হোয়াইট হাউস

স্থানাঙ্ক: ৩৮°৫৩′৫২″ উত্তর ৭৭°০২′১১″ পশ্চিম / ৩৮.৮৯৭৭° উত্তর ৭৭.০৩৬৫° পশ্চিম / 38.8977; -77.0365
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হোয়াইট হাউস
White House north and south sides.jpg
শীর্ষ: লাফায়েট স্কয়ারের মুখোমুখি স্তম্ভযুক্ত বারান্দা (পোর্টিকো) সহ উত্তর ফ্যাসাদ
নিচ: একটি অর্ধবৃত্তাকার চাঁদনি সঙ্গে দক্ষিণ ছদ্মরূপ, faces উপবৃত্ত
বর্তমান বাসিন্দা : ডোনাল্ড ট্রাম্প , মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি এবং তার পরিবারবর্গ
লুয়া ত্রুটি মডিউল:অবস্থান_মানচিত্ এর 480 নং লাইনে: নির্দিষ্ট অবস্থান মানচিত্রের সংজ্ঞা খুঁজে পাওয়া যায়নি। "মডিউল:অবস্থান মানচিত্র/উপাত্ত/মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ওয়াশিংটন, ডি.সি." বা "টেমপ্লেট:অবস্থান মানচিত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ওয়াশিংটন, ডি.সি." দুটির একটিও বিদ্যমান নয়।
সাধারণ তথ্য
স্থাপত্য রীতিনিওক্লাসিক্যাল, প্যালাডিয়ান
ঠিকানা১৬০০ পেনসিলভানিয়া এভিনিউ NW
ওয়াশিংটন, ডি.সি. ২০৫০০
ইউএস
স্থানাঙ্ক৩৮°৫৩′৫২″ উত্তর ৭৭°০২′১১″ পশ্চিম / ৩৮.৮৯৭৭° উত্তর ৭৭.০৩৬৫° পশ্চিম / 38.8977; -77.0365
বর্তমান দায়িত্বডোনাল্ড ট্রাম্প, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম রাষ্ট্রপতি এবং প্রথম পরিবার
নির্মাণ শুরু হয়েছে১৩ অক্টোবর ১৭৯২; ২২৮ বছর আগে (1792-10-13)
সম্পূর্ণ১ নভেম্বর ১৮০০; ২২০ বছর আগে (1800-11-01)[১]
কারিগরী বিবরণ
তলার আয়তন৫৫,০০০ ফু (৫,১০০ মি)
নকশা এবং নির্মাণ
স্থপতিজেমস হোবান
ওয়েবসাইট
whitehouse.gov
এনআরএইচপি সূত্র #19600001[২]
মনোনীত NHL১৯ ডিসেম্বর ১৯৬০

হোয়াইট হাউস বা সাদা বাড়ি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতির দাপ্তরিক বাসভবন। ওয়াশিংটন, ডি.সির পেনসিলভানিয়া এভিনিউয়ে অবস্থিত এই বাসভবনটি ১৭৯২ থেকে ১৮০০ সালের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়। জন অ্যাডামসের পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সকল রাষ্ট্রপতিই এই বাসভবনে ছিলেন। এই ভবনের স্থাপতি ছিলেন জেমস হোবান, তিনি আয়ারল্যান্ডের নাগরিক। ১৮০১ সালে টমাস জেফারসন হোয়াইট হাউসে উঠলে, তিনি ভবনের সামনের দিকের অংশ প্রসারিত করেন। তিনি ভবনটির সামনে দুইটি স্তম্ভসারি তৈরি করেছিলেন[৩]

১৮১৪ সালে যুদ্ধের সময় ব্রিটিশ সেনাবাহিনী হোয়াইট হাউসকে আগুনে পুড়িয়ে ফেলে, এ সময় বাসভবনটির পুরো অভ্যন্তরের অংশ এবং বাহিরের বেশ খানিকটা অংশ ধ্বংস হয়ে যায়। প্রায় সাথে সাথেই পুনঃনির্মাণ আরম্ভ হয়। ১৮১৭ সালের অক্টোবরে জেমস মন্‌রো এ আংশিক নির্মিত ভবনে ওঠেন। এদিকে ভবনের নির্মাণ কার্যক্রম চলতে থাকে। ১৮২৪ সালে ভবনের দক্ষিণভাগের এবং ১৮২৯ সালে উত্তরদিকের স্তম্ভগুলো নির্মিত হয়। ১৯০৯ সালে প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম হাওয়ার্ড ট্যাফ্‌ট্‌ ভবনের দক্ষিণ অংশ সম্প্রসারিত করেন এবং সর্বপ্রথম ওভাল অফিস প্রতিষ্ঠা করেন। ওভাল অফিস পরবর্তিতে ভবনের সম্প্রসারণের কারণে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়। তৃতীয় তলার চিলেকোঠাটি ১৯২৭ সালে বাসযোগ্য করে তৈরি করা হয়। সামাজিক অনুষ্ঠানের অভ্যর্থনার জন্য ভবনটির পূর্ব দিকে একটি অংশ তৈরি করা হয়। তৈরিকৃত উভয় অংশই জেফারসনের নির্মিত স্তম্ভসারির সাথে সংযুক্ত করা হয়েছিল।

কেনেডির পুন:নির্বাচন সময় থেকে হোয়াইট হাউস[সম্পাদনা]

প্রেসিডেন্ট কেনেডি এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট জনসন

হোয়াইট হাউসের ঐতিহাসিক চরিত্র জন্য , ট্রুম্যান সংস্কারের পর আর কোন স্থাপত্য পরিবর্তন করা হয়নি ।[৪] কেনেডির পুন:নির্বাচন থেকে প্রতি রাষ্ট্রপতি পরিবার হোয়াইট হাউসের ব্যক্তিগত অংশের কিছু পরিবর্তন করেছেন , কিন্তু হোয়াইট হাউস সংরক্ষণ কমিটি থেকে পরিবর্তনের অনুমোদন নিতে হয়েছে । হোয়াইট হাউসের ঐতিহাসিকতা বজায় রাখার জন্য , কংগ্রেস অনুমোদিত এই কমিটি প্রতিটি পরিবার - সাধারণত ফার্স্টলেডীর প্রতিনিধিত্বে কাজ করে । [৫]

হোয়াইট হাউস ওয়াশিংটনে প্রথম হুইলচেয়ার - প্রবেশযোগ্য সরকারি ভবন হয়ে ওঠে যখন ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট এর শাসনকালে পরিবর্তন করা হয় , যিনি পক্ষাঘাতগ্রস্ত অসুস্থতার কারণে একটি হুইলচেয়ার ব্যবহার করতেন ।

রাষ্ট্রপতি সাধারণত সরকারি মোটরগাড়ি বা হেলিকপ্টারের মাধ্যমে হোয়াইট হাউস থেকে সরাসরি ভ্রমণ করে থাকেন । ১৯৫০-এর দশকে , রাষ্ট্রপতি ডোয়াইট ডি আইজেনহাওয়ার প্রথম হোয়াইট হাউস থেকে হেলিকপ্টারে করে যাতায়াত করেন ।

মিসেস নিক্সনের প্রচেষ্টায় বাড়িতে ৬০০টির অধিক মূল্যবান বস্তুসামগ্রী আনা হয় ।

কম্পিউটার ও প্রথম লেজার প্রিন্টার কার্টার প্রশাসনের সময় যোগ করা হয় এবং কম্পিউটার প্রযুক্তির ব্যবহার রিগ্যান প্রশাসনের সময় প্রসারিত করা হয়েছিল ।

২০১৩ সালে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা হোয়াইট হাউসের ছাদে সৌর প্যানেল একটি সেট স্থাপন করেন ।

বিন্যাস এবং সুযোগ-সুবিধা[সম্পাদনা]

আজ অধ্যক্ষতা হাউজিং ভবনগুলি একত্রে হোয়াইট হাউসের কমপ্লেক্স নামে পরিচিত। এটা কেন্দ্রীয় নির্বাহী রেসিডেন্স, দুপাশে ইস্ট উইং এবং ওয়েস্ট উইং দ্বারা পরিবেষ্টিত রয়েছে । প্রধান নকীব পরিবারের প্রত্যাহিক কাজকর্মকে রুপায়ন করেন ।

Layout of entire site
White House Complex
Ground floor
State floor
Second floor (residence)

নামকরণ প্রচলন[সম্পাদনা]

ভবনটি মূলত "রাষ্ট্রপতির প্রাসাদ", "প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ", বা "রাষ্ট্রপতির ঘর" হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছিল। জনসাধারণের প্রথমতম প্রমাণটি হল "হোয়াইট হাউস" রেকর্ড করা হয়েছিল ১৮১১ সালে। একটি পৌরাণিক ঘটনাটি আবির্ভূত হয়েছিল যে ওয়াশিংটনে নির্মিত কাঠামোটি পুড়ে যাবার পর কাঠামোর পুনর্নির্মাণের সময়, সাদা রং প্রয়োগ করেছিল সাদা রংটি তা আচ্ছাদন করেছিল । তাই ভবনটির নাম ঐ রংয়ের নামে নামকরণ করা হয়েছিল। ১৯০১ সালে রাষ্ট্রপতি থিওডোর রুজভেল্ট দ্বারা কাগজপত্রে "হোয়াইট হাউস-ওয়াশিংটন" নামটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত "এক্সিকিউটিভ ম্যানশন" নামটি অফিসিয়াল কাজে ব্যবহার করা হত। বর্তমান ছাপানো নামঠিকানা শব্দ এবং ব্যবস্থা "হোয়াইট হাউস" শব্দটির সাথে "ওয়াশিংটন" শব্দটির সাথে কেন্দ্রীভূত হয়ে ফ্রাঙ্কলিন ডি. রুজভেল্ট প্রশাসনিকভাবে ব্যবহার করের।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; jYAHg নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; nris নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. Michael W. Fazio and Patrick A. Snadon (২০০৬)। The Domestic Architecture of Benjamin Henry Latrobe। The Johns Hopkins University Press। পৃষ্ঠা 364–366। 
  4. "Architecture: 1970s"। White House Historical Association। ২০১১-০১-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-০৭ 
  5. "Executive Order 11145—Providing for a Curator of the White House and establishing a Committee for the Preservation of the White House"। The U.S. National Archives and Records Administration। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-১১-০৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]