হাম্মুরাবি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হাম্মুরাবি Hammurabi
𒄩𒄠𒈬𒊏𒁉
F0182 Louvre Code Hammourabi Bas-relief Sb8 rwk.jpg
জন্ম১৮১০ খ্রিস্টপূর্ব
মৃত্যু১৭৫০ খ্রিস্টপূর্ব মধ্য কালক্রম
উপাধিব্যাবিলনের রাজা
মেয়াদ৪২ বছর; ১৭৯২- ১৭৫০ খ্রিস্টপূর্ব
উত্তরসূরীসামসু-ইলুনা
সন্তানসামসু-ইলুনা
সি. ১৭৯২ খ্রিস্টপূর্বে হাম্মুরাবি সিংহাসনে আরোহণের পর এবং সি. ১৭৫০ খ্রিস্টপূর্বে তার মৃত্যুর পর ব্যাবিলয়নিয়ান অঞ্চল মানচিত্রে প্রদর্শন করা হয়েছে।

Hammurabi বাংলায়, হাম্মুরাবি[ক] (আনু. 1810 – আনু. 1750 BC) ছিলেন প্রথম ব্যাবলনিয়ান রাজবংশের আমরাইত গোত্রের ষষ্ঠ শাসক। [১] তার পিতা সিন-মুবাল্লিত এর মৃত্যুর পর আঠারো বছর বয়সে তিনি ব্যাবিলন নগর রাষ্ট্রের সিংহাসনে বসেছিলেন। এই নগররাষ্ট্রের প্রথম রাজবংশের ষষ্ঠ রাজা হিসেবে হাম্মুরাবি যখন দায়িত্ব নেন, ব্যাবিলন তখন ছোট্ট একটি দেশ। মেসোপটেমিয়া অঞ্চলে এ রকম আরো অনেকগুলো নগর রাষ্ট্র ছিল, আর সেই সব রাজ্যের নিজেদের মধ্যেও লড়াই ছিল।[২] তবে তার পূর্বপুরুষদের সময়ই বোরসিপ্পা, কিশ এবং সিপ্পার পর্যন্ত রাজ্য বিস্তার করে ব্যাবিলনিয়ানরা আঞ্চলিক রাজশক্তি হয়ে ওঠার পথে খানিকটা এগিয়েছিল।

শামসি-আদাদ, লারসা, এশনুনা আর এলাম-এর মতো আরো কয়েকটি শক্তিশালী প্রতিবেশী রাজ্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জিতে প্রকৃতপক্ষে হাম্মুরাবিই ব্যাবিলনিয়ান নগর রাষ্ট্রকে ব্যাবিলনিয়ান সাম্রাজ্যে রূপান্তর করেছিলেন। সে অর্থে তাকেই বলা যায় ব্যাবিলনিয়ান সাম্রাজ্যের প্রথম সম্রাট।

প্রাচীন ইতিহাসে হাম্বুরাবি, হাম্বুরাবি আইন প্রবর্তনের জন্য সুপরিচিত। তিনি নিজে দাবী করেন যে এই আইন তিনি সূর্য় দেব শামাশের কাছ থেকে পেয়েছিলেন। আধুনিক আইনের তুলনায় হাম্বুরাবির প্রবর্তিত আইন বেমানান মনে হলেও তৎকালিন সমাজ ব্যবস্থার বিবেচনায় এবং মানব সমাজে প্রথম লিখিত আইন হিসাবে এর গুরুত্ব অনেক। তৌরাতে বর্ণিত মূসা (আঃ) এর প্রবর্তিত আইনের সাথে এর অনেক মিল রয়েছে।

হাম্বুরাবির প্রণিত আইন[সম্পাদনা]

হাম্মুরাবি আইনকানুনের পাথরের খন্ডের উপরের অংশ।

হাম্বুরাবির আইন পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন আইন নয়;[৩] Ur-Nammu, Laws of Eshnunna এবং Lipit-Ishtar এর আইন।[৩] হাম্বুরাবীর আইনের চেয়ে প্রাচীন আইন। তবে, হাম্বুরাবী আইন, এই সকল প্রাচীন আইনের চেয়ে আলাদা ছিল। এবং সমাজে এই আনের প্রভাব ছিল অতীতের সকল আইনের চেয়ে বেশী ছিল। [৪][৫][৩]

তবে হাম্মুরাবি খ্যাতির কারণ তার যুদ্ধজয় নয়। হাম্মুরাবির আইন নামে বিখ্যাত তার আইন সংকলনই পৃথিবীজোড়া খ্যাতি এনে দিয়েছে তাকে। ১৯০১ সালে এলামিদের প্রাচীন রাজধানী সুসা থেকে আবিস্কৃত হয়েছে অমূল্য এই সংকলন। মোট ১২টি পাথরের টুকরোয় খোদাই করে লেখা ২৮২টি আইনের এই সংকলন পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন লিখিত আইন সংকলন হিসেবে পরিচিত। ব্যাবিলনের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত আক্কাদীয়ান ভাষায় লেখা হয়েছিল এই আইনগুলো, তাই অক্ষরজ্ঞানসম্পন্ন যে কেউ এগুলো পড়তে ও বুঝতে পারতেন।[৬] বর্তমানে প্যারিসের লুভ্র্‌ জাদুঘরে সংরক্ষিত আছে এই অমূল্য প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Hammurabi | Biography, Code, Importance, & Facts" 
  2. Beck, Roger B. (১৯৯৯)। World History: Patterns of Interactionবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন। Evanston, IL: McDougal Littell। আইএসবিএন 0-395-87274-Xওসিএলসি 39762695  অজানা প্যারামিটার |coauthors= উপেক্ষা করা হয়েছে (|author= ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে) (সাহায্য)
  3. Davies, W. W. (জানুয়ারি ২০০৩)। Codes of Hammurabi and Moses। Kessinger Publishing। আইএসবিএন 978-0-7661-3124-8ওসিএলসি 227972329 
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Breasted2003 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  5. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Bertman2003 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  6. Breasted 2003, পৃ. 141

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
সিন-মুবাল্লিত
ব্যাবিলনের রাজা উত্তরসূরী
সামসু-ইলুনা


উদ্ধৃতি ত্রুটি: "lower-alpha" নামক গ্রুপের জন্য <ref> ট্যাগ রয়েছে, কিন্তু এর জন্য কোন সঙ্গতিপূর্ণ <references group="lower-alpha"/> ট্যাগ পাওয়া যায়নি, বা বন্ধকরণ </ref> দেয়া হয়নি