিক বাইরে শহরতলিতে অবস্থিত জর্জিয়ার ক্লার্কস্টন থেকে আগমন করেছিল। ২০০৭ সালের মধ্যেই সোমালিরা লুইস্টনের [১০] জনসংখ্যার প্রায় ৬.৫% হয়ে পড়ে এবং পুরো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কমপক্ষে আরও তিনটি দেশ থেকে এই শহরে এরা অভিবাসন করে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "World Migration Report 2020"। ২০১৯-১১-২৭। আইএসএসএন 2414-2603আইএসবিএন 9789290687894ডিওআই:10.18356/b1710e30-en 
  2. 96th Congress (মার্চ ১৭, ১৯৮০)। "Public Law 96-212" (PDF)United States Government Publishing Office। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৭ 
  3. 1980 Refugee Act। ১৭ মার্চ ১৯৮০। 
  4. Ott, Eleanor (সেপ্টেম্বর ২০১১)। "Get up and go: Refugee resettlement and secondary migration in the USA" 
  5. Forrest, Tamar Mott; Brown, Lawrence A (৭ এপ্রিল ২০১৪)। "Organization-Led Migration, Individual Choice, and Refugee Resettlement in the US: Seeking Regularities": 10–32। ডিওআই:10.1111/j.1931-0846.2014.12002.x 
  6. Forrest, Tamara Mott; Brown, Lawrence A. (জানু ২০১৪)। "Organization-Led Migration, Individual Choice, and Refugee Resettlement in the U.S.: Seeking Regularities": 10–32। ডিওআই:10.1111/j.1931-0846.2014.12002.x 
  7. Mott, Tamara E. (ফেব্রু ২০১০)। "African refugee resettlement in the US: the role and significance of voluntary agencies": 1–31। ডিওআই:10.1080/08873631003593190 – MasterFILE Elite-এর মাধ্যমে। 
  8. "Ellison and Paulsen Reintroduce Money Remittances Improvement Act To Help Somali Families Send Money Home"। House Office of Keith Ellison। ৬ মে ২০১৪। ২৬ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১৪ 
  9. Somalis in Maine: Crossing Cultural Currents। North Atlantic Books। ২০১১। পৃষ্ঠা 23–56। আইএসবিএন 978-1-55643-926-1 
  10. Nadeau, Phil (Summer ২০০৭)। "The New Mainers: State and local agencies form partnerships to help Somali immigrants": 55–57। ডিওআই:10.1002/ncr.180 – Advanced Placement Source-এর মাধ্যমে।