সৈয়দ হামিদ রাজা গিলানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সৈয়দ হামিদ রাজা গিলানি
سید حامد رضا گیلانی‎‎
পাকিস্তানের তৃতীয় জাতীয় পরিষদের সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৬২ – ১৯৬৫
কাজের মেয়াদ
১৯৭৫ – ১৯৭৭
পাকিস্তানের ফেডারেল মন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১৯৮৫ – ১৯৮৮‎
কাজের মেয়াদ
১৯৭৫ – ১৯৭৭
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৭ আগস্ট ১৯৩৬
মৃত্যু২৪ জানুয়ারী ২০০৪
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঅক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়

সৈয়দ হামিদ রাজা গিলানি ( উর্দু: سید حامد رضا گیلانی‎‎  ; ১৭ আগস্ট ১৯৩৬ - ২৪ জানুয়ারী ২০০৪) ছিলেন পাকিস্তানের একজন প্রাক্তন ফেডারেল মন্ত্রী, জাতীয় পরিষদের সদস্য এবং রাষ্ট্রদূত।[১][২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

পরিবারের ঐতিহ্য বজায় রেখে সৈয়দ হামিদ রাজা গিলানী প্রাথমিক শিক্ষার অর্জন করেন পাকিস্তানের লাহোরের আইচিসন কলেজে। গিলানি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

গিলানির রাজনৈতিক জীবন শুরু হয় ১৯৬২ সালে যখন রাষ্ট্রপতি আইয়ুব খান সরকারের সময় তিনি মুলতান থেকে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৩] তিনি বিদেশ বিষয়ক সংসদীয় সচিব নিযুক্ত হন। এই সময়ে তিনি জুলফিকার আলী ভুট্টোর ঘনিষ্ঠ বন্ধু হন। তিনি ১৯৭০ সালের নির্বাচনে পরাজিত হয়ে পাকিস্তান পিপলস পার্টিতে যোগ দিয় এবং কেনিয়ায় পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত হয়ে যেখানে ১৯৭১ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৫ সালে পাকিস্তানে ফিরে এসে তিনি পিপিপির টিকিটে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আবারও জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। জুলফিকার আলী ভুট্টো তাকে তার শিল্প মন্ত্রীর পদে নিয়োগ করেন। রাষ্ট্রপতি জিয়া উল-হকের শাসনামলে মুলতানের স্থানীয় নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতার সাথে বিজয়ী হন। ১৯৮৫ সালে নির্দলীয় নির্বাচনে তিনি জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়ন। ১৯৮৫ সালে তিনি নির্দলীয় নির্বাচনে তিনি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মনোনীত হন তবে জিয়া উল হক চেয়েছিলেন প্রার্থী সিন্ধের হতে হবে। পরে তিনি ১৯৯০ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত সিনেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

তার বাবা মখদূম সৈয়দ মুহাম্মদ রাজা শাহ গিলানী একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন এবং স্থানীয় নির্বাচনে ব্রিটিশ রাজের প্রার্থী পেন্ডেরেল মুনকে (পরে স্যার পেন্ডেরেল মুন) পরাজিত করেন। তিনি বহু বছর মুলতান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Assembly, Pakistan National। Debates: Official Report (ইংরেজি ভাষায়)। Manager of Publications.। পৃষ্ঠা 1450-1451। 
  2. "Leading News Resource of Pakistan – Hamid Gilani laid to rest"ডেইলি টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। ১ মার্চ ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০২১ 
  3. "LIST OF MEMBERS OF THE 3RD NATIONAL ASSEMBLY OF PAKISTAN FROM 1962-1964" (PDF)na.gov.pk। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২১