হরিপাল রেলওয়ে স্টেশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Indian Railways Suburban Railway Logo.svg
হরিপাল
কলকাতা শহরতলি রেল স্টেশন
অবস্থানতারকেশ্বর রোড, গোপীনগর, হরিপাল, হুগলী জেলা, পশ্চিমবঙ্গ
ভারত
স্থানাঙ্ক২২°৪৯′৫৪″ উত্তর ৮৮°০৭′০৯″ পূর্ব / ২২.৮৩১৫৪৭° উত্তর ৮৮.১১৯১৬৩° পূর্ব / 22.831547; 88.119163স্থানাঙ্ক: ২২°৪৯′৫৪″ উত্তর ৮৮°০৭′০৯″ পূর্ব / ২২.৮৩১৫৪৭° উত্তর ৮৮.১১৯১৬৩° পূর্ব / 22.831547; 88.119163
উচ্চতা১৫ মিটার (৪৯ ফু)
মালিকানাধীনভারতীয় রেলওয়ে
পরিচালিতপূর্ব রেলওয়ে
লাইনশেওড়াফুলি-তারকেশ্বর ব্রাঞ্চ লাইন
প্ল্যাটফর্ম
রেলপথ
নির্মাণ
গঠনের ধরনআদর্শ (ভূপৃষ্ঠ স্টেশন)
সাইকেলের সুবিধাহ্যাঁ
অন্য তথ্য
অবস্থাচালু (সক্রিয়)
স্টেশন কোডHPL
বিভাগ হাওড়া
ইতিহাস
চালু১৮৮৫
বৈদ্যুতীকরণ১৯৫৭-৫৮
আগের নামতারকেশ্বর রেলওয়ে কোম্পানি
পরিষেবা
পূর্ববর্তী স্টেশন   কলকাতা শহরতলি রেল   পরবর্তী স্টেশন
পূর্ব লাইন
সামনে গোঘাট
অবস্থান
হরিপাল পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
হরিপাল
হরিপাল
হরিপালের অবস্থান
হরিপাল ভারত-এ অবস্থিত
হরিপাল
হরিপাল
হরিপালের অবস্থান

হরিপাল রেলওয়ে স্টেশন হল ভারতের পূর্ব রেলওয়ে অঞ্চলের হাওড়া রেলওয়ে বিভাগের শেওড়াফুলি-তারকেশ্বর লাইনের একটি রেলওয়ে স্টেশন। এই স্টেশনটি কলকাতা শহরতলি রেল ব্যবস্থার অন্তর্গত। এটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের হুগলী জেলার হরিপালে তারকেশ্বর রোডের পাশে গোপীনগরে অবস্থিত।[১][২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৮৫ সালের ১ জানুয়ারি তারকেশ্বর রেলওয়ে কোম্পানি শেওড়াফুলি–বিষ্ণুপুর ব্রাঞ্চ লাইনটির সূচনা করে এবং এটি ইস্ট ইন্ডিয়া রেলওয়ে কোম্পানির দ্বারা পরিচালিত হত। ১৯১৫ সালে ইস্ট ইন্ডিয়া রেলওয়ের দ্বারা তারকেশ্বর রেলওয়ে কোম্পানি অধিগৃহীত হয়েছিল।[৩] ১৯৫৭-৫৮ সালের মধ্যে ৩০০০ v DC সিস্টেম দ্বারা রেলওয়েটির বৈদ্যুতীকরণ করা হয়। ১৯৬৭ সালে ২৫ KV AC সিস্টেম দ্বারা হরিপাল রেলওয়ে স্টেশনটিরও বৈদ্যুতীকরণ করা হয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "HPL/Haripal"। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১৯ 
  2. "HARIPAL (HPL) Railway Station"ndtv.com। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১৯ 
  3. "The Chronology of Railway Development in Eastern India."। ২০১২-০৮-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১৯ 
  4. "EMU local flagged off in remembrance of 60-year heritage"। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১৯