হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ
ধরনব্যক্তিমালিকানাধীন
শিল্পপুঞ্জিভূত
প্রতিষ্ঠাকালঢাকা, বাংলাদেশ (১৯৪৭ (1947))
সদরদপ্তরতেজগাও, ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রধান ব্যক্তি
পণ্যসমূহ
কর্মীসংখ্যা
৫০,০০০

হক গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজ ১৯৪৭ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের একটি ব্যক্তিমালিকানাধীন পুঞ্জিভূত উৎপাদক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি বিস্কুট, চিপস, কনফেকশনারি, সাবান এবং ব্যাটারি প্রস্তুত করে।[১][২] ১৯৪৭ সালে প্রতিষ্ঠানটির উদ্যোগতা তমিজুল হক ব্রিটিশ বিস্কুট প্রস্ততকারক হান্টলি অ্যান্ড পামার্স এবং ব্যাটারি প্রস্ততকারক ইউনিয়ন কার্বাইডের পরিবেশক হিসাবে যাত্রা শুরু করেন।[১][২] ১৯৫২ সাল হতে হক ব্রাদার্স ইন্ডাস্ট্রিজ নামে পরিবেশকের পাশাপাশি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কর্মকাণ্ড শুরু করে।[২] ২০১৮ সালের হিসেব অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির ৮৪টি পণ্য, ৫০টি ব্র‌্যান্ড ও ২টি কারখানা আছে।[৩] ২০২০ সালের হিসাব অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির ৫০ হাজারের বেশি মানবসম্পদ কর্মরত আছে।

অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সমূহ[সম্পাদনা]

হক ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড[সম্পাদনা]

ঢাকার তেজগাঁওতে ১৯৫৭ সালের জানুয়ারি মাসে হক ফুড-এর প্রথম কারখানা স্থাপিত হয়।[১][৩] প্রতিষ্ঠানটি ক্রিম ক্র্যাকার্স, বারবন, সুগার গ্লেজড বিস্কুট, ওভেন ফ্রেশ কুকিজ, চকলেট ফিলড চিপস সহ বিভিন্ন ধরনের বিস্কুট পণ্য উৎপাদন করেছে।[১] প্রতিষ্ঠানটির মূল পণ্য, ক্রিম ক্র্যার্কাস, বারবন এবং ডাইজেটিভ বিস্কুট।[১] এর মধ্যে 'মিঃ কুকি' সবচেয়ে জনপ্রিয়, ব্র্যান্ডটি বেশ কয়েকবার আন্তর্জাতিক খাদ্যমান পুরস্কার সিলেকশন জয় করেছে।[৪][৫]

হক অ্যান্ড কোং লিমিটেড[সম্পাদনা]

হক অ্যান্ড কোং লিমিটেড সাবান উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। ১৯৮৮ সালের জুলাই মাস হতে ঢাকার টঙ্গীতে প্রতিষ্ঠানটি উৎপাদন শুরু হয়। পুরুষের জন্য 'ম্যান সোল' নামের সাবান প্রস্তুতের মাধ্যমে এর উৎপাদন শুরু হয়। তাছাড়াও কারখানাটি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ডেটল, স্যাভলন, কিউট ও সন্তুরের মতো জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের সাবান উৎপাদন সহযোগী।[১]

হক অ্যান্ড কোম্পানি (ড্রাই সেল) লিমিটেড[সম্পাদনা]

এটি ব্যাটারি উৎপাদক প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৪ সালের সেপ্টেম্বরে টঙ্গীতে চালু হয়। এই প্রতিষ্ঠানটি ইউএম৩ ব্যাটারি (ডবল এ বা পেনসিল ব্যাটারি), ইউএম৪ (ট্রিপল এ বা রিমোট ব্যাটারি) এবং মেটাল জ্যাকেট ইউএম১ হেভি-ডিউটি ব্যাটারি তৈরি করে। ১৯৬৫ সালের জানুয়ারিতে, টঙ্গীতে কার্বাইড কারখানা হক কার্বাইড প্রতিষ্ঠিত হয়। হক ৭৮৬ ব্যাটারি এই প্রতিষ্ঠানের একটি প্রচলিত ব্র্যান্ড।[১]

জুনু বিচ রিসোর্ট লিমিটেড[সম্পাদনা]

এই প্রতিষ্ঠানটি পর্যটনমুখী সৈকত বিনোদনের জন্য চালু করা হয়। এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বিলাসবহুল ইয়ট চালু করেছিল। এর বিনোদন সুবিধায় সহ একটি ওয়াটার পার্ক অন্তর্ভুক্ত আছে

হক রিক্রিয়েশনাল প্রোডাক্ট লিমিটেড[সম্পাদনা]

এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের অপর সৈকত বিনোদন প্রতিষ্ঠান জুনু বিচ রিসোর্টের জন্য সমুদ্র সৈকত বিনোদনমূলক পণ্য আমদানিকারক হিসেবে কার্যক্রম পরিচালনা করে। প্রতিষ্ঠানটি খেলার সরঞ্জাম, যানবাহন এবং অন্যান্য বিনোদন সরঞ্জাম আমদানি, বিক্রয়, ভাড়া এবং সেবা সরবরাহ করে। এর পরিষেবাসমূহের মধ্যে রয়েছে বিলাসবহুল ইয়ট, জেটস্কি, ক্যাটামারান, ওয়েকবোর্ডিং ইত্যাদি। এর একটি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত উদ্ধার দল রয়েছে।[১]

অন্যান্য[সম্পাদনা]

এ. টি. হক লিমিটেড ২০১১ সাল থেকে বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের সিমেন্ট পেইন্ট ডুরোসেম, রোবিয়ালাক ওয়াল পাটি, ব্রিদ ইজি ওয়াল পাটি, মিঃ এক্সপার্ট ল্যাটেক্স প্লাস, ইলিউশনস এবং পাওয়ার বন্ড ডিডিএল তৈরি করছে। এছাড়াও হক গ্রুপে রয়েছে হক ইম্পেরিয়াল প্রপার্টি লিমিটেড, যেটি গ্রুপের প্রপার্টি বিজনেস সংস্থা এবং ওয়ার্ল্ড ট্র্যাভেলার্স নামের ট্রাভেল এজেন্সি আছে।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, আদম তমিজী হক সিআইপি দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ গঠনে সংগ্রামী, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর, জুলাই ২২, ২০২০
  2. বিস্কিটের রাজাঃ অ্যাডাম হক, ইত্তেফাক, ২২ জুন, ২০১৫
  3. এ. টি. হক লিমিটেড, শেয়ারবিজ, ২৩ মে, ২০১৮
  4. The Haque Heritage, ICE Business Times, page 90, 9 October, 2016
  5. A. T. Haque Ltd – Haque Group of Industries ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৩ নভেম্বর ২০২০ তারিখে, বাংলাদেশ বিজনেস ডিরেক্টরি, ২৪ মার্চ, ২০১৮