স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল (ভারত)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল
SirGangaranDelhi.jpg
হাসপাতালে পৃষ্ঠপোষক স্যার গঙ্গা রামের মূর্তি
ভৌগোলিক অবস্থান
অবস্থানদিল্লি, ভারত
পরিষেবা
শয্যা৬৭৫
ইতিহাস
প্রতিষ্ঠিত১৯৫৪

স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল দিল্লির রাজেন্দ্র নগরের ৬৭৫ শয্যা বিশিষ্ট মাল্টি-স্পেশালিটি একটি বেসরকারী হাসপাতাল।[১] এটি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া জুড়ে রোগীদের জন্য ব্যাপক চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে। [২][৩] হাসপাতালের ন্যূনতম অ্যাক্সেস সার্জারি বিভাগ দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম এ জাতীয় বিভাগ ছিল। [৪]

এই হাসপাতালটিতে শিখ সাম্রাজ্য রয়্যাল পরিবারের কিছু সদস্য, কাশ্মীরের রাজকন্যা শবনম-১৯৬৯ এবং জম্মুর রাজকন্যা আইশ্বভারিয়ার জন্ম হয়েছিল। [৫]

ভারত সরকারের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেপনাডদা উপস্থাপিত স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল যা ২জুন ২০১৬ তারিখে "ভারতের একাধিক বিশেষায়িত হাসপাতালের জন্য অর্থনৈতিক টাইমসের সেরা স্বাস্থ্যসেবা ব্র্যান্ড" এর জন্য পুরস্কার পেয়েছিল।

স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল ডিপ্লোমেট ইন ন্যাশনাল বোর্ডের (ডিএনবি) প্রোগ্রামের আওতায় তরুণ চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণও দেয়। হাসপাতালে ডিএনবি প্রোগ্রামটি ১৯৮৪ সালে শুরু হয়ে এবং বর্তমানে এখানে দেশের সর্বাধিক সংখ্যক ডিএনবি রয়েছে। [৬] এটির ভারতে প্রথম বোন ব্যাংক থাকার গৌরব রয়েছে।

স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল এবি-পিএমজেএয়ে যোগদানের জন্য প্রথম বড় দিল্লির হাসপাতালে পরিণত হয় ২৯শে মার্চ ২০১৯। [৭]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আসল হাসপাতালটি (স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল (পাকিস্তান)) সর্বপ্রথম ১৯২১ সালে ভারতের লাহোরে প্রতিষ্ঠা করেন (বর্তমানে পাকিস্তান) সিভিল ইঞ্জিনিয়ার এবং তাঁর সময়কার সমাজসেবী স্যার গঙ্গা রাম (১৮৫১-১৯২৭)। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এবং ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পরে এই দ্বিতীয় হাসপাতালটি নয়াদিল্লিতে প্রায় ১১ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত হয়। [৬][৮] ধর্ম বীর যিনি সে সময় প্রধানমন্ত্রীর প্রাইভেট সেক্রেটারিও ছিলেন, তার তত্ত্বাবধানে ১৯৫১ সালের এপ্রিল মাসে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শ্রী জওহর লাল নেহেরু এই ভিত্তি স্থাপন করেন। পরে ১৯৫৪ সালের ১৩ এপ্রিল তিনি হাসপাতাল উদ্বোধন করেন। স্যার গঙ্গারামের জামাতা ধর্ম বীরও নয়াদিল্লির স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালের প্রধান স্থপতি এবং প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন।

১৯৭০ সালে তহবিলের অভাবে হাসপাতালটি প্রায় বন্ধ হয়েগেছিল। নয়া দিল্লি এর উল্লেখযোগ্য জেনারেল সার্জন ডাঃ কেসি মহাজন দ্বারা এটি ১৯৮২ সালে পুনর্গঠিত হয়। পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান হিসাবে ডাঃ মহাজন হাসপাতালের আর্থিক ও কার্যকরী কাঠামো সংশোধন করে এবং হাসপাতালের প্রাঙ্গণে তিনি ইমেজিং ডায়াগনস্টিকস সেন্টারও প্রতিষ্ঠা করেন। [৯] তিনি এখনও হাসপাতালের জেনারেল সার্জারি বিভাগে ইমেরিটাস পরামর্শদাতার দায়িত্ব পালন করছেন। ১৯৭০ এর দশকের ঘটনা পরিষেবা কেন্দ্রিক হয়ে উচ্চ মানের ক্যান্টিন সেবার মাধ্যমে লাভজনক হওয়ার দিকে মনোনিবেশ করে।[১০]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "'We feel proud that we have created an excellent medical and para-medical manpower to serve the nation'"The Financial Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-০৬-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-২৬ 
  2. "Child with structural defect gets help"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-০৬-১৫। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-২৬ 
  3. "Microbiologists"। ২০১৬-০৬-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-২৬ 
  4. Achievements ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২১ জুন ২০০৯ তারিখে
  5. Nationalinfo (২০১৬-০৬-১৪)। "Sir Ganga Ram Hospital"national info। ২০১৬-০৮-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-২৬ 
  6. "MedikReview: W Pratiksha hospital"www.medikreview.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৫-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১১ 
  7. "Sir Ganga Ram Hospital becomes First Big Delhi Hospital to join Ayushman Bharat scheme"Medical Dialogues (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৩-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৯ 
  8. http://sgrh.com/about_us
  9. "Sir Ganga Ram Hospital (Mahajan Imaging)"LabsAdvisor.com 
  10. "Expert Talk - Dr KC Mahajan » DoctorNDTV ....for the better health of Indians"doctor.ndtv.com। ২০১৬-০৩-০৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-২৬ 

বাহি সূত্র[সম্পাদনা]