আইরিশ সাগর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আইরিশ সাগরের রিলিফ মানচিত্র; মালামাল ও যাত্রী উভয়কে পরিবহনকারী বন্দরগুলি লাল বিন্দু দিয়ে এবং কেবল মালামাল পরিবহনের বন্দরগুলিকে নীল বিন্দু দিয়ে দেখানো হয়েছে।

আইরিশ সাগর (আইরিশ: Muir Éireann,[১] মাংক্স: Y Keayn Yernagh,[২] স্কট্‌স: Erse Sea, স্কটল্যান্ডীয় গ্যালিক: Muir Èireann,[৩] Ulster-Scots: Airish Sea, ওয়েলশ: Môr Iwerddon) বা মান সাগর বা মাংক্স সাগর (আইরিশ: Muir Meann,[৪] মাংক্স: Mooir Vannin, স্কটল্যান্ডীয় গ্যালিক: Muir Mhanainn).[৫][৬][৭] আটলান্টিক মহাসাগরের একটি বাহু যা পশ্চিমে আয়ারল্যান্ড দ্বীপ এবং পূর্বে গ্রেট ব্রিটেন দ্বীপকে পৃথক করেছে। এটির আয়তন প্রায় ১ লক্ষ বর্গকিলোমিটার। সাগরটি উত্তর-পশ্চিমে নর্থ চ্যানেলের মাধ্যমে এবং দক্ষিণে সেন্ট জর্জেস চ্যানেলের মাধ্যমে আটলান্টিক মহাসাগরের সাথে সংযুক্ত। আইল অভ মান আইরিশ সাগরের বৃহত্তম দ্বীপ। আঞ্চলিক বাণিজ্য, আমদানি-রপ্তানি, পরিবহন, মৎস্য শিকার, বায়ুপ্রবাহ থেকে উৎপন্ন বিদ্যুৎশক্তি, নিউক্লীয় প্ল্যান্ট, ইত্যাদি কারণে আইরিশ সাগর গুরুত্বপূর্ণ। সাগরটির তলদেশ দিয়ে প্রায় ৮০ কিলোমিটার সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ব্রিটেন ও আয়ারল্যান্ড দ্বীপদুইটির মধ্যে রেল যোগাযোগ স্থাপনের ব্যাপারটি নিয়ে বহুদিন ধরে আলোচনা হচ্ছে। বর্তমানে এই দুই দ্বীপের মধ্যে বাৎসরিক প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ যাত্রী এবং ১৭ মিলিয়ন টন দ্রব্য আসা-যাওয়া করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Focal.ie
  2. "Ellan Vannin" (Manx ভাষায়)। Centre for Manx Studies ("Laare-Studeyrys Manninagh")। সংগৃহীত 8 July 2011 
  3. Cambridge Medieval Celtic Studies , Issues 33–35 University of Cambridge (Gran Bretaña). Department of Anglo-Saxon, Norse and Celtic 1997
  4. Electronic Dictionary of the Irish Language
  5. Bannerman, David Armitage (1963)। The Birds of the British Isles: Volume 12। Edinburgh: Oliver and Boyd। পৃ: 84। 
  6. The Caledonian: Volume 4 (New York: Caledonian Publishing Co.): pp. 25। 1903। 
  7. "Irish Sea Facts"। Irish Sea Conservation। সংগৃহীত 3 July 2011 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]