হাশাশিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
১৪ শতকের চিত্রে হাশাশিনদের হাতে নিজামুল মুলকের হত্যাকান্ড।

হাশাশিন (আরবি: حشّاشين‎‎ Ḥashshāshīn[১]) হল নিজারি ইসমাইলি মতবাদের একটি গোষ্ঠী। বিশেষ করে পারস্যসিরিয়ায় তারা তাদের কর্মকাণ্ড চালাত। ১১ শতকে এই গোষ্ঠীর জন্ম হয়। এসময় তারা সুন্নি সেলজুক সাম্রাজ্যের জন্য মারাত্মক সামরিক হুমকি তৈরী করে। হাসান সাবাহ তাদের নেতৃত্ব দেন। তারা আলামুত নামক পর্বত দুর্গ দখল করতে সক্ষম হয়। এটি তাদের সদরদপ্তর ছিল।মার্কো পোলোর বিবরণ পি কে হিট্টি আরব জাতির ইতিহাস বইয়ে উল্লেখ করেছেন যেভাবে "তিনি যাকে অ্যাশিশিন করতে চাইবেন তাকে ছাড়া কাউকেই এখন ওই বাগানে প্রবেশ করতে দেওয়ক হত না।বাগানের প্রবেশপথে একটি দুর্গ ছিল।গোটা পৃথিবীর আক্রমণ প্রতিহত করার শক্তি তাঁর ছিল।এছাড়া বাগানে ঢোকার আর কোন রাস্তাও ছিল না।তাঁর দরবারে ১২ থেকে ২০ বছর ের কিছু সংখ্যক যুবককে তিনি রেখেছিলেন।এদের সৈন্য হবার ইচ্ছাছিল......তারপর একবারে চার,ছয় বা দশজনকে বাগানে নিয়ে যেতেন।প্রথমে তাদের এমন একটি পানীয় খাওয়াতেন যাতে তারা গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে।তারপর তাদের বহন করে ভিতরে নিয়ে যাওয়া হত।সুতরাং তারা যখন জেগে উঠত,তারা দেখত যে তারা বাগানে ঢুকে পড়েছে।জেগে উঠে এমন একটা মনোরম স্থানে নিজেদের দেখে মনে করত যে,এটা প্রকৃতই স্বর্গ।যুবতী ও তরুণীরা সেখানে তাদের আলিঙ্গন করত যতক্ষণ না তারা পরিতৃপ্ত হয়.....।সুতরাং যখন সে প্রবীণ ব্যক্তিটি যখন কোন রাজপুত্রকে হত্যা করতে চাইতেন তখন এমন একজন যুবককে ডেকে বলতেন,"তুমি যাও এবং অমুক অমুককে হত্যা করে আস।যখন তুমি ফিরে আসবে দেবদূতরা তোমাকে স্বর্গে নিয়ে যাবে।আর যদি তোমার মৃত্যুও ঘটে তা স্বত্ত্বেও আমি তোমার দেহ বহন করে স্বর্গে নিয়ে আসার জন্য ফেরেস্তাদের পাঠাব।"বিভিন্ন শাসক সেনাপতিকে এই গুপ্ত ঘাতকরা হত্যা শুরু করলে তখনকার বিশ্বে একটি আতঙ্ক সৃস্টি হয়েছিল।তাদেরকে কোন শাসকও পরাজিত করতে পারছিল ন।পরে হালাকু খান ওদের ধ্বংস করে সেক্ষেত্রে তাকে সহযোগিতা না করার অযুহাতে আব্বাসীয় খেলাফত বিনাশসহ বাগদাদ ধ্বংস করেন।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "hashish - definition of hashish by the Free Online Dictionary, Thesaurus and Encyclopedia"। Thefreedictionary.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৪-১১