হামদান বিন মোহাম্মাদ আল মাকতুম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শেখ হামদান
যুবরাজ
আল ফালাসি রাজবংশ
H.H. Sheikh Hamdan Bin Mohammed Bin Rashid Al Maktoum in Summit on the Global Agenda.jpg
গ্লোবাল এজেন্ডা সামিট ২০০৯ এ শেখ হামদান
যুবরাজ
ঘোষণা১ ফেব্রুয়ারি, ২০০৮ – বর্তমান
জন্ম (1982-11-14) ১৪ নভেম্বর ১৯৮২ (বয়স ৩৮)
দুবাই, সংযুক্ত আরব আমিরাত
দাম্পত্য সঙ্গীসোনিয়া সিদ্দিকী ()
পূর্ণ নাম
হামদান বিন মোহাম্মাদ আল মাকতুম
রাজবংশআল ফালাসি
পিতামোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম
মাতাহিন্দ বিনতে মাকতুম বিন জুমা আল মাকতুম
ধর্মইসলাম

শেখ হামদান বিন মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম (আরবি حمدان بن محمد بن راشد آل مكتوم) (জন্মঃ ১৪ নভেম্বর, ১৯৮২) হলেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের যুবরাজ। তিনি ফাজ্জা (আরবি: فزاع‎‎) নামেও পরিচিত। এই ছদ্মনাম ব্যবহার করে তিনি তার নিজের লেখা কবিতাগুলো প্রকাশিত করেন। এই নামের অর্থ "যিনি সহায়তা করেন"।

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

হামদান বিন মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম এবং শেখ হিন্দ বিনতে মাক্তুম বিন জুমা আল মাক্তুমের পুত্র। তিনি তাদের ১২ সন্তানের দ্বিতীয় পুত্র। হামদানের আপন মাত্র্যেয় বড় ভাই হলেন শেখ রশিদ বিন মোহাম্মদ।[১]

হামদান বিন মোহাম্মদ আল মাকতুম দুবাইয়ে রশিদ স্কুল ফর বয়েজ এবং পরে দুবাই স্কুল অফ গভর্নমেন্টে পড়াশোনা করেছিলেন।[২] তারপর তিনি যুক্তরাজ্যে উচ্চতর পড়াশোনা চালিয়ে যান। সেখানে তিনি ২০০১ সালে রয়েল মিলিটারি একাডেমি স্যান্ডহার্স্ট থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন।[৩] পরে তিনি লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিক্সে পড়াশোনা করেন।[৪][৫]

অবদান[সম্পাদনা]

হামদান ২০০৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে দুবাই এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ লাভ করেন।[৫] ১ ফেব্রুয়ারি, ২০০৮ সালে তিনি দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স হিসেবে অভিষিক্ত হন। ২০০৯ এর জুলাইয়ে তিনি হামদান বিন মোহাম্মদ স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট হন। পূর্বে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম ছিলো হামদান বিন মোহাম্মদ ই-বিশ্ববিদ্যালয়।[৬] এছাড়াও তিনি তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য তৈরী প্রতিষ্ঠান শেখ শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ ইসট্যাবলিশমেন্ট, দুবাই স্পোর্টস কাউন্সিল এবং দুবাই অটিজম সেন্টারের প্রধান।[৪]

দুবাই যখন ওয়ার্ল্ড এক্সপো ২০২০ অনুষ্ঠান আয়োজনের অধিকার লাভ করে, তখন শেখ হামদান ছিলেন সেই প্রতিনিধি দলের একজন সদস্য।[৭] তিনি ওয়ার্ল্ড এক্সপো ২০২০ এর জয়ের কয়েকদিন পর সংযুক্ত আরব আমিরাতের পতাকা বুর্জ খলিফার শীর্ষ তলায় নিয়ে যান এবং উড়ান।[৮] তিনি হামদান ইন্টারন্যাশনাল ফটোগ্রাফি অ্যাওয়ার্ডের প্রতিষ্ঠাতা, যা ২০১১ সালে চালু হয়েছিল। [৯]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

জুন ২০১৯ পর্যন্ত শেখ হামদানের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ৮.২ মিলিয়নেরও বেশি ফলোয়ার রয়েছে। তিনি এমন ছবি পোস্ট করেছেন যা তার শখ, যেমনঃ প্রাণী, কবিতা, খেলাধুলা, ফটোগ্রাফি এবং অ্যাডভেঞ্চার প্রকাশ পায়। [১০]

১৫ মে, ২০১৯ সালে তিনি শেখ বিনতে সাঈদ বিন থানি আল মাকতুমকে বিয়ে করেছিলেন।[১১]

হামদান আল মাকতুম একজন লাইসেন্সধারী এবং ভালো অশ্বারোহী, স্কাই ডাইভার এবং একজন দক্ষ স্কুবা ডুবুরি। তিনি ফুজাইরাহতে (সংযুক্ত আরব আমিরাতের একটি রাজ্য) ড্রাইভ করেছেন।[৪] আরবি ভাষায় রোমান্টিক এবং দেশাত্মবোধক কবিতার জন্য তিনি বেশ পরিচিত। তিনি রয়েল অ্যাসকোটেরও সদস্য।[১২]

শেখ হামদান নরম্যান্ডিতে (এফআরএ) অলটেক এফআইআই ওয়ার্ল্ড ইকুয়েস্ট্রি গেমস ২০১৪-তে স্বর্ণপদক, ২০১২ সালে দলীয় স্বর্ণপদক এবং ২০১০ সালে একটি ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন।[১৩][১৪]

উপাশী, শৈলী এবং সম্মান[সম্পাদনা]

  • ১৪ নভেম্বর, ১৯৮২ - ৪ জানুয়ারী, ২০০৬: শেখ হামদান বিন মোহাম্মদ আল মাকতুম
  • ৪ জানুয়ারী ২০০৬ - ১ ফেব্রুয়ারি, ২০০৮: মহামান্য শেখ হামদান বিন মোহাম্মদ আল মাকতুম
  • ১ ফেব্রুয়ারি, ২০০৮ - বর্তমান: মহিমান্বিত যুবরাজ শেখ হামদান বিন মোহাম্মদ আল মাকতুম

সম্মাননা[সম্পাদনা]

বিদেশী সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • অর্ডার অফ সিভিল মেরিটের 'নাইট গ্র্যান্ড ক্রস' (কিংডম অফ স্পেন, ২৩/০৫/২০০৮)।[১৫]
  • মধ্য প্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকায় তার শিক্ষাক্ষেত্রে ভূমিকা এবং হামদান বিন মোহাম্মদ স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার স্বীকৃতি হিসাবে তাকে Cannesপুরষ্কার দেওয়া হয়।[১৬]

উত্পত্তি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Davidson, Christopher M. (২৯ নভেম্বর ২০০৯)। "A tale of two desert dynasties"The Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০১৩ 
  2. "Crown Prince Hamdan bin Mohammed bin Rashid Al Maktoum"royalista.com/। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  3. "HH Sheikh Hamdan Bin Mohammed Bin Rashid Al Maktoum"বিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজনLinkedIn (English ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০১৭ 
  4. "Profile: Shaikh Hamdan bin Mohammad Al Maktoum"Gulf News। ১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০০৮ 
  5. "Shaikh Hamdan appointed Dubai's Crown Prince"Gulf News। ১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ 
  6. "Hamdan bin Mohammed launches Hamdan bin Mohammed e-University"hamdan.ae। ১ ফেব্রুয়ারি ২০০৯। 
  7. "Expo 2020: Dubai celebrates in style"। ২৩ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৬ 
  8. "Shaikh Hamdan waves UAE flag from top of Burj Khalifa - Khaleej Times"Khaleej Times। ২৮ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১৬ 
  9. "Hamdan International Photography Award. He also has an airport named after him in the city of Dubai that is formally known as Dubai Al Maktoum International."artdubai.ae। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  10. Iyer, Anita (৩ জানুয়ারি ২০১৮)। "Do you know who Sheikh Hamdan follows on Instagram?"Khaleej Times। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৮ 
  11. "Dubai's Crown Prince Sheikh Hamdan Just Got Married" (ইংরেজি ভাষায়)। Harper's Bazaar Arabia। ১৬ মে ২০১৯। 
  12. Wam (১৮ জুন ২০১৫)। "Mohammed, Hamdan at the second day of Royal Ascot"emirates247। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  13. "LONGINES FEI WORLD ENDURANCE CHAMPIONSHIPS 2016 - SLOVAKIA WELCOMES RECORD 46 NATIONS"Fédération Équestre Internationale। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  14. "Sheikh Hamdan bin Mohammed gets ready to retain World Equestrian Games title"The National। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। 
  15. "Boletín Oficial del Estado" (PDF) 
  16. "Hamdan receives Cannes Award for Education"hamdan.ae। ৪ জুলাই ২০০৯।